রবিবার | ডিসেম্বর ০৫, ২০২১ | ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৮

প্রথম পাতা

টি২০ বিশ্বকাপ শুরু আজ

প্রস্তুত বাংলাদেশ নির্ভীক স্কটল্যান্ড

ক্রীড়া প্রতিবেদক

আইসিসি টি২০ বিশ্বকাপ ২০২১-এর পর্দা উঠছে আজ। সপ্তম টি২০ বিশ্বকাপের আয়োজক ভারত হলেও কভিড-১৯ পরিস্থিতির কারণে আসরটি বসছে ওমান সংযুক্ত আরব আমিরাতে। আজ উদ্বোধনী দিনই মাঠে নামছে বাংলাদেশ। ওমানের আল আমরাতে মাহমুদউল্লাহদের প্রতিপক্ষ স্কটল্যান্ড। রাত ৮টায় শুরু হতে যাওয়া ম্যাচটি বাংলাদেশের জন্য খানিকটা চ্যালেঞ্জের, যারা দুটি প্রস্তুতি ম্যাচে হেরেছে। যদিও সম্প্রতি ঘরের মাঠে অস্ট্রেলিয়া নিউজিল্যান্ডকে টি২০ সিরিজে হারিয়ে দেয়া টাইগাররা আজকের ম্যাচের জন্য পুরো আত্মবিশ্বাস নিয়েই নামছে। আবার ফেভারিটের তকমা নিয়ে নামা বাংলাদেশকে কোনো ছাড় দেবে না স্কটিশরা।

আজ উদ্বোধনী দিন প্রথম ম্যাচে স্বাগতিক ওমান খেলবে পাপুয়া নিউগিনির বিপক্ষে, ম্যাচটি শুরু হবে বিকাল ৪টায়।

প্রথম ম্যাচে মাঠে নামার আগে আয়ারল্যান্ড শ্রীলংকার বিপক্ষে দুটি প্রস্তুতি ম্যাচে হেরেছে বাংলাদেশ। যদিও দলের সঙ্গে থাকা নির্বাচক হাবিবুল বাশার জানালেন, প্রথম ম্যাচের জন্য প্রস্তুত বাংলাদেশ। তিনি বলেন, আমরা বেশ ভালো ক্রিকেট খেলে এসেছি দেশের মাঠে সিরিজে। দলও যথেষ্ট আত্মবিশ্বাসী। প্রস্তুতি ম্যাচ প্রস্তুতি ম্যাচই, সেটা নিয়ে খুব বেশি বিচার করতে চাচ্ছি না। অবশ্যই আমাদের খুব ভালো ধারণা হয়ে গেছে, বিশ্বকাপে কিসের মুখোমুখি হতে পারি। কত বড় চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হতে পারি। আমার মনে হয় আমরা প্রস্তুত।

প্রস্তুতি ম্যাচগুলোয় দলের কয়েকজন সেরা খেলোয়াড়কে পায়নি বাংলাদেশ। সে কথা মনে করিয়ে দিয়ে বাশার বলেন, আমাদের মূল একাদশ ছিল না। মুস্তাফিজ মাত্র আইপিএল থেকে ফিরল, সাকিবকে পাইনি, অধিনায়ক (মাহমুদউল্লাহ) কোনো ম্যাচ খেলতে পারেনি। সব মিলিয়ে মূল একাদশ পাইনি। আমরা খানিটা পরখ করেছি। দেখার ছিল, বাকিরা সুযোগটা কেমন নিতে পারে।

এদিকে আইপিএল ফাইনাল খেলে গতকাল বিকালে ওমানে দলের সঙ্গে যোগ দিয়েছেন বাংলাদেশের তারকা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। সাকিবকে নিয়ে গতকাল সংবাদ সম্মেলনে মাহমুদউল্লাহ বলেন, সাকিব আজ (গতকাল) সকালে এসেছে। আইপিএলে যে কমিটমেন্ট ছিল তা পূরণ করে এসেছে। মাঠে অনুশীলনেও তাকে পাচ্ছি। সে ঠিক আছে। হয়তো কিছুটা ক্লান্ত আছে, ম্যাচ খেলেই ভ্রমণ করে চলে এসেছে। তবে সে ঠিক আছে, ভালো আছে।

দলের বর্তমান ফর্ম নিয়ে মাহমুদউল্লাহ বলেন, অন্যরা কী বলছে তা নিয়ে আমি মোটেও ভাবছি না। আমি বরং একটি দল হিসেবে নিজেদের সামর্থ্যের কথা জানি। প্রস্তুতি ম্যাচ নিয়ে আমরা চিন্তিত নই, যেখানে আমরা কয়েকজন খেলোয়াড়কে পাইনি এবং এখন আমরা জানি আমাদের কী করতে হবে। আমাদের সেরা ক্রিকেট খেলতে হবে এবং সামর্থ্য অনুযায়ী খেলতে পারলে ফল এমনিতেই আসবে।

বাংলাদেশ দলনায়ক আরো বলেন, আমাদের কিছু বাধা টপকাতে হবে এবং ধাপে ধাপে এগোতে হবে। আশা করি, আগামীকাল (আজ) আমরা ভালো ক্রিকেট খেলতে সমর্থ হলে অনেকদূর যেতে পারব।

টি২০ ক্রিকেটে খানিকটা দুঃসময় পার করা মুশফিকুর রহিমকে নিয়ে মাহমুদউল্লাহ বলেছেন, মুশফিককে নিয়ে আমরা মোটেও উদ্বিগ্ন নই। সে ফিরে আসবে। ফর্ম ফিরে পেতে তার একটি ভালো ইনিংসই যথেষ্ট এবং সেটা কালই (আজ) হতে পারে। আমরা তার সামর্থ্যের কথাটি জানি এবং তার পাশে আছি।

অভিজ্ঞতা, ঐতিহ্য আর বর্তমান ফর্মের বিচারে বি গ্রুপে ফেবারিট বাংলাদেশ। যদিও স্কটিশ কোচ শেন বার্জার তত্ত্বে বিশ্বাসী নন। তিনি বলেন, আমরা জানি, নিজেদের সেরাটা খেলতে পারলে আমরা সব দলকেই বিপাকে ফেলতে পারব। সংক্ষিপ্ততম সংস্করণ সব দলকেই কাছাকাছি নিয়ে আসে। যদি নিজেদের সেরাটা দিতে পারি, যেকোনো দলকে হারাতে পারি আমরা, তা বাংলাদেশ হোক বা ওমান পাপুয়া নিউগিনি। গ্রুপ ম্যাচগুলোয় বাংলাদেশকে আমরা পিএনজি বা ওমানের চেয়ে ওপরে কোথাও দেখি না। আমরা জানি, সব দলই আমাদের দিকে তেড়ে আসবে (জয়ের জন্য) আমরা প্রস্তুত।

স্কটিশদের আত্মবিশ্বাস জোগাচ্ছে সাম্প্রতিক পারফরম্যান্স। গত ১০ দিনে সংযুক্ত আরব আমিরাতে চারটি ম্যাচ খেলে তারা জয় পেয়েছে সবকটিতেই। এর মধ্যে গত অক্টোবর তারা হারায় আয়ারল্যান্ডকে, যে দলের কাছে পরে প্রস্তুতি ম্যাচে হেরে যায় বাংলাদেশ। এরপর স্কটিশরা হারায় পাপুয়া নিউগিনি, নেদারল্যান্ডস নামিবিয়াকে। সংগত কারণেই স্কটিশ কোচ বাংলাদেশকে হারানোর স্বপ্ন দেখতেই পারেন।

টি২০তে একবারের মুখোমুখিতে জিতেছে স্কটিশরা। আর সম্পন্ন হওয়া চারটি ওয়ানডে ম্যাচের সবগুলো জিতেছে বাংলাদেশ। যদিও টি২০ বিশ্বকাপে বাংলাদেশের রেকর্ড ভালো নয়। ২৫ ম্যাচ খেলে বাংলাদেশের জয় মাত্র ৫টি

এবারের টি২০ বিশ্বকাপ আসরটা দুই পর্বে বিভক্ত। প্রথম পর্বে দুই গ্রুপে ভাগ হয়ে লড়াই করবে আটটি দল, যেখান থেকে প্রতি গ্রুপের শীর্ষ দুই দল যোগ দেবে সুপার টুয়েলভ পর্বে। সুপার টুয়েলভ পর্বে ১২টি দল দুই গ্রুপে ভাগ হয়ে খেলবে। আইসিসি র্যাংকিংয়ের শীর্ষ আট দল আগেই সুপার টুয়েলভ পর্বে জায়গা নিশ্চিত করেছে। দলগুলো হলো অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ড, ওয়েস্ট ইন্ডিজ, ইংল্যান্ড, দক্ষিণ আফ্রিকা, ভারত, পাকিস্তান শ্রীলংকা।

প্রথম পর্বে গ্রুপে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবে শ্রীলংকা, আয়ারল্যান্ড, নেদারল্যান্ডস নামিবিয়া। আর বি গ্রুপে লড়বে বাংলাদেশ, স্কটল্যান্ড, ওমান আর পাপুয়া নিউগিনি। বি গ্রুপের সবগুলো ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে ওমানে আর গ্রুপের লড়াই হবে সংযুক্ত আরব আমিরাতে। গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন বি গ্রুপ রানার্সআপ দল গ্রুপ- যোগ দেবে ইংল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া, দক্ষিণ আফ্রিকা ওয়েস্ট ইন্ডিজের সঙ্গে। আর বি গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন গ্রুপ রানার্সআপ দল গ্রুপ- যোগ দেবে ভারত, পাকিস্তান, আফগানিস্তান নিউজিল্যান্ডের সঙ্গে। শারজাহ, আবুধাবি দুবাইয়ে ৩০ ম্যাচের লড়াই শেষে শীর্ষ দুই দল উঠবে সেমিফাইনালে। ১৪ নভেম্বর দুবাইয়ে ফাইনাল।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন