শনিবার | অক্টোবর ২৩, ২০২১ | ৮ কার্তিক ১৪২৮

শেষ পাতা

পরীক্ষামূলক টিকা কার্যক্রম শুরু

মানিকগঞ্জে ৪ বিদ্যালয়ের ১১২ শিশু পেল করোনার টিকা

নিজস্ব প্রতিবেদক

দেশে ১২ থেকে ১৭ বছর বয়সী শিশু-কিশোরদের শরীরে করোনা টিকার পরীক্ষামূলক প্রয়োগ শুরু হয়েছে গতকাল মানিকগঞ্জে কর্নেল মালেক মেডিকেল কলেজে চারটি সরকারি বিদ্যালয়ের ১২০ শিক্ষার্থীকে পরীক্ষামূলক ফাইজার-বায়োএনটেকের টিকা দেয়া হয় দেশে এক কোটির বেশি শিশুকে নভেল করোনাভাইরাসের টিকা দেয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে বলে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য পরিবার কল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, আমাদের ছেলে-মেয়েরা স্কুলে আসছে তারা যাতে করোনা সংক্রমণ থেকে নিরাপদ সুরক্ষিত থাকে সেজন্য আজ পরীক্ষামূলকভাবে আমরা স্কুলশিক্ষার্থীদের টিকা প্রয়োগ শুরু করলাম তারা স্কুলে আসছে, তারা যেন নভেল করোনাভাইরাস থেকে নিরাপদে থাকে এজন্য ফাইজারের টিকাটি আমাদের শিশুদের দিয়ে ট্রায়াল করা হলো অল্পদিনের মধ্যেই সারা দেশেই ফাইজারের টিকা ছেলে-মেয়েদের দেয়া হবে প্রথম পর্যায়ে ৩০ লাখ টিকা দেয়া হবে

স্বাস্থ্য পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, মানিকগঞ্জের সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয়ের ৫০ জন, সরকারি এস কে বালিকা বিদ্যালয়ের ৫০ জন, গড়পাড়া জাহিদ মালেক উচ্চ বিদ্যালয়ের ১০ জন আটিগ্রাম জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান উচ্চ বিদ্যালয়ের ১০ জন শিক্ষার্থীকে ফাইজারের টিকা দেয়া হয় টিকা গ্রহীতারা সবাই নবম দশম শ্রেণীর শিক্ষার্থী টিকা নেয়ার আগে জন্মনিবন্ধন কার্ডের মাধ্যমে নিবন্ধন করে শিক্ষার্থীরা টিকাদান সম্পন্নের পর তাদের বিশ্রামকেন্দ্রে পর্যবেক্ষণে রাখা হয় প্রায় দুই সপ্তাহ তাদের পর্যবেক্ষণে রেখে পরবর্তী সময়ে গণপরিসরে টিকার প্রয়োগ শুরু হবে

অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল বাশার মোহাম্মদ খুরশীদ আলম, অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা, অতিরিক্ত মহাপরিচালক (পরিকল্পনা) অধ্যাপক ডা. মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা, কর্নেল মালেক মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা. মো. জাকির হোসেন এবং জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ প্রশাসনের কর্মকর্তারা

এর আগে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক জানিয়েছিলেন, বাংলাদেশে এখন ৬০ লাখ ডোজ ফাইজারের টিকা আছে সারা দেশে ২১টি কেন্দ্রে টিকাদান কার্যক্রম চালানো হবে শিশু-কিশোরদের পরীক্ষামূলক টিকা প্রয়োগের পর কোনো জটিলতা দেখা না গেলে রাজধানীতে আনুষ্ঠানিকভাবে টিকাদান কার্যক্রম শুরু করা হবে

উল্লেখ্য, নভেল করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি গণপরিসরে টিকাদান কার্যক্রম শুরু করা হয় প্রথমে ৪৫ বছর বয়সীদের টিকা দেয়া হলেও কয়েক দফায় বয়সসীমা কমানো হয় পরে সর্বশেষ ২৫ বছরে আনা হয় টিকা দেয়ার বয়সসীমা তবে ১২ থেকে ১৭ বছর বয়সীদের টিকা দেয়ার বিষয়ে কয়েক মাস ধরে আলোচনা করে আসছিল সরকার পরে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) সম্মতি পাওয়ায় শিশু কিশোরদের টিকাদান কার্যক্রম শুরু করল সরকার

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তথ্যমতে, গতকাল পর্যন্ত সারা দেশে পৌনে চার কোটি মানুষকে প্রথম ডোজের টিকা প্রয়োগ করা হয়েছে এর মধ্যে দ্বিতীয় ডোজ পেয়েছেন কোটি ৮৮ লাখের বেশি মানুষ দেশে এখন ফাইজার-বায়োএনটেক, অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকা, মডার্না সিনোফার্ম টিকার প্রয়োগ চলছে দেশে জরুরি প্রয়োগের জন্য আটটি টিকার অনুমোদন দিয়েছে ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তর

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন