রবিবার | জুলাই ২৫, ২০২১ | ১০ শ্রাবণ ১৪২৮

পণ্যবাজার

হিলি স্থলবন্দর

৬ মাসে ৩ হাজার ৩৮৩ টন আদা আমদানি

বণিক বার্তা প্রতিনিধি, হিলি

আমদানীকৃত আদা থেকে রাজস্ব এসেছে ২ কোটি ৮৫ লাখ টাকা ছবি: নিজস্ব আলোকচিত্রী

দিনাজপুরের হিলি স্থলবন্দর দিয়ে বেড়েছে মসলাজাতীয় পণ্য আদার আমদানি। বন্দর দিয়ে গত ছয় মাসে ১৮৩টি ট্রাকে হাজার ৩৮৩ টন আদা আমদানি হয়েছে। আমদানীকৃত আদা থেকে রাজস্ব এসেছে কোটি ৮৫ লাখ টাকা। এদিকে ভারত থেকে আদা আমদানি হওয়ায় দেশের বাজারে আদার দাম নিয়ে যে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি হয়েছিল তা কেটে উঠেছে।

বন্দরসংশ্লিষ্টরা জানান, ঈদুল আজহা কেন্দ্র করে দেশের বাজারে আদার চাহিদা আকাশছোঁয়া। ঊর্ধ্বমুখী চাহিদার কথা মাথায় রেখেই আমদানিকারকরা আদার আমদানি বাড়িয়েছেন।

হিলি স্থলবন্দর কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, বন্দর দিয়ে বেশ কিছুদিন ধরেই আদার আমদানি অব্যাহত রয়েছে। চলতি বছরের জানুয়ারিতে বন্দর দিয়ে ৩৩টি ট্রাকে ৫৬৮ টন আদা আমদানি হয়েছে। ফেব্রুয়ারিতে তা কিছুটা কমে ১৫টি ট্রাকে ২৭৩ টনে নেমে আসে। মার্চে আমদানি আবারো বেড়ে ২৩টি ট্রাকে ৪১৯ টনে উন্নীত হয়। এপ্রিলে ৫১টি ট্রাকে ৯৫৩ টন আদা আমদানি হয়েছে। মে মাসে আমদানি কিছুটা কমে ২০টি ট্রাকে ৩৭৬ টনে নেমে যায়। জুনে আমদানি দ্বিগুণ বেড়ে ৪১টি ট্রাকে ৭৭৯ টনে পৌঁছায়। চলতি জুলাইয়ে বন্দর দিয়ে আদার আমদানি আরো বেড়েছে। ১১ কর্মদিবসে বন্দর দিয়ে ৩৪টি ট্রাকে ৬৫৮ টন আদা আমদানি হয়েছে।

হিলি বাজারের কাঁচাপণ্য বিক্রেতা শাকিল খান বলেন, বাজারে দেশীয় আদার সরবরাহ কমে গিয়েছিল। ফলে পণ্যটির বাজারদর কেজিপ্রতি ১২০-১৩০ টাকা পর্যন্ত ওঠে। তবে ভারত থেকে আদা আমদানি বৃদ্ধি পাওয়ায় সরবরাহ বেড়েছে। আমরা বন্দর থেকে ৬০ টাকা কেজি দরে আদা ক্রয় করে তা খুচরা বাজারে ৮০ টাকা কেজি দরে বিক্রি করছি। বন্দর দিয়ে যে পরিমাণ আদা আমদানি হচ্ছে তাতে করে আদার দাম বাড়বে না।

হিলি স্থলবন্দরের সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট নূরে আলম সিদ্দিক সোহেল রানা বলেন, বন্দর দিয়ে চলতি বছরের জানুয়ারি থেকেই আদা আমদানি অব্যাহত রয়েছে। ঈদুল আজহার কারণে দেশের বাজারে মসলাজাতীয় পণ্যটির ব্যাপক চাহিদা তৈরি হয়েছে। একই সঙ্গে দেশীয় আদার সরবরাহ কম থাকায় দাম বেড়ে যাওয়ায় বন্দর দিয়ে আমদানি বৃদ্ধি পেয়েছে।

ভারতের আসাম প্রদেশ থেকে এসব আদা আমদানি হচ্ছে। প্রতি টন আদা প্রকারভেদে ৪০০-৫০০ মার্কিন ডলার মূল্যে আমদানি করা হচ্ছে। আর কাস্টমসে প্রতি টন আদা ৯৫০ মার্কিন ডলার মূল্যে শুল্কায়ন করে ছাড়া হচ্ছে।

হিলি স্থলবন্দরের জনসংযোগ কর্মকর্তা সোহরাব হোসেন বলেন, হিলি স্থলবন্দর দিয়ে অন্যান্য পণ্যের মতো বেশ কিছুদিন ধরেই আদা আমদানি অব্যাহত রয়েছে। তবে আগে বন্দর দিয়ে প্রতিদিন দুই থেকে তিন ট্রাক আদা আমদানি হলেও বর্তমানে তা বেড়ে পাঁচ থেকে সাত ট্রাকে উন্নীত হয়েছে। বন্দর দিয়ে গত জানুয়ারি থেকে জুন পর্যন্ত ১৮৩টি ট্রাকে হাজার ৩৮৩ টন আদা আমদানি হয়েছে। চলতি জুলাইয়ের ১১ কর্মদিবসে ৩৪টি ট্রাকে ৬৫৮ টন আদা আমদানি হয়েছে। আমদানি বাড়ায় সরকারের রাজস্ব আহরণ যেমন বেড়েছে তেমনি বন্দরের দৈনন্দিন আয়ও বেড়েছে।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন