রবিবার | জুলাই ২৫, ২০২১ | ১০ শ্রাবণ ১৪২৮

টকিজ

নারী পরিচালকের পরিচিতি চান না স্বর্ণপামজয়ী জুলিয়া

ফিচার ডেস্ক

নাটকীয়তার মধ্য দিয়ে শেষ হয়েছে ২০২১ সালের কান চলচ্চিত্র উৎসব। সময়ের আগেই গুলি ছুড়ে ফেলেছিলেন জুরি বোর্ডের প্রেসিডেন্ট স্পাইক লি। উপস্থাপকের সঙ্গে ভুল বোঝাবুঝিতে অনুষ্ঠানের শুরুর দিকেই ঘোষণা করে ফেলেন উৎসবের সর্বোচ্চ সম্মাননা পাম ডিওর বিজয়ী ছবির নাম। ফরাসি নারী পরিচালক জুলিয়া দুকরনুর ছবি টিটান জিতেছে বছরের স্বর্ণপাম। লির ঘোষণার পর পরই মঞ্চে উপস্থিত উপস্থাপক অন্যরা কোনোমতে পরিস্থিতি সামাল দেন। নিশ্চিত হতে না পেরে জুলিয়াও আর মঞ্চে ওঠেননি। যা হোক, উৎসবের ৭৪ বছরের ইতিহাসে দ্বিতীয় নারী পরিচালক হিসেবে কানের সর্বোচ্চ সম্মান পেলেন। এর আগে ১৯৯৩ সালে জেন ক্যাম্পিয়নের দ্য পিয়ানো ছবিটি স্বর্ণপাম জিতেছিল। অনুষ্ঠানের শেষ অংশে যখন কানের বিভিন্ন বিভাগের বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করা হয় তখন লি তার ভুলের জন্য দুঃখপ্রকাশ করেন। জুলিয়ার হাতে স্বর্ণপাম তুলে দেন শ্যারন স্টোন।

স্বাভাবিকভাবেই বিশ্বজুড়ে চলচ্চিত্র সমালোচক, দর্শকদের আকর্ষণের কেন্দ্রে এখন জুলিয়া দুকরনুর। যেকোনো উৎসবে সহিংসতা, যৌনতা, গা হিম করা ত্রাসে ভরা ছবির পরিচালক সাধারণত পুরুষ পরিচালকরাই হন। কিন্তু এবারের কান উৎসবে সে রীতি পাল্টে দিয়েছিলেন জুলিয়া। তার টিটানের কেন্দ্রীয় চরিত্র অ্যালেক্সিয়া একদিকে নাচিয়ে, অন্যদিকে সহিংস এক সিরিয়াল কিলার। সমালোচক হন কিংবা দর্শক, ছবিটি দেখার পর সবাই মানসিক ধাক্কায় কিছুক্ষণের জন্য থেমে যাবেন। এরপর ধীরে সুস্থে খুঁজতে শুরু করবেন নানা প্রশ্নের উত্তর। ছবিতে আছে জেন্ডার নিয়ে নতুন ধরনের অনুসন্ধান। সব মিলিয়ে জুরি বোর্ডকে সিদ্ধান্ত নিতে হয়তো বেগ পেতে হয়নি।

কান উৎসব চলাকালেই ইনডিওয়্যারকে সাক্ষাত্কার দিয়েছিলেন জুলিয়া। অবশ্য সেখানে তার ছবিতে জেন্ডারের ধারণা নিয়ে প্রশ্ন করায় তিনি বলেন, ছবি বানানোর সময় তিনি সে রকম কিছু মাথায় নিয়ে কাজ করেন না। জেন্ডার ফ্লুইডিটির ধারণা তার ছবিতে দেখা যায় কিন্তু এটা দেখানোর জন্য তিনি ছবি নির্মাণ করেন না। তিনি সে আলাপে বলেন, আমি মনে করি লিঙ্গ কারো পরিচয়ের জন্য জরুরি বিষয় নয়। আমি মনে করি না যে জেন্ডার আমাদের পরিচয় নির্ধারণ করে। সবাইকে বলি, একজন নারী হিসেবে আমি চাই না যে জেন্ডার আমার পরিচয় ঠিক করে দিক। সবাই যখন বলেন, আমি একজন নারী পরিচালক, সেটা আমার জন্য বিরক্তিকর। কারণ আমি একজন ব্যক্তি, একজন পরিচালক।

এবার গ্র্যান্ড প্রিঁ পেয়েছে দুটো ছবিঅস্কারজীয় ইরানি পরিচালক আসগর ফরহাদির হিরো এবং জুহো কুসমানেনের কম্পার্টমেন্ট নম্বর সিক্স। ২০১৬ সালে জুহোর প্রথম ছবি দ্য হ্যাপিয়েস্ট ডে ইন দ্য লাইফ অব ওলি মাকি জিতে নিয়েছিল আঁ সার্তে রিগা বিভাগের পুরস্কার।

জাস্টিন কার্জেলের নিট্রাম ছবিতে অভিনয় করে সেরা অভিনেতা হয়েছেন কেলেব ল্যান্ড্রি। সেরা অভিনেত্রী দ্য ওর্স্ট পারসন ইন দ্য ওয়ার্ল্ড ছবির জন্য নরওয়েজিয়ান রিনাতে রাইনসভে। সেরা পরিচালক হয়েছেন লিওস ক্যারেক্স, তার মিউজিকাল ড্রামা অ্যানেটের জন্য।

ক্যামেরা ডিওর সম্মান জিতেছে ক্রোয়েশিয়ান পরিচালক অ্যান্টোনিটা অ্যালামাট কুসিজানোভিকের মুরিনা। অবশ্য একদিন আগেই সন্তানের জন্ম দেয়ায় পুরস্কার নিতে হাজির হতে পারেননি তিনি। জুরি প্রাইজ জিতেছেন দুজনআহেড নির জন্য জুরি প্রাইজ পেয়েছেন নাডাব লাপিড এবং অ্যাপিচাটপুং উইহাসিতাকুলোর মেমোরিয়া ছবির জন্য। ড্রাইভ মাই কারের জন্য সেরা চিত্রনাট্যকার হয়েছেন জাপানি পরিচালক রিয়াসুকে হামাগুচি। বিখ্যাত ঔপন্যাসিক হারুকি মুরাকামির লেখা থেকে চিত্রনাট্য তৈরি করে সম্মান জিতলেন হামাগুচি। সম্মানসূচক স্বর্ণপাম পেয়েছেন মার্কো বিলোকিও।

 

সূত্র: ভ্যারাইটি ইন্ডিওয়্যার

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন