শুক্রবার | সেপ্টেম্বর ২৪, ২০২১ | ৯ আশ্বিন ১৪২৮

পণ্যবাজার

অপরিশোধিত ইস্পাতের বৈশ্বিক উৎপাদন চাঙ্গা

বণিক বার্তা ডেস্ক

বৈশ্বিক অর্থনীতির ঊর্ধ্বগতি দেশে দেশে অপরিশোধিত ইস্পাত উৎপাদন খাতকে চাঙ্গা করে তুলছে। ক্রমবর্ধমান চাহিদার জেরে ব্যবহারিক ধাতু তৈরি জোরদার হচ্ছে। এরই অংশ হিসেবে চলতি বছরের প্রথম ছয় মাসে ধারাবাহিকভাবে বেড়েছে অপরিশোধিত ইস্পাতের বৈশ্বিক উৎপাদন। সর্বশেষ জুনে ধাতুটির উৎপাদনে গত বছরের একই সময়ের তুলনায় ১২ শতাংশ প্রবৃদ্ধি এসেছে। এছাড়া চলতি বছরের প্রথমার্ধে উৎপাদন আগের বছরের তুলনায় ১৪ শতাংশ বেড়েছে। ওয়ার্ল্ড স্টিল অ্যাসোসিয়েশনের (ডব্লিউএসএ) মাসিক প্রতিবেদনে তথ্য জানানো হয়েছে।

৫০ বছরের বেশি সময় ধরে ইস্পাতের বৈশ্বিক বাজার নিয়ে কাজ করছে ডব্লিউএসএ। সংস্থাটি প্রতি মাসে ইস্পাতের উৎপাদন তথ্য প্রকাশ করে থাকে। প্রতিষ্ঠানটি ৬৪ দেশের উৎপাদন তথ্য বিশ্লেষণের মাধ্যমে প্রতিবেদন তৈরি করে। গত বছর মোট বৈশ্বিক উৎপাদনের প্রায় ৯৮ শতাংশই এসেছে এসব দেশ থেকে। সম্প্রতি চলতি বছরের জুনের বৈশ্বিক উৎপাদন তথ্য প্রকাশ করেছে সংস্থাটি। প্রতিবেদন অনুযায়ী, চলতি বছরের প্রথমার্ধে বিশ্বজুড়ে ১০০ কোটি ৩০ লাখ টন অপরিশোধিত ইস্পাত উৎপাদন হয়েছে। এর মধ্যে শুধু জুনে বিশ্বব্যাপী অপরিশোধিত ইস্পাতের উৎপাদন বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৬ কোটি ৭৯ লাখ টনে, যা গত বছরের তুলনায় ১১ দশমিক শতাংশ বেশি। তবে বিপরীত চিত্র দেখা গেছে ইস্পাতের শীর্ষ উৎপাদক ব্যবহারকারী দেশ চীনে।

অপরিশোধিত ইস্পাতের বৈশ্বিক উৎপাদনের প্রায় ৫৫ শতাংশই আসে চীন থেকে। তবে কার্বন নিঃসরণ হ্রাসের লক্ষ্যে দেশটির সরকার ইস্পাত উৎপাদন সীমিত করেছে। কারণে গত মে মাসের তুলনায় জুনে চীনের ইস্পাত উৎপাদন কমেছে। যদিও গত বছরের একই মাসের তুলনায় উৎপাদনের পরিমাণ ছিল ঊর্ধ্বমুখী।

ডব্লিউএসএর প্রতিবেদনের তথ্য অনুযায়ী, জুনে বিশ্বজুড়ে মোট উৎপাদিত অপরিশোধিত ইস্পাতের অর্ধেকেরও বেশি এসেছে চীন থেকে। সময় দেশটি কোটি ৩৯ লাখ টন ইস্পাত উৎপাদন করে, যা গত বছরের একই মাসের তুলনায় দেড় শতাংশ বেশি। তবে চলতি বছরের মে মাসে দেশটি কোটি ৯৭ লাখ টন ইস্পাত উৎপাদন করেছিল। সে হিসাবে উৎপাদন কমেছে ৫৮ লাখ টন।

ইস্পাতের বৈশ্বিক উৎপাদনে চীনের পরই শীর্ষ স্থানীয় ভারত। জুনে দেশটি সব মিলিয়ে ৯৪ লাখ টন অপরিশোধিত ইস্পাত উৎপাদন করে। গত বছরের জুনের তুলনায় উৎপাদন ২১ শতাংশ বেড়েছে। তৃতীয় শীর্ষ দেশ জাপানের উৎপাদন গত বছরের জুনের তুলনায় ৪৪ শতাংশ বেড়ে ৮১ লাখ টনে উন্নীত হয়েছে। গত মাসে এশিয়া ওশেনিয়া মহাদেশভুক্ত দেশগুলোতে সব মিলিয়ে উৎপাদন হয়েছে ১২ কোটি ২৫ লাখ টন অপরিশোধিত ইস্পাত, যা গত বছরের একই সময়ের তুলনায় দশমিক শতাংশ বেশি।

অন্যদিকে উত্তর আমেরিকার দেশগুলোতে জুনে এক কোটি টন ইস্পাত উৎপাদন হয়েছে। এর মধ্যে যুক্তরাষ্ট্র এককভাবে উৎপাদন করেছে ৭১ লাখ টন, যা গত বছরের একই সময়ের তুলনায় ৪৪ দশমিক শতাংশ বেশি।

প্রতিবেদনে জানা যায়, ইউরোপীয় ইউনিয়নভুক্ত দেশগুলো জুনে কোটি ৩২ লাখ টন অপরিশোধিত ইস্পাত উৎপাদন করেছে। এর মধ্যে রাশিয়া ৬৪ লাখ টন জার্মানি ৩৪ লাখ টন ইস্পাত উৎপাদন করে। তুরস্কের উৎপাদনের পরিমাণও ৩৪ লাখ টন।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন