শুক্রবার | সেপ্টেম্বর ২৪, ২০২১ | ৮ আশ্বিন ১৪২৮

শেষ পাতা

যুক্তরাষ্ট্রের ব্যর্থতার দিন শীর্ষে উঠল চীন

ক্রীড়া প্রতিবেদক

টোকিও অলিম্পিকে গতকাল মেয়েদের ২০০ মিটার ব্রেস্টস্ট্রোক সাঁতারে বিশ্বরেকর্ড গড়া টাইমিংয়ে স্বর্ণ জিতে অভিভূত দক্ষিণ আফ্রিকার তাতিয়ানা শোয়েনমেকার ছবি: আইওসি

টোকিও অলিম্পিকে গতকাল সপ্তম দিন চরম হতাশায় কাটল যুক্তরাষ্ট্রের। অলিম্পিকের পরাশক্তিরা এদিন একাধিক ইভেন্টে কাছাকাছি গিয়েও কোনো স্বর্ণ জিততে পারেনি। তাদের ব্যর্থতায় শীর্ষে উঠে গেছে এশিয়ান জায়ান্ট চীন। কাল চার-চারটি স্বর্ণ জিতে টেবিলের শীর্ষে উঠে গেছে দেশটি। ১৯টি স্বর্ণসহ মোট ৪০টি পদক নিয়ে টেবিলের নম্বরে চীনারা। গতকাল দুটো স্বর্ণ জিতে নেয়া জাপান ১৭টি স্বর্ণসহ ২৮টি পদক নিয়ে টেবিলের দুইয়ে, আর যুক্তরাষ্ট্র ১৪টি স্বর্ণসহ ৪১ পদক নিয়ে তিনে অবস্থান করছে।

এদিকে জয়ের পর জাতীয় পতাকা নিয়ে উল্লাস করার সুযোগ নেই, পদকমঞ্চে সোনার ঝলমলে পদক গলায় ঝোলানোর পর বাজে না গৌরবের জাতীয় সংগীত, তবু রাশিয়ানদের সাফল্য অব্যাহত রয়েছে। মাদক ব্যবহারের কারণে এবারের অলিম্পিকে নিষিদ্ধ রাশিয়া। তাই রাশিয়ান অলিম্পিক কমিটি (আরওসি) টিমের ব্যানারে অন্তত ৩০টি ক্রীড়ায় রাশিয়ার প্রায় ৩০০ অ্যাথলিট টোকিও গেমসে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। রাশিয়ানদের জন্য অদ্ভুতুড়ে আসরে গতকালও আরওসি জিতেছে দুটি স্বর্ণ। সব মিলিয়ে ১০টি স্বর্ণসহ ৩৪টি পদক নিয়ে টেবিলের চারে অবস্থান করছে আরওসি।

সুইমিংপুলের চার স্বর্ণ ভাগাভাগি

টোকিও অ্যাকুয়াটিক সেন্টারে গতকাল এককভাবে কর্তৃত্ব করেনি কোনো দেশ, চারটি দেশ চার ইভেন্টের স্বর্ণ ভাগাভাগি করেছে। ছেলেদের ২০০ মিটার ব্যাকস্ট্রোকে স্বর্ণ জিতে নিয়েছেন আরওসির সাঁতারু ইভজেনি রাইলভ। স্বর্ণ জয়ের পথে তিনি হারিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের রায়ান মার্ফি ব্রিটেনের লুক গ্রিনব্যাংককে। রাইলভ মিনিট ৫৩.২৭ সেকেন্ড টাইমিং করেছেন, যা নতুন অলিম্পিক রেকর্ড।

মেয়েদের ১০০ মিটার ফ্রিস্টাইলে কাল স্বর্ণ জিতেছেন অস্ট্রেলিয়ার এমা ম্যাককিওন। পথে তিনি নতুন অলিম্পিক রেকর্ড গড়েছেন। এদিন শুরু থেকেই লিড নেয়া ম্যাককিওন ৫১.৯৬ সেকেন্ড টাইমিং করে ফিনিশিং দেয়াল ছুঁয়েছেন। হিটে গড়া তার আগের রেকর্ডটা ভেঙে দিয়ে স্বর্ণ জিতেছেন। অলিম্পিক ইতিহাসে মাত্র দ্বিতীয় নারী হিসেবে ইভেন্টে ৫২ সেকেন্ডের নিচে টাইমিং করেছেন এমা ম্যাককিওন। রৌপ্যজয়ী হংকংয়ের সিওভান হ্যাগের চেয়ে .৩১ সেকেন্ড এগিয়ে ছিলেন ম্যাককিওন। তার অস্ট্রেলিয়ান সতীর্থ কেট ক্যাম্পবেল ৫২.৫২ সেকেন্ড টাইমিং করে ব্রোঞ্জ জিতেছেন।

টোকিও অলিম্পিকে প্রথম এককে স্বর্ণ জিতলেন ম্যাককিওন। তৃতীয় অস্ট্রেলিয়ান নারী হিসেবে অলিম্পিকে ১০০ মিটার ফ্রিস্টাইলে স্বর্ণ জয়ের কৃতিত্ব দেখালেন তিনি। তার আগে কীর্তি আছে ডন ফ্রেজার (১৯৫৬, ১৯৬০ ১৯৬৪) এবং জোডি হেনরির (২০০৪) টোকিও অলিম্পিকে এটা চতুর্থ পদক ম্যাককিওনের; দুটি স্বর্ণ দুটি ব্রোঞ্জ গলায় ঝুলিয়েছেন তিনি।

মেয়েদের ২০০ মিটার ব্রেস্টস্ট্রোকে স্বর্ণ জিতেছেন দক্ষিণ আফ্রিকার তাতিয়ানা শোয়েনমেকার। ইভেন্টে যুক্তরাষ্ট্রের লিলি কিং রৌপ্য একই দেশের অ্যান্নি লাজর ব্রোঞ্জ পেয়েছেন। বিশ্বরেকর্ড মিনিট ১৮.৯৫ সেকেন্ড টাইমিং করেন ২৪ বছর বয়সী শোনমেকার। ২০১৩ সালে মিনিট ১৯.১১ সেকেন্ড টাইমিংয়ে আগের বিশ্বরেকর্ডটি গড়েছিলেন ডেনমার্কের রিক্কি মোলার পেডারসন।

২০০ মিটার ব্যক্তিগত মিডলের স্বর্ণ জিতে নেন চীনের ওয়াং শান। তিনি সময় নেন ১১ মিনিট ৫৫ সেকেন্ড। ব্রিটেনের ডানকান স্কট রৌপ্য সুইজারল্যান্ডের জেরেমি ডেসপ্লানশে ব্রোঞ্জ জিতেছেন।

জুডোতে স্বর্ণ জিতে জাপানের ইতিহাস

চলতি টোকিও অলিম্পিক গেমসে জুডো থেকে নয়টি স্বর্ণ জিতে ইতিহাস গড়ল আয়োজক দেশ জাপান। আগে সর্বোচ্চ আটটি স্বর্ণ জয়ের নজির আছে তাদের। চলতি আসরে জুডোর ১৫টি ইভেন্টের মধ্যে সম্পন্ন হওয়া ১৪টি স্বর্ণের নয়টিই জিতল জাপানিরা!

গতকাল মেয়েদের ৭৮+ কেজি ওজন শ্রেণীতে জাপানের সোনে আকিরা অলিম্পিক অভিষেকেই চমক দেখিয়ে কিউবার ইদালিস ওর্তিজকে হারিয়ে স্বর্ণ জয় করেন। ইভেন্টে সর্বকনিষ্ঠ খেলোয়াড় হিসেবে স্বর্ণ জিতলেন ২১ বছর বয়সী আকিরা।

নিপ্পন বুদোকানে ভয়ংকর প্রতিপক্ষ অর্তিজের মুখোমুখি হন বিশ্বচ্যাম্পিয়ন আকিরা। নিজের চতুর্থ চতুর্থ অলিম্পিকে অংশ নেয়া অর্তিজ ৩১ বছর বয়সী অর্তিজ কঠিন লড়াই করে লন্ডন অলিম্পিকে জেতা মুকুট পুনরুদ্ধারের চেষ্টা করছিলেন। যদিও ঘরের মাঠে উজ্জীবিত আকিরার সঙ্গে পেরে ওঠেননি তিনি। আর্তিজ ২০০৮ সালে ব্রোঞ্জ ২০১৬ সালে রৌপ্যজয়ী। অর্তিজ হারলেও মাত্র চতুর্থ জুডোকার একজন যারা অলিম্পিকে চারটি পদক জিততে সমর্থ হয়েছেন।

এদিকে জুডো থেকে এক আসরে সর্বোচ্চ পদক জয়ের রেকর্ড গড়ল জাপান। ২০০৪ সালের এথেন্স অলিম্পিকে আটটি স্বর্ণ জিতেছিলেন জাপানের জুডোকারা। এবার নিজ দেশের আয়োজনে তারা জিতলেন নয়টি স্বর্ণ। এছাড়া ১৯৬৪ সালের টোকিও আসরে তারা স্বর্ণ পেয়েছিল তিনটি।

জাপানের আধিপত্যের মধ্যেই গতকাল জুডোর পুরুষ ১০০ কেজি ওজন শ্রেণীতে চেক রিপাবলিকের লুকাস কারপালেক জর্জিয়ার গুরাম তুশিশভিলিকে হারিয়ে স্বর্ণ জয় করেন।

আর্চারিতে কোরিয়ান রাজত্ব চলছেই

আর্চারিতে গতকাল নারী ব্যক্তিগত ইভেন্টে স্বর্ণ জিতে নিয়েছেন দক্ষিণ কোরিয়ার অ্যান স্যান। আরওসির এলেনা ওসপোভা রৌপ্য ইতালির লুসিল্লা বোয়ারি ব্রোঞ্জ জিতেছেন। এর মধ্য দিয়ে প্রথম কোরিয়ান আর্চার হিসেবে একটি গ্রীষ্মকালীন অলিম্পিকে তিনটি স্বর্ণ জয়ের কৃতিত্ব দেখালেন ২০ বছর বয়সী অ্যান স্যান। এর আগে নারী টিম ইভেন্ট মিশ্র ইভেন্টেও তিনি স্বর্ণ জয়ের গৌরব অর্জন করেন।

টেনিসের সেমিফাইনাল থেকে বিদায় জোকোভিচের

স্টেফি গ্রাফের পর দ্বিতীয় খেলোয়াড় হিসেবে গ্লোন্ডেন স্লাম জয়ের স্বপ্ন দেখছিলেন নোভাক জোকোভিচ। যদিও টোকিও অলিম্পিকের সেমিফাইনাল থেকে বিদায়ে তার সেই স্বপ্নভঙ্গ হলো। শীর্ষ বাছাই জোকোভিচকে কাল -, -, - গেমে হারিয়ে ফাইনালে উঠেছেন চতুর্থ বাছাই জার্মানির আলেক্সান্ডার জেভেরেভ।

১৯৮৮ সালে প্রথম খেলোয়াড় হিসেবে বছরের চারটি গ্র্যান্ড স্লামের পাশাপাশি অলিম্পিকের স্বর্ণও জিতেছিলেন স্টেফি গ্রাফ। তার গোল্ডেন স্লাম-এর সেই কীর্তি আজো অক্ষত। এবার জোকোভিচের কাছে সুযোগ ছিল তা ভেঙে দেয়ার। যদিও স্টেফির স্বদেশী জেভেরেভ তা হতে দিলেন না। প্রথম সেটটা হেরে গিয়েও শেষ পর্যন্ত অবিশ্বাস্য কামব্যাকে জিতে নেন ম্যাচটি।

আগামীকাল ফাইনালে রাশিয়ান অলিম্পিক কমিটি (আরওসি) দলের কারেন খাচানভের মুখোমুখি হবেন জেভেরেভ।

লন টেনিসের পুরুষ দ্বৈতে স্বর্ণ জিতেছে ক্রোয়েশিয়া। ম্যাতে পাভিচ-নিকোলা মেকতিচ জুটি হারান স্বদেশী মারিন চিলিচ-ইভান দোদিগ জুটিকে। ব্রোঞ্জও জিতেছে নিউজিল্যান্ড।

গতকাল টেবিলের টেনিসের পুরুষ এককে স্বর্ণ জিতেছেন চীনের মা লং। এটা অলিম্পিকে তার এককে তৃতীয় স্বর্ণপদক।

দূরপাল্লার দৌড়ের মাধ্যমে শুরু হয়েছে ট্র্যাক অ্যান্ড ফিল্ডের লড়াই। গতকাল পুরুষদের ১০ হাজার মিটারে চ্যাম্পিয়ন হয়েছেন ইথিওপিয়ার সেলেমন বারেগা। ইভেন্টে উগান্ডার দুই রানার জসুয়া চেপতেগি জ্যাকব কিপলিমো যথাক্রমে রৌপ্য ব্রোঞ্জ জিতেছেন।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন