শুক্রবার | সেপ্টেম্বর ২৪, ২০২১ | ৯ আশ্বিন ১৪২৮

প্রথম পাতা

দুই শতাধিক মৃত্যু শনাক্ত ১৫ হাজারের বেশি

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রাণঘাতী করোনায় আক্রান্ত হয়ে আরো ২৩৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত হয়েছে ১৫ হাজার ২৭১ জন। দেশে কভিড-১৯ পরিস্থিতি নিয়ে গতকাল স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, নভেল করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে একদিনে মৃত্যুর সংখ্যা জুলাই প্রথমবারের মতো ২০০ ছাড়িয়ে যায়। এর মধ্যে গত মঙ্গলবার সর্বোচ্চ ২৫৮ জনের মৃত্যু হয়। আর একদিনে সর্বোচ্চ ১৬ হাজার ২৩০ জন শনাক্ত হয়েছে গত বুধবার।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর বলছে, গতকাল সকাল ৮টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় সারা দেশে ৬৪৩টি পরীক্ষাগারে ৫২ হাজার ২৮২টি নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। পর্যন্ত সরকারি বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় ৭৬ লাখ ৬৪ হাজার ৮৭০টি নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। নতুন আক্রান্তদের নিয়ে দেশে পর্যন্ত শনাক্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১২ লাখ ২৬ হাজার ২৫৩। আর আক্রান্তদের মধ্যে মোট ২০ হাজার ২৫৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। সর্বশেষ আরো ১৪ হাজার ৩৩৬ জন সুস্থ হওয়ায় মোট সুস্থতার সংখ্যা দাঁড়ায় ১০ লাখ ৫০ হাজার ২২০। গতকাল নমুনা পরীক্ষার সংখ্যা বিবেচনায় শনাক্তের হার ২৯ দশমিক ২১ শতাংশ। মোট শনাক্তের হার ১৬ শতাংশ। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৮৫ দশমিক ৬৪ শতাংশ। আর মৃত্যুহার দশমিক ৬৫ শতাংশ।

গত একদিনে শুধু ঢাকা বিভাগেই হাজার ৯৯৬ জনের মধ্যে নভেল করোনাভাইরাস সংক্রমণ ধরা পড়েছে। বাকিদের মধ্যে ময়মনসিংহ বিভাগে ৬৮৯ জন, চট্টগ্রামে হাজার ৭৬৮, রাজশাহীতে ৭৩৫, রংপুরে ৭৪৮, খুলনায় হাজার ১৯, বরিশালে ৬৫৬ সিলেট বিভাগে ৬৬০ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছে।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের বিজ্ঞপ্তি থেকে আরো জানা যায়, গতকাল ঢাকা বিভাগে সর্বোচ্চ ৭৬ জনের মৃত্যু হয়। বাকিদের মধ্যে চট্টগ্রামে ৫৭ জন, রাজশাহীতে ১৩, খুলনায় ৪৫, বরিশাল সিলেটে ১৪ জন করে ২৮ জন, রংপুরে ১১ ময়মনসিংহ বিভাগের বাসিন্দা নয়জন।

দেশে নভেল করোনাভাইরাসের প্রথম সংক্রমণ শনাক্ত হয় গত বছরের মার্চ। চলতি বছরের ২৮ জুলাই শনাক্তের সংখ্যা ১২ লাখ পেরিয়ে যায়। রোগী শনাক্তের ১০ দিন পর গত বছরের ১৮ মার্চ প্রথম করোনা রোগীর মৃত্যু হয়। এরপর ২৮ জুলাই মৃত্যুর সখ্যা ২০ হাজার অতিক্রম করে।

উল্লেখ্য, ২০১৯ সালের ডিসেম্বরে চীনের হুবেই প্রদেশের রাজধানী উহানে করোনাভাইরাসের প্রথম সংক্রমণ শনাক্ত হয়। এরপর মাত্র দুই মাসের ব্যবধানে শতাধিক দেশে ভাইরাসটির সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়লে গত বছরের ১১ মার্চ করোনাকে বৈশ্বিক মাহামারী ঘোষণা করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) করোনাভাইরাস প্রতিরোধী টিকাদানে এখন বিশ্বের বিভিন্ন দেশে কর্মসূচি শুরু করেছে।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন