বৃহস্পতিবার | অক্টোবর ২৮, ২০২১ | ১২ কার্তিক ১৪২৮

আন্তর্জাতিক ব্যবসা

যুক্তরাষ্ট্রের বাইরে প্রথম কারখানা করছে বোয়িং

বণিক বার্তা ডেস্ক

যুক্তরাষ্ট্রের বাইরে প্রথম সংযোজন কারখানা তৈরির ঘোষণা দিয়েছে বোয়িং। অস্ট্রেলিয়ায় টুউওম্বায় নির্মাণ হতে যাওয়া কারখানাটিতে চূড়ান্ত পর্যায়ের সংযোজন কাজ করা হবে বলে জানিয়েছে মার্কিন উড়োজাহাজ নির্মাতা প্রতিষ্ঠানটি।

সিএনএনের একটি প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, যদিও কারখানাটিতে বাণিজ্যিক জেট নয় বরং সংস্থাটির প্রাথমিক ব্যবসা সামরিক ড্রোন সংযোজন করা হবে। তবে বোয়িংয়ের জন্য এটি যুক্তরাষ্ট্রের বাইরে আকর্ষণীয় একটি পদক্ষেপ। কয়েক বছর ধরে কঠিনতম রাজস্ব প্রবাহে সংস্থাটির প্রতিরক্ষা, মহাকাশ নিরাপত্তা বিভাগটি শক্তিশালী ভূমিকা পালন করেছে।

২০১৮ সাল থেকে সংস্থাটির এই ইউনিট প্রতি বছর হাজার ৬০০ কোটি ডলার আয় করেছে। যেখানে ৭৩৭ ম্যাক্স সংকট কভিড-১৯ মহামারীতে বোয়িংয়ে বাণিজ্যিক উড়োজাহাজ খাতের আয় ৭২ শতাংশ কমে গেছে। গত বছর প্রতিরক্ষা বিভাগের আয়ের প্রায় ৮৩ শতাংশই মার্কিন প্রতিরক্ষা বিভাগ থেকে এসেছে। বিভাগে উল্লেখযোগ্য বিদেশী গ্রাহকও রয়েছে।

বোয়িংয়ের প্রধান ব্যবসা বাণিজ্যিক উড়োজাহাজ খাতের একটি বড় অংশই দেশের বাইরে থেকে আসে। ২০১৮ সালে উড়োজাহাজ নির্মাতা রেকর্ড ১০ হাজার ১০০ কোটি ডলার আয় করেছিল। এর মধ্যে ৫৬ শতাংশই এসেছিল বিদেশী গ্রাহকদের থেকে।

সংস্থাটির অস্ট্রেলিয়ার কার্যক্রম পরিচালনা করা দল লয়েল উইংম্যান নামে পরিচিত একটি ড্রোন ডিজাইন করেছে। ড্রোনই নতুন কারখানায় তৈরি করা হবে। কারখানাটিতে ২০২৮ সালের মধ্যে হাজার ৫০০ নতুন পূর্ণকালীন কর্মসংস্থান সৃষ্টি হবে বলে আশা করা হচ্ছে। বর্তমানে অস্ট্রেলীয় বিমান বাহিনী ড্রোনটির একমাত্র নিশ্চিত গ্রাহক। তবে বোয়িং ড্রোনকে অন্যান্য গ্রাহকদের কাছেও রফতানির পরিকল্পনা করেছে।

অস্ট্রেলিয়ায় এরই মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রের বাইরে বোয়িংয়ের সবচেয়ে বড় কার্যক্রম চলছে। দেশটিতে সংস্থাটির প্রায় চার হাজার কর্মী কাজ করেন এবং কিছু কর্মী যুক্তরাষ্ট্রের কারখানায় পাঠানো অংশগুলোর প্রাক-সংযোজনের কাজ করে।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন