রবিবার | মে ০৯, ২০২১ | ২৬ বৈশাখ ১৪২৮

টকিজ

অ্যাকাউন্ট হারিয়ে টুইটারে ট্রেন্ডিং কঙ্গনা

ফিচার ডেস্ক

ভারতের বিধানসভা নির্বাচনে পশ্চিমবঙ্গে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের তৃণমূল কংগ্রেসের কাছে হেরেছে কেন্দ্রে ক্ষমতায় থাকা বিজেপি। আর এতে ক্ষুব্ধ হয়েছেন বিজেপি ঘেঁষা বলিউড অভিনেত্রী। এরপর তিনি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, বাংলাদেশ ধর্মীয় ইস্যুকে টেনে এনে তার টুইটার অ্যাকাউন্টে একের পর এক পোস্ট দিতে থাকেন। ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির কাছে আহ্বান জানান মমতাকে থামানোর জন্য।

সর্বশেষ কঙ্গনা পোস্ট দিয়েছিলেন পশ্চিমবঙ্গের ধর্ষিতা এক নারীর ছবি। ছবি পোস্টের পর সমালোচনার মুখে পড়েন তিনি। তার বিরুদ্ধে ক্রমাগত বিতর্ক বিদ্বেষ ছড়ানোর অভিযোগ ওঠে এবং অভিযোগে কঙ্গনার টুইটার অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দিয়েছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমটি।

টুইটারের মুখপাত্র জানান, ওই অ্যাকাউন্টটি বরাবরই আমাদের পলিসির বিরুদ্ধে যাচ্ছিল। বিশেষ করে বিদ্বেষ ছড়ানো নিয়ে যে পলিসি সেটা মানা হচ্ছিল না মোটেও।

কঙ্গনার টুইটার অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দেয়ার খবর বাজারে চাউর হতেই তিনি হয়ে ওঠেন ভারতের টুইটার দুনিয়ার ট্রেন্ডিং। অন্যদিকে কয়েকদিন আগে কঙ্গনা একটি টুইটে লাইক দিয়েছিলেন, যেখানে বলিউডের অভিনেতা সনু সুদকে প্রতারক বলে আখ্যা দেয়া হয়।

নিজের টুইটার অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দেয়ার পরিপ্রেক্ষিতে কঙ্গনা ভারতীয় সংবাদ সংস্থা এএনআইকে বলেন, অনেক প্লাটফর্ম আছে। সেখানে আমি আওয়াজ তুলব। সঙ্গে থাকবে আমার সিনেমা। তিনি টুইটারকে বর্ণবাদী বলেও সমালোচনা করেছেন।

 

সূত্র: পিংকভিলা

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন