বুধবার | অক্টোবর ২০, ২০২১ | ৫ কার্তিক ১৪২৮

টেলিকম ও প্রযুক্তি

ডিসকর্ডের মাধ্যমে ম্যালওয়্যার ছড়াচ্ছে হ্যাকাররা

বণিক বার্তা ডেস্ক

চ্যাটিং প্লাটফর্ম ডিসকর্ডের মাধ্যমে হ্যাকাররা ম্যালওয়্যার ছড়িয়ে দিচ্ছে বলে জানিয়েছে শীর্ষ সাইবার নিরাপত্তা প্রতিষ্ঠান সফোস। সম্প্রতি প্রতিষ্ঠানটি ব্যবহারকারীদের বিষয়ে সতর্কতা প্রদান করেছে। খবর আইএএনএস।

প্রতিষ্ঠানটি জানায়, ডিসকর্ড কন্টেন্ট ম্যানেজমেন্ট নেটওয়ার্ক (সিডিএন) থেকে সফোসের টেলিম্যাট্রি হাজার ৮০০-এর বেশি ক্ষতিকর ফাইল শনাক্ত করেছে। শনাক্তকরণ থেকেই তথ্য জানা গেছে। ম্যালওয়্যারের মাধ্যমে তথ্য চুরি, স্পাইওয়্যার, ব্যাকডোর মিসচিফওয়্যার হিসেবে এর পুনর্ব্যবহারের সুযোগ রয়েছে।

এক বিবৃতিতে সফোসের সিনিয়র থ্রেট রিসার্চার শন গ্যালাগার বলেন, ম্যালওয়্যার পরিচালনাকারীদের জন্য ডিসকর্ড বৈশ্বিকভাবে নিরবচ্ছিন্ন, সবসময় ব্যবহারযোগ্য উন্মুক্ত নেটওয়ার্ক প্রদান করে থাকে। মেসেজিংয়ের মাধ্যমেও ক্ষেত্র তৈরি হয়। এর ফলে হ্যাকাররা সহজেই তাদের ম্যালওয়্যার ছড়িয়ে দেয়ার জন্য কমান্ড কন্ট্রোল চ্যানেলের নিয়ন্ত্রণ আয়ত্তে নিয়ে আসতে পারে। হ্যাকাররা এভাবেই ইন্টারনেট রিলে চ্যাট টেলিগ্রামে হামলা চালিয়েছিল।

২০২০ সালের তুলনায় ২০২১ সালের দ্বিতীয় প্রান্তিকে ডিসকর্ডের কন্টেন্ট ম্যানেজমেন্ট নেটওয়ার্কে (সিডিএন) কীভাবে ম্যালওয়্যার আক্রান্ত ইউআরএলের সংখ্যা ১৪০ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে, সে বিষয়েও তথ্য প্রকাশ করেছে প্রতিষ্ঠানটি।

প্রতিষ্ঠানটি জানায়, ম্যালওয়্যারটি অধিকাংশ ক্ষেত্রে গেমসংক্রান্ত টুলস চিট ইঞ্জিন হিসেবে ছদ্মবেশ ধারণ করে থাকে।

সাধারণত গেমাররা চিট ইঞ্জিন কোড ব্যবহারের মাধ্যমে মাইনক্রাফট, ফোর্টনাইট, রবলক গ্র্যানড থেফট অটোর (জিটিএ) মতো গেমসগুলোতে কোনো অর্থ প্রদান ছাড়াই প্রিমিয়াম ফিচার বিভিন্ন সুবিধা ব্যবহার করেন করতে চান।

প্রতিবেদনের তথ্যানুযায়ী, ম্যালওয়্যারের মাধ্যমে তথ্য চুরির হারই সবচেয়ে বেশি এবং ধরনের হামলার আশঙ্কাও বেশি। এছাড়াও গবেষকরা একাধিক পাসওয়ার্ড হাইজ্যাকিং বা চুরি করার ম্যালওয়্যারের সন্ধান পেয়েছেন। যার মধ্যে ডিসকর্ডের সিকিউরিটি টোকেন লগারসও ছিল। ডিসকর্ড অ্যাকাউন্টের তথ্য চুরির জন্য এটি বিশেষভাবে তৈরি করা হয়েছে।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন