বুধবার | অক্টোবর ২০, ২০২১ | ৫ কার্তিক ১৪২৮

শেষ পাতা

সিনক্রোনাইজড ১০ মিটার ডাইভিং

অলিম্পিকে অপ্রতিদ্বন্দ্বী চীনের মেয়েরা

ক্রীড়া প্রতিবেদক

ঠিক ১৫ বছর বয়স চেং ইউক্সির। তার সতীর্থ ঝ্যাং জিয়াকির বয়সও মাত্র ১৭ বছর। দুই টিনএজ ডাইভার গতকাল টোকিও অলিম্পিকে মেয়েদের ১০ মিটার সিনক্রোনাইজড ডাইভিংয়ে স্বর্ণ জিতে নিয়েছেন।

ইউক্সি জিয়াকি এরই মধ্যে বিশ্বচ্যাম্পিয়ন। এবার তাদের শোকেসে জমা পড়বে অলিম্পিক স্বর্ণপদকও। অলিম্পিকে প্রথম খেলতে এসেই স্বর্ণ জয়ের কৃতিত্ব দেখালেন কিশোরীদ্বয়।

প্রতিযোগিতায় চীনের দুই ডাইভারই সবচেয়ে কম বয়সী। বয়সে ছোট হলেও পারফরম্যান্সে সবাইকে ছাড়িয়ে গেলেন তারা। টোকিও অ্যাকুয়াটিকস সেন্টারে অবিশ্বাস্য যুগলবন্দিতে বাজিমাত করেছেন তারা। দিয়েছেন মোহনীয় কয়েকটি ডাইভ। সব বিচারকের চোখেই তারা প্রথম হয়েছেন।

মেয়েদের ১০ মিটার সিনক্রোনাইজড ডাইভিংয়ে ৩৬৩.৭৮ পয়েন্ট নিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়েছেন চেং ঝ্যাং, যা কিনা রৌপ্যজয়ী যুক্তরাষ্ট্রের জেসিকা পারাত্তো ডেলানি স্নেলের চেয়ে ৫০ পয়েন্টের বেশি। আমেরিকান জুটির স্কোর ৩১০.৮০ পয়েন্ট। মেক্সিকোর গ্যাব্রিয়েলা আগুন্দেজ গার্সিয়া আলেজান্দ্রো ওরোজকো লোজা ২৯৯.৭০ পয়েন্ট নিয়ে ব্রোঞ্জ জয় করেন।

সিনক্রোনাইজড ডাইভিং মানেই চীনের দাপট, চীনের রাজত্ব। চীন ভিন্ন অন্য কেউ চ্যাম্পিয়ন হলে সেটা বড় অঘটনই। ২০০০ সালের সিডনি অলিম্পিকে প্রথম ১০ মিটার সিনক্রোনাইজড ডাইভিং খেলাটি যুক্ত হয়। সেই থেকে আধিপত্য করছে চীন। ২০০০ থেকে চীনের নারীরা ছয় আসরের মধ্যে ছয়বারই চ্যাম্পিয়ন! ছেলেরা মাত্র একবার ব্যর্থ হয়েছে।

চীনের ছেলেরাও আগের পাঁচ আসরে টানা শিরোপা জিতে নেয়ার পর এবার টোকিওতে অল্পের জন্য স্বর্ণবঞ্চিত হয়। এবার পরাশক্তি চীনকে হারিয়ে স্বর্ণ জিতে নেয় ব্রিটেন। অবশ্য চীনের মেয়েরা ইভেন্টে দেশকে হতাশ করেননি।

নারীদের ডাইভিংয়ে হতাশ করেছেন মালয়েশিয়ার লিয়ং মুন লি পামং পান্ডেলেলা জুটি, যারা ২০১৯ সালের ওয়ার্ল্ড চ্যাম্পিয়নশিপ ২০১৬ সালের রিও অলিম্পিকে রৌপ্য জয় করেন। আজ তারা ২৭৭.৯৮ স্কোর নিয়ে ছিলেন তলানিতে। ফাইনালে বাকি দলগুলো হলো কানাডা, জার্মানি, জাপান গ্রেট ব্রিটেন।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন