বৃহস্পতিবার | সেপ্টেম্বর ১৬, ২০২১ | ১ আশ্বিন ১৪২৮

আন্তর্জাতিক ব্যবসা

বৈদ্যুতিক গাড়ি বিক্রির লক্ষ্য দ্বিগুণ করেছে মার্সিডিজ

বণিক বার্তা ডেস্ক

ডেইমলার এজির বিলাসবহুল গাড়ির ব্র্যান্ড মার্সিডিজ বেঞ্জ দ্রুত বৈদ্যুতিক হয়ে ওঠার পরিকল্পনা হাতে নিয়েছে। ২০২৫ সালের মধ্যে আগের পরিকল্পনার তুলনায় সংস্থাটি গাড়ি বিক্রির লক্ষ্যমাত্রা দ্বিগুণ করেছে। এছাড়া চলতি দশকের শেষ নাগাদ পুরোপুরি বৈদ্যুতিক গাড়ি উৎপাদনের জন্য প্রস্তুত হবে মার্সিডিজ। খবর অ্যাসোসিয়েটেড প্রেস।

ডেইমলার এজির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) মার্সিডিজ বেঞ্জ বিভাগের প্রধান ওলা কালেনিয়াস বলেন, আমরা বৈদ্যুতিক যানবাহনে স্থানান্তরের গতি বাড়িয়ে দিচ্ছি। এক্ষেত্রে মার্সিডিজ বেঞ্জসহ বিলাসবহুল বিভাগগুলোকে বেশি গুরুত্ব দেয়া হচ্ছে। দশকের শেষ দিকে বাজারগুলো বৈদ্যুতিক গাড়িতে পরিবর্তিত হওয়ায় আমরা সব ধরনের প্রস্তুতি নিচ্ছি। আমরা আশা করছি, ওই সময়ের মধ্যে বাজারের সঙ্গে খাপ খাইয়ে নিতে আমরা পুরোপুরি প্রস্তুত থাকব।

সংস্থাটি ২০২২ থেকে ২০৮০ সালের মধ্যে ব্যাটারিচালিত যানবাহনগুলোতে হাজার ৭০০ কোটি ডলার বিনিয়োগ করার পরিকল্পনা নিয়েছে। এক্ষেত্রে সংস্থাটি ব্যাটারি সেল উৎপাদনের জন্য আটটি কারখানা স্থাপনে অংশীদারদের সঙ্গে কাজ করতে চায়।

সংস্থাটি জানিয়েছে, ২০২৫ সালের মধ্যে তাদের অর্ধেক বিক্রি ব্যাটারি কিংবা প্লাগ-ইন হাইব্রিড গাড়ি হবে। যেখানে চলতি বছরের প্রথমার্ধে যানবাহন মোট বিক্রির ১০ দশমিক শতাংশ ছিল। বছরের প্রথম ছয় মাসে মার্সিডিজ ৩৯ হাজার ব্যাটারি এবং লাখ ২১ হাজার ৫০০ প্লাগ-ইন হাইব্রিড গাড়ি বিক্রি করেছে।

একটি বিবৃৃতিতে সংস্থাটি বৈদ্যুতিক যানবাহন নিয়ে কৌশল হালনাগাদ করার কথা জানিয়েছে। এক্ষেত্রে সংস্থাটি পুরোপুরি বৈদ্যুতিক হওয়াকে বাজারের পরিস্থিতি হিসেবে দেখিয়েছে। ডিজেল বা পেট্রলচালিত গাড়ি উৎপাদন বন্ধের ক্ষেত্রে একটি নির্দিষ্ট সময়সীমা না জানিয়ে সংস্থাটি প্রস্তুত থাকার কথা জানিয়েছে। সংস্থাটি জানিয়েছে, বাজারের চাহিদা অনুযায়ী তারা চলতি দশকের শেষ দিকে কেবল বৈদ্যুতিক গাড়ি উৎপাদনে যেতে প্রস্তুত।

ইউরোপে বৈদ্যুতিক গাড়ির বাজার ক্রমে বাড়ছে। সরকারি নীতি প্রণোদনার মাধ্যমে প্রচেষ্টাকে ত্বরান্বিত করা হচ্ছে। গত বছর ইউরোপীয় বাজারে বৈদ্যুতিক গাড়ি বিক্রি মোট বিক্রির তুলনায় ১০ দশমিক শতাংশ ছিল।

মার্সিডিজ জানিয়েছে, ২০২৫ সাল থেকে নতুন উন্মোচন করা সব গাড়ি বৈদ্যুতিক হবে। এছাড়া ২০২৯ সালের মধ্যে উৎপাদনে থাকা মডেলগুলোও শূন্য কার্বন নিঃসরণযোগ্য হবে। তবে সংস্থাটি জীবাশ্ম জ্বালানিচালিত গাড়িগুলো বিক্রি বন্ধের কোনো তারিখ নির্দিষ্ট করেনি।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন