রবিবার | অক্টোবর ২৪, ২০২১ | ৯ কার্তিক ১৪২৮

খবর

করোনার টিকা প্রাপ্যতায় যথাযথ বৈশ্বিক পদক্ষেপ দাবি প্রধানমন্ত্রীর

নিজস্ব প্রতিবেদক

জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ৭৬তম অধিবেশনে করোনামুক্ত বিশ্ব গড়তে সার্বজনীন ও সাশ্রয়ী মূল্যে টিকা প্রাপ্যতায় যথাযথ বৈশ্বিক পদক্ষেপ দাবি করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। 

শুক্রবার বাংলাদেশ সময় রাতে নিউইয়র্কে জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের অধিবেশনে এ দাবি জানান শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, কোভিডমুক্ত বিশ্বের জন্য, আমাদের অবশ্যই বিশ্বব্যাপী সব মানুষের জন্য সার্বজনীন ও সাশ্রয়ী মূল্যে টিকার প্রাপ্যতা নিশ্চিত করতে হবে।

এ সময় হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে তিনি বলেন, বর্তমান ‘টিকা-বিভাজন’ প্রবণতা শুধুমাত্র মহামারিকেই দীর্ঘস্থায়ী করবে।

নিজের ভাষণে ধনী ও দরিদ্র দেশগুলোর মধ্যে টিকা বৈষম্য বৃদ্ধিতে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেন শেখ হাসিনা। বলেন, এ যাবৎ উৎপাদিত টিকার ৮৪ শতাংশ উচ্চ ও উচ্চ-মধ্যম আয়ের দেশগুলোর মানুষের কাছে পৌঁছেছে। অন্যদিকে, নিম্নআয়ের দেশগুলো এক শতাংশেরও কম টিকা পেয়েছে। এ সময় জরুরিভিত্তিতে এ টিকা বৈষম্য দূর করার আহ্বান জানান বাংলাদেশের সরকার প্রধান।

তিনি আরো বলেন, অবিলম্বে টিকা প্রযুক্তি হস্তান্তর টিকার সমতা নিশ্চিত করার একটি উপায় হতে পারে। প্রযুক্তি সহায়তা ও মেধাস্বত্ত্বে ছাড় পেলে বাংলাদেশও বিপুল পরিমাণে টিকা তৈরি করতে সক্ষম বলে জানান শেখ হাসিনা।

জাতিসংঘে ১৭ তম বাংলা ভাষণে মহামারি করোনা মোকাবিলার পাশাপাশি, জলবায়ু পরিবর্তনজনিত ঝুঁকি মোকাবিলা ও রোহিঙ্গা প্রত্যাবর্তনসহ বিভিন্ন ইস্যুর ব্যাপারে উল্লেখ করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এসব সমস্যা দূরীকরণে ৬ দফা প্রস্তাব উত্থাপন করেন তিনি। রোহিঙ্গা প্রত্যাবর্তন ইস্যুতে পুনরায় বিশ্বনেতাদের জোরালো ভূমিকা ও অব্যাহত সহযোগিতার প্রত্যাশা করেন। ফিলিস্তিন ও আফগান সমস্যা নিয়েও তিনি আলোচনা করেন।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন