রবিবার | জুলাই ২৫, ২০২১ | ১০ শ্রাবণ ১৪২৮

টকিজ

রুপালি পর্দায় প্রিয়মনির অভিষেক

ফিচার প্রতিবেদক

ঢাকাই চলচ্চিত্রে অভিষেক হলো প্রিয়মনির

বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার সময়ে মডেলিংয়ের সঙ্গে সম্পৃক্ত হন প্রিয়মনি। মডেলিংয়ের সূত্র ধরে গিয়েছিলেন একটি টিভি চ্যানেলে। লম্বা, সুন্দরী, শিক্ষিতা, নাচে পারদর্শী প্রিয়মনিকে দেখে প্রস্তাব দেন সিনেমায় অভিনয়ের। এভাবেই নাম লেখান রাজু আলীম পরিচালিত ভালোবাসার প্রজাপতি সিনেমায়। ভালোবাসার প্রজাপতি তার অভিনীত প্রথম সিনেমা হলেও বড় পর্দায় প্রথম মুক্তি পেল কসাই। শুক্রবার স্টার সিনেপ্লেক্সে মুক্তির মধ্য দিয়ে ঢাকাই চলচ্চিত্রে অভিষেক হলো প্রিয়মনি নামের নতুন এক নায়িকার।

কসাই সিনেমায় তিনি জুটি বেঁধেছেন নায়ক নিরবের সঙ্গে। যদিও অনন্য মামুন পরিচালিত সিনেমাটি ওটিটি প্লাটফর্মে মুক্তি পেয়েছিল আগেই। ওটিটিতে মুক্তির সুবাদে প্রিয়মনি চলে আসেন আলোচনায়। আর অপেক্ষায় দিন গুনতে থাকেন বড় পর্দায় নিজেকে দেখার।

সিনেমাটি কবে দেখবেন জানতে চাইলে বণিক বার্তাকে বলেন, আমি অধির আগ্রহে অপেক্ষা করছি। খুবই উচ্ছ্বসিত আমি। খুব ইচ্ছা ছিল আমার সিনেমা হলে মুক্তির প্রথম শোটাই দেখব। কিন্তু সিনেমা মুক্তির সিদ্ধান্ত হঠাৎ করে নেয়া হয়েছে। আর কাছের মানুষ আবদার করেছে তাদের নিয়ে যেন সিনেমাটা দেখতে যাই। তাই প্রথম দিন হলে যেতে পারিনি। দ্বিতীয় কিংবা তৃতীয় দিন সবাই মিলে হলে গিয়ে নিজের সিনেমা নিজে দেখব।

তবে প্রিয়মনি চেয়েছিলেন তার অভিনীত প্রথম সিনেমা ভালোবাসার প্রজাপতি আগে মুক্তি পাক। কেননা এটা দিয়েই তার ক্যামেরার সামনে দাঁড়ানো। ছবিতে তার চরিত্রটাও মডেলের। অনেকেই বলেছেন তার হাইট নাকি মডেলের সঙ্গে খুব যায়। মডেল হিসেবে কেমন লাগে সেটাই বড় পর্দায় দেখার আগ্রহ বাড়িয়ে দিয়েছে।

ভালোবাসার প্রজাপতি নিয়ে প্রিয়মনি বলেন, সিনেমার শুটিং প্রায় শেষ। দুটি গানের শুটিং দেশের বাইরে হবে। এখন তো মহামারীর কারণে বাইরে যাওয়া সম্ভব না। এজন্যই আটকে আছে।

তবে প্রথম অভিনীত সিনেমা আর প্রথম মুক্তিপ্রাপ্ত সিনেমা আলাদা হলেও এটাকে ইতিবাচকভাবে দেখছেন তিনি। বণিক বার্তাকে বলেন, শুধু আমাদের দেশেই না। বলিউডেও অনেক তারকা আছেন, যাদের প্রথম অভিনীত সিনেমা আর প্রথম মুক্তিপ্রাপ্ত সিনেমা এক না। আমার ক্ষেত্রেও এমন হলো। বিষয়টা ভালো লাগার।

প্রিয়মনির বাড়ি রাজবাড়ী জেলার পাংশা থানায়। এইচএসসি পর্যন্ত পাংশায় পড়াশোনা করেছেন। তার আগে ঢাকা তো দূরে থাক, রাজবাড়ীতেও খুব একটা যাওয়া হয়নি তার। বিষয়ে নবাগত নায়িকা বলেন, এইচএসসির আগ পর্যন্ত পড়াশোনা ছাড়া আর কিছুই ছিল না জীবনে। প্রথম ঢাকা আসি ভার্সিটিতে ভর্তি পরীক্ষা দিতে। জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে টিকে যাই। সেই থেকে ঢাকায়। তারপর মডেলিং আপনাদের দোয়ায় সিনেমায়।

নিজেকে নায়িকা হিসেবে নয়, অভিনেত্রী হিসেবে দেখতে চান প্রিয়মনি। কসাই সিনেমা প্রসঙ্গে বলেন, ছবিতে আমার নায়ক হিসেবে আছেন নিরব ভাই। তিনি পরিচালক অনন্য মামুন ভাইসহ সবার প্রতি আমি কৃতজ্ঞ। খুব চমত্কার একটি পরিবেশে আমাকে সুন্দর একটি চরিত্রে কাজের সুযোগ দিয়েছেন। সব অভিনেত্রীরই স্বপ্ন থাকে হলে সিনেমা মুক্তি পাবে। আমার সেই স্বপ্ন সত্যি হতে যাচ্ছে। আনন্দ ভাষায় প্রকাশ করার মতো নয়।

পরিচালক জানিয়েছেন, গত ঈদুল ফিতরে কসাই ছবিটি ওটিটি প্লাটফর্ম আই থিয়েটারে মুক্তি পায়। করোনার কারণে সে সময় সিনেমা হলে মুক্তি দিতে পারেননি। এবার সে প্রতীক্ষার অবসান হচ্ছে। ঈদুল আজহাকে সামনে রেখে সিনপ্লেক্সে মুক্তি পাচ্ছে ছবিটি।

বড় পর্দায় ছবি দেখার আহ্বান জানিয়ে প্রিয়মনি বলেন, আমি বিশ্বাস করি দর্শকরা ছবিটি দেখে হতাশ হবেন না। ওটিটিতেও দর্শকরা ছবিটি দেখে প্রশংসায় ভাসিয়েছেন। আর বড় পর্দায় ছবি দেখার মজাই আলাদা। সবাইকে সিনেমা হলে কসাই দেখার আমন্ত্রণ জানাই।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন