শুক্রবার | মে ০৭, ২০২১ | ২৩ বৈশাখ ১৪২৮

শিল্প বাণিজ্য

প্রাণিজ আমিষের নিশ্চয়তায় কাজ করছে ৭২০টি ভ্রাম্যমাণ বিক্রয় কেন্দ্র

নিজস্ব প্রতিবেদক

করোনা সংকটে দেশের জনগণের পুষ্টি চাহিদা পূরণ ও রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধির জন্য প্রাণিজ আমিষের সরবরাহ অত্যন্ত জরুরি বলে মনে করছে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়। প্রাণিজ আমিষের নিশ্চিতায় দেশের ৬৪ জেলায় ৭২০টি ভ্রাম্যমাণ বিক্রয় কেন্দ্র কাজ করছে বলেও মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে জানানো হয়। 

আজ সোমবার মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব জনানো হয়।

 বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, করোনা পরিস্থিতিতে সরকার ঘোষিত বিধিনিষেধের মধ্যেও মৎস্য ও প্রাণিসম্পদের উৎপাদন, পরিবহণ, সরবরাহ ও বিপণন অব্যাহত রয়েছে। এ লক্ষ্যে মন্ত্রণালয় ও আওতাধীন দপ্তরের মাঠ পর্যায়ের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা সার্বক্ষণিক উপস্থিত থেকে কার্যক্রম পরিচালনা করছেন। 

এতে বলা হয়, মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনায় অধিদপ্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা রাজধানী ঢাকাসহ সারাদেশে ন্যায্যমূল্যে মাছ, মাংস, দুধ, ডিম ও দুগ্ধজাত পণ্যের ভ্রাম্যমাণ বিক্রয় কার্যক্রম বাস্তবায়ন করছেন। এতে একদিকে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ খাতের খামারিরা যেমন ন্যায্যমূল্যে উৎপাদিত পণ্য সহজে বিক্রি করতে পারছেন, অন্যদিকে ভোক্তারা চলমান বিধিনিষেধের মধ্যেও তাদের প্রাণিজ আমিষের চাহিদা পূরণ করতে পারছেন।

মন্ত্রণালয় জানায়, করোনায় চলমান বিধিনিষেধের মধ্যে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ খাতের উৎপাদন, পরিবহণ, সরবরাহ ও বিপণনজনিত সমস্যা সমাধান ও সারাদেশে ভ্রাম্যমাণ বিক্রয় কার্যক্রম সমন্বয়ের জন্য অধিদপ্তর দুটোতে আলাদা দুটি কন্ট্রোলরুম কাজ করছে। 

এর পাশাপাশি মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম এই কার্যক্রমের নিয়মিত তদারকি ও দিক-নির্দেশনা প্রদান করছেন।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন