রবিবার | জুলাই ২৫, ২০২১ | ১০ শ্রাবণ ১৪২৮

খেলা

টোকিও অলিম্পিকের উদ্বোধন কাল

সমতার বার্তা দেবেন পতাকা বহনকারীরা

ক্রীড়া প্রতিবেদক

অলিম্পিকে অংশ নেবে দুশরও বেশি জাতি। এর মধ্যে অধিকাংশই লৈঙ্গিক সমতা আর জাতিগত ন্যায্যতার প্রতি নিজেদের অবস্থান তুলে ধরবে অলিম্পিকের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে। শুক্রবার বাংলাদেশ সময় বিকাল ৫টায়  টোকিও ন্যাশনাল স্টেডিয়ামে শুরু হবে উদ্বোধনী অনুষ্ঠান। জমকালো উদ্বোধনীর মার্চপাস্টে বেশ কিছু দেশ পতাকা তুলে দিচ্ছে জাতি, বর্ণ, ভাষা নির্বিশেষে যোগ্য অ্যাথলিটদের হাতে। 

ইন্টারন্যাশনাল অলিম্পিক কমিটি (আইওসি) নিয়ম পরিবর্তন করে অংশগ্রহণকারী জাতিগুলোকে আহ্বান জানিয়েছে, তারা যেন মার্চপাস্টে পতাকা বহনের জন্য নারী-পুরুষ দুজনকে নির্বাচন করে।  

এই আহ্বানে সাড়া দিয়েছে ব্রিটেন। প্রথমবারের মতো ব্রিটেনের পতাকা বহনের গৌরব অর্জন করবেন রোয়িংয়ে স্বর্ণজয়ী মোহাম্মদ সিবিহি। তার সঙ্গে থাকবেন নারী সেইলর হান্নাহ মিলস। এ নিয়ে সিবিহি বলেন, টিম গ্রেট ব্রিটেনের পতাকা বহনের আমন্ত্রণ পাওয়াটা আসলে বিরাট সম্মানের ব্যাপার। অলিম্পিক আন্দোলনের মধ্যে এটা আইকনিক এ মুহূর্ত, মানুষ এসব চিত্র মনে রাখে। 

অস্ট্রেলিয়ার সাতারু কেট ক্যাম্পবেলের সঙ্গে পতাকা বহন করবেন প্যাটি মিলস। বাস্কেটবল খেলোয়াড় প্যাটি মিলস যুক্তরাষ্ট্রের এনবিএ লিগের দল সান আন্তোনিও স্পার্সে খেলেন। তিনি অস্ট্রেলিয়ার প্রথম আদিবাসী অ্যাথলিট হিসেবে অলিম্পিকের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে দেশের পতাকা বহন করতে চলেছেন। 

এ নিয়ে মিলস বলেন, এটা একটা পরিচয়ের মুহূর্ত, তুমি কে তা বিশ^কে দেখানোর একটি মঞ্চ। এটি এমনই এক গৌরবের মুহূর্ত যখন তুমি কে তা বিশ^কে জানানোর সুযোগ। আমরা অবশ্যই অস্ট্রেলিয়ান ক্রীড়ায় অনেকদূর এগিয়ে এসেছি এবং এটি বিশেষ মুহূর্ত। 

যুক্তরাষ্ট্র অলিম্পিক দলের প্রতিনিধি হিসেবে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে পতাকা বহন করবেন ৪০ বছর বয়সী বাস্কেটবল খেলোয়াড় সুয়ে বার্ড ও কিউবান-আমেরিকান বেসবল খেলোয়াড় এডি আলভারেজ। ২০১৪ সালের শীতকালীন অলিম্পিকে স্পিডস্কেটিং ইভেন্টে রৌপ্যজয়ী আলভারেজ সম্প্রতি কিউবার অর্থনৈতিক সংকট নিয়ে তৈরি বিক্ষোভের প্রতিও সমর্থন দেন।

নেদারল্যান্ডস অলিম্পিক দলের পতাকা বহন করবেন ৩৬ বছর বয়সী ডাচ স্প্রিন্টার ও কৃষ্ণাঙ্গ অ্যাথলিট চুরান্ডি মার্টিনা এবং ১৬ বছর বয়সী স্কেটবোর্ডার কিট ওল্ডেনবিউভিং। ডাচ অলিম্পিক দলে তারা দুজন জ্যেষ্ঠতম ও কনিষ্ঠতম সদস্য। 

বেলজিয়াম দলেও পতাকা বহনের দায়িত্ব পেয়েছেন দুই ভাষার দুজন। হেপ্টাথলন তারকা নাফি থিয়াম কথা বলেন ফরাসি ভাষায়, আর হকি খেলোয়াড় ফেলিকস ডিনায়ার কথা বলেন ডাচ ভাষায়। 

সুইজারল্যান্ড দলের পতাকা বহনের দায়িত্ব পেয়ে অভিভূত কৃষ্ণাঙ্গ অ্যাথলিট মুজিঙ্গা কামবুন্দজি। সুইস পতাকার এক ইমোজি দিয়ে ইনস্টাগ্রামে এক পোস্টে তিনি লিখেছেন, কি দারুণ সম্মানের। শৈশবে যখন অ্যাথলিট হিসেবে শুরু করি তখন ভাবিনি অলিম্পিকে অংশ নিতে পারব। আজ আমি তৃতীয় অলিম্পিক খেলতে যাচ্ছি এবং পতাকা বহনের এই সম্মান আমার এবারের অলিম্পিকটাকে অন্যগুলোর চেয়ে আলাদা করে তুলবে। 

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন