শুক্রবার | সেপ্টেম্বর ২৪, ২০২১ | ৯ আশ্বিন ১৪২৮

দেশের খবর

মানিকগঞ্জে ২৫০ শয্যার হাসপাতালকে করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতাল ঘোষনা

বণিক বার্তা প্রতিনিধি, মানিকগঞ্জ

মানিকগঞ্জে করোনা সংক্রমণ ও মৃত্যু বেড়ে যাওয়ায় মানিকগঞ্জ ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালকে করোনা ডেডিকেট হাসপাতাল হিসেবে ব্যবহার করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

আজ রোববার দুপুরে জেলা প্রশাসনের সম্মেলন কক্ষে করোনাভাইরাস প্রতিরোধ জেলা কমিটির আলোচনা সভায় এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। মানিকগঞ্জের জেলা প্রশাসক ও জেলা করোনাভাইরাস প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি মুহাম্মদ আব্দুল লতিফ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

জেলা প্রশাসক কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, মানিকগঞ্জে গত ২৪ ঘন্টায় ৩৪৯ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এদের মধ্যে ১৫৩জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এই সময়ে মারা গেছেন 

আক্রান্তদের মধ্যে মানিকগঞ্জ সদরে ৫১জন, সিংগাইরে ১০জন, শিবালয়ে ২২জন,হরিরামপুরে ৮ জন, ঘিওরে ২৭জন, দৌলতপুরে ৮জন এবং সাটুরিয়া উপজেরায় ২৭ জন আক্রান্ত হয়েছেন।

মানিকগঞ্জে এই পর্যন্ত ৩২ হাজার ৪৭৪টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এর মধ্যে আক্রান্ত হয়েছেন ৫ হাজার ৪০৬ জন। এদের মধ্যে সুস্থ্য হয়েছেন ৩ হাজার ২৩৩ জন। বাকিরা নিজ বাসায় ও হাসপাতালে আইসোলেশনে রয়েছেন। সরকারি হিসেবে জেলায় সর্বমোট মারা গছেন ৮৩ জন।

জেলা প্রশাসক আব্দুল লতিফ বলেন, মানিকগঞ্জ জেলায় গত কয়েকদিন ধরে করোনা সংক্রমণ ও মৃত্যু বেড়ে চলেছে। এছাড়া ১শ বেডে রোগীর সংখ্যাও বেশি হয়ে গেছে এবং যারা বাড়িতে চিকিৎসা নিচ্ছেন তাদের অনেকে মারা যাচ্ছেন। করোনা আক্রান্তরা যাতে চিকিৎসা পায় এবং মৃত্যু না হয়। তার জন্য সম্পূর্ণ হাসপাতালকে কোভিড ডেডিকেট হাসপাতাল হিসেবে ব্যবহার করা হবে।

জেলা সিভিল সার্জন ও প্রতিরোধ জেলা কমিটির সদস্য সচিব ডাক্তার আনোয়ারুল আমিন আখন্দ বলেন, আগামী ৩রা আগষ্ট থেকে জেলা হাসপাতালটি করোনা রোগীদের জন্য ব্যবহার করা হবে এবং শুধুমাত্র জরুরি বিভাগ খোলা থাকবেন। এখন যারা হাসপাতালে ভর্তি আছেন,তারা চিকিৎসা নিতে পারবেন। সেই সাথে বর্হিঃবিভাগের আসা রোগীর জন্য মানিকগঞ্জ কর্ণেল মালেক কলেজে যাওয়ার জন্য বলা হয়েছে।

করোনাভাইরাস প্রতিরোধ কমিটির আলোচনাসভা শেষে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। সভায় কোভিড-১৯ সংক্রান্ত কার্যক্রম সুসমন্বয়ের লক্ষ্যে জেলাপ্রশাসক,  মানিকগঞ্জ জনাব মুহাম্মদ আব্দুল লতিফ এর সভাপতিত্বে জেলা করোনা প্রতিরোধ কমিটির সমন্বয়ক  পানি সম্পদ মন্ত্রনালয়ের সচিব কবির বিন আনোয়ার সহ পুলিশ সুপার, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান, সিভিল সার্জন, মেয়র, উপপরিচালক (স্থানীয় সরকার), অতিরিক্ত জেলাপ্রশাসক সহ জেলা করোনা প্রতিরোধ কমিটির সদস্যগণ ও  জেলার বিভিন্ন পর্যায়ের সরকারি কর্মকর্তাগণ, রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ ও সুশীল সমাজের প্রতিনিধিগণ উপস্থিত ছিলেন। 

সভায় প্রধান অতিথি জেলার কোভিড ও বন্যা পরিস্থিতি থেকে উত্তরণের লক্ষ্যে বিভিন্ন দিকনির্দেশনা প্রদান করেন।

এসময় জেলা পরিষদের পক্ষ থেকে চেয়ারম্যান মহোদয় কর্তৃক দুই লক্ষ টাকার আর্থিক অনুদানের চেক হস্তান্তর করা হয়।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন