রবিবার | অক্টোবর ২৪, ২০২১ | ৯ কার্তিক ১৪২৮

টকিজ

স্কুইড গেমের তারকাদের ঝড়

ফিচার ডেস্ক

গত ১৭ সেপ্টেম্বর নেটফ্লিক্সে প্রিমিয়ার হওয়ার পর থেকে স্কুইড গেম রীতিমতো বৈশ্বিক ঝড়ে পরিণত হয়েছে। অনেকেই বলছেন, এমন গল্প খুব একটা দেখা যায়নি। আর এমন সহিংসতা কিন্তু সমাজ জীবনের ঘনিষ্ঠ চিত্রায়ণ দর্শকদের টানছে চুম্বকের মতো। মুক্তির সপ্তাহ খানেকের মধ্যে ৯০টি দেশে নেটফ্লিক্সের নাম্বার শো হয়ে ওঠে স্কুইড গেম। প্রতিদিন লাখ লাখ দর্শক দেখছেন স্কুইড গেম। চলছে গলেটনার স্মৃতিচারণ, তৈরি হচ্ছে টিকটক আর দাবি উঠছে দ্বিতীয় সিজনের। ধারণা করা হচ্ছে, এক মাসের মধ্যে স্কুইড গেম নেটফ্লিক্সের সর্বকালের সবচেয়ে বেশি দেখা অরিজিনাল সিরিজে পরিণত হবে। সিরিজ যেমন সুপারহিট হয়েছে তেমনি এর অভিনয়শিল্পীরাও এখন দারুণ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছেন। এতদিন শিল্পীরা ছিলেন দক্ষিণ কোরিয়ার প্রথম সারির অভিনেতা-অভিনেত্রী। কিন্তু স্কুইড গেমকে পর্দায় জীবন্ত করে তুলে তারা এখন বৈশ্বিক সুপারস্টার। সোস্যাল মিডিয়ায় তাদের অ্যাকাউন্টগুলোর আপডেট সে কথাই প্রমাণ করে।

মুক্তির এক সপ্তাহের মধ্যেই স্কুইড গেমের অভিনয়শিল্পীদের ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্টে আলোড়ন ওঠে। হু হু করে বাড়তে শুরু করে তাদের ফ্যান-ফলোয়ার। চোখের পলকে তাদের অ্যাকাউন্টে যুক্ত হয়েছে লাখ লাখ ফলোয়ার। গত ১৭ সেপ্টেম্বর স্কুইড গেম মুক্তি পাওয়ার পর থেকে অক্টোবর পর্যন্ত সিরিজের তারকাদের ইনস্টা অ্যাকাউন্টের ফলোয়ার বৃদ্ধি কেমন হয়েছে সেটা একনজর দেখে নেয়া যাক

জুং হো-ইয়োন:

স্কুইড গেমে জুং ৬৭ নম্বর খেলোয়াড়। গত ১৭ সেপ্টেম্বর তার ইনস্টা অ্যাকাউন্টে ফলোয়ার ছিল লাখ ৬৬ হাজার ৬৪২ জন। অক্টোবর তা বেড়ে দাঁড়ায় কোটি ৬৩ লাখ হাজার ৮৬০ জনে। চার লাখ থেকে একেবারে কোটি ৬০ লাখ! চমকে যেতেই হয় পরিসংখ্যানে। জুং হো-ইয়োন দক্ষিণ কোরিয়ার একজন প্রথম সারির মডেল। ভোগ ম্যাগাজিন তাকে দক্ষিণ কোরিয়ার ভবিষ্যৎ নাম্বার ওয়ান মডেল হিসেবে অভিহিত করেছে। স্কুইড গেমে জুংকে দেখা যায় ক্যাং সি-বেয়কের চরিত্রে, যে তার পরিবারকে উত্তর কোরিয়া থেকে বের করে আনার জন্য দরকারি অর্থের সংস্থান করতে মরণ খেলায় নাম লেখান। ক্যাংয়ের জন্মও উত্তর কোরিয়ায়, কিন্তু একসময় তিনি দেশ থেকে পালিয়ে আসেন।

উই হা-জুন:

পুলিশের গোয়েন্দা। নিজের ভাইয়ের খোঁজে তিনি স্কুইড গেমের কর্মকাণ্ডে নজরদারি শুরু করেন। এতে আছে জীবনের ঝুঁকি। যদিও তিনি নিজে সরাসরি খেলায় অংশ নেন না। তবে তার পরও তিনি স্কুইড গেমের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ফলোয়ার পাওয়া তারকা। গত ১৭ সেপ্টেম্বর উইয়ের ইনস্টা অ্যাকাউন্টে ফলোয়ার ছিল লাখ ৪৫ হাজার ৮৫ জন। অক্টোবর তা বেড়ে দাঁড়ায় ৬৫ লাখ ৭৭ হাজার ৮৭৯ জনে। তিন লাখ থেকে ৬৫ লাখে পৌঁছেছে তার ইনস্টা ফলোয়ার। সবই স্কুইড গেমে তার হোয়াং জুন-হো চরিত্রের অবদান। তার চরিত্রটি সিজন টুতেও ফিরে আসতে পারে বলে দর্শকরা অনুমান করছেন।

লি য়ু-মি:

তিনি স্কুইড গেমের একজন খেলোয়াড়। তার চরিত্রটি শুরু থেকেই সহিংস। সদ্যই তিনি কারাগার থেকে মুক্ত হয়েছেন। নিজের পিতাকে হত্যার অভিযোগ ছিল তার বিরুদ্ধে। লির চরিত্রের নাম জি-ইয়োং। সহিংসতার প্রতিযোগিতায় লি অন্যদের চেয়ে বেশি প্রস্তুত। লি দক্ষিণ কোরিয়ার উদীয়মান এক অভিনেত্রী। গত ১৭ সেপ্টেম্বর লির ইনস্টা অ্যাকাউন্টে ফলোয়ার ছিল ৩৮ হাজার ৯১০ জন। স্কুইড গেমের কল্যাণে তা বাড়তে বাড়তে অক্টোবর দাঁড়ায় ৫৫ লাখ ৮২ হাজার ৬৮২ জনে। মাত্র ৩৮ হাজার থেকে থেকে ৫৫ লাখে পৌঁছেছে তার ইনস্টা ফলোয়ার।

অনুপম ত্রিপাঠি:

ভারতীয় অভিনেতা অনুপম বসবাস করেন দক্ষিণ কোরিয়ায়। স্কুইড গেমে তাকে দেখা যায় পাকিস্তান থেকে আসা শ্রমিক আবদুল আলীর চরিত্রে। আলী গেমের ১৯৯ নম্বর খেলোয়াড়। পরিবারের অবস্থা উন্নতির আশায় আলী যোগ দেন স্কুইড গেমে। অনুপমের চরিত্রটি দর্শকদের মধ্যে বেশ সাড়া ফেলেছে। কারণ শ্রমজীবী অসংখ্য নিম্নবিত্ত মানুষের জীবনের গল্পের সঙ্গে অনুপমের গল্প মিলে যায়। গত ১৭ সেপ্টেম্বর অনুপম ত্রিপাঠির ইনস্টা অ্যাকাউন্টে ফলোয়ার ছিল মাত্র হাজার ৯৭৬ জন। আর আবদুল আলীর চরিত্রের বদৌলতে অক্টোবর সংখ্যাটা দাঁড়ায় ২৭ লাখ ৬৪ হাজার ৪৯৩ জনে। মাত্র তিন হাজার থেকে ২৭ লাখ!

লি জুং-জে: স্কুইড গেমের জনপ্রিয়তার বড় এক উদাহরণের অন্যতম অভিনেতা লি জুং-জে। জুয়ায় আসক্ত লির চরিত্রটির নাম সেয়ং জি-হান। মা মেয়ের সঙ্গে তার বসবাস। মেয়ে যুক্তরাষ্ট্রে চলে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিলে লি বুঝতে পারেন বাবা হিসেবে তার অনেক টাকার দরকার। তাই যোগ দেন স্কুইড গেমে। স্কুইড গেম যেদিন মুক্তি পায় অর্থাৎ গত ১৭ সেপ্টেম্বর লি জুং-জের কোনো ইনস্টা অ্যাকাউন্ট ছিল না। অক্টোবর তার ইনস্টা চালু হয়। এরপর অক্টোবর, মানে পাঁচদিনে তার ইনস্টায় ফলোয়ার সংখ্যা দাঁড়ায় বাইশ লাখ হাজার ৯৯৭।

কিম জু-রিয়ুং:

গত ১৭ সেপ্টেম্বর অভিনেত্রীর ইনস্টা অ্যাকাউন্টে ফলোয়ার ছিল মাত্র ৪২৯ জন। আর স্কুইড গেমের খেলোয়াড় হান মি-নিয়োর চরিত্র তার ইনস্টা ফলোয়ার অক্টোবর ১৬ লাখে পৌঁছে গেছে। শুরু থেকেই হানের চরিত্রটি রহস্যময়। দর্শকরাও তাই মনোযোগ দিয়েছেন তার চরিত্রে।

স্কুইড গেমের অরো দুজন অভিনেতা আছেন, সিরিজ মুক্তির আগে যাদের কোনো ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্ট ছিল না। তারা হলেন হিউ সুং-তে পার্ক হে-সু। তার দুজনই স্কুইড গেমের খেলোয়াড়ের চরিত্রে অভিনয় করেছেন। এর মধ্যে হিউ সুং-তের অ্যাকাউন্ট খোলা হয় গত ১৭ সেপ্টেম্বর আর পার্কের অক্টোবর। এরপর অক্টোবর তাদের দুজনের ইনস্টা ফলোয়ার দাঁড়ায় যথাক্রমে ১৪ লাখ ৬০ হাজার ১৮০ ১২ লাখ ৯৬ হাজার ১৩৬ জনে।

 

সূত্র: বাসেল

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন