রবিবার | নভেম্বর ২৮, ২০২১ | ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৮

দেশের খবর

সেন্ট মার্টিনে আটকে পড়া পর্যটকরা ফিরেছেন

বণিক বার্তা প্রতিনিধি, কক্সবাজার

মৌসুম শুরুর আগেই অসময়ে সেন্ট মার্টিনে বেড়াতে গিয়ে আটকে পড়া শতাধিক পর্যটক তিনদিন পর ট্রলারে করে ফিরেছেন। গতকাল ৮টি সার্ভিস বোটে করে এসব পর্যটক টেকনাফ জেটি ঘাটে পৌঁছেন। সার্ভিস বোটগুলো সকাল সাড়ে ১০টায় সেন্ট মার্টিন থেকে রওনা দিয়ে দুপুর ১টার দিকে পৌঁছে টেকনাফ কায়ুকখালী ঘাটে।

এর আগে গত শুক্র শনিবার সেন্ট মার্টিনে নৌ-ভ্রমণে গিয়ে তারা দ্বীপে আটকা পড়েন।

প্রসঙ্গে সেন্ট মার্টিন ইউনিয়ন পরিষদের মেম্ব্বার হাবিবুর রহমান হাবিব বলেন, মঙ্গলবার (গতকাল) সকালে ট্রলারে করে আটকা পড়া পর্যটকরা টেকনাফে ফিরেছেন। দ্বীপে থাকাকালীন তাদের দেখভাল করা হয়েছিল পরিষদের পক্ষ থেকে। কোনো সমস্যা ছাড়াই পর্যটকরা কক্সবাজার-টেকনাফ হয়ে বাড়ি ফিরতে পারবেন।

টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. পারভেজ চৌধুরী বলেন, আবহাওয়া-সংক্রান্ত সতর্কতা সংকেত কেটে যাওয়ায় টেকনাফ-সেন্ট মার্টিন নৌরুটে সার্ভিস বোটে করে তাদের ফিরিয়ে আনা হয়। তিনি বড় জাহাজ প্রশাসনের অনুমতি ছাড়া ভ্রমণ না করার পরামর্শ দেন।

বৈরী আবহাওয়ায় বঙ্গোপসাগর উত্তাল হয়ে পড়ায় ট্রলারসহ কোনো নৌযান প্রবালদ্বীপ থেকে ছেড়ে আসতে পারছিল না। সোমবার বিকেলে আবহাওয়া কিছুটা স্বাভাবিক হলেও ভাটার কারণে আসতে পারেননি তারা। ফলে দুদিন ধরে এসব পর্যটক সেন্ট মার্টিনে আটকে ছিলেন।

সেন্ট মার্টিনের হোটেল সী-প্রবালের পরিচালক আবদুল মালেক জানান, স্পিড কাঠের বোটে করে শতাধিক পর্যটক মৌসুম শুরুর আগেই সেন্ট মার্টিন আসেন। আবহাওয়া খারাপ হওয়ায় তারা যথাসময়ে ফিরে যেতে পারেননি। অনেকে না জেনে ধারণা করে তিন শতাধিক পর্যটক আটকে আছেন বলে অপপ্রচার চালাচ্ছেন, কিন্তু আসলে সংখ্যা হবে শতাধিক।

ইউএনও মো. পারভেজ চৌধুরী জানান, সেন্ট মার্টিনের সঙ্গে পর্যটকবাহী জাহাজ চলাচল শুরু না হলেও স্পিডবোট কাঠের ট্রলারে পর্যটকরা সেন্ট মার্টিন ভ্রমণ করছেন।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন

×