শনিবার | মে ০৮, ২০২১ | ২৫ বৈশাখ ১৪২৮

টকিজ

বছরের প্রথম প্রান্তিকে এইচবিও ম্যাক্সে যুক্ত হয়েছে ৩০ লাখ সাবস্ক্রাইবার

ফিচার ডেস্ক

বছরের প্রথম প্রান্তিকে স্ট্রিমিং প্লাটফর্ম এইচবিও ম্যাক্সের প্রবৃদ্ধি অব্যাহত আছে। সময়ে গডজিলা ভার্সেস কং জ্যাক স্নাইডার জাস্টিস লিগ তাদের সাফল্যে বড় ভূমিকা রেখেছে।

২০২১-এর প্রথম তিন মাসে প্রায় ৩০ লাখ নতুন সাবস্ক্রাইবার পেয়েছে এইচবিও ম্যাক্স। গত বছর ডিসেম্বরে ওয়ান্ডার উইম্যান নাইন্টিন এইটিফোর ছবির সূত্রেও বেশ ভালো উল্লম্ফন হয়েছিল স্ট্রিমিং প্লাটফর্মটির।

২০২০ সালের শেষে এইচবিও ম্যাক্সের সাবস্ক্রাইবার ছিল কোটি ১৫ লাখ আর বছর মার্চের শেষে তা বেড়ে দাঁড়িয়েছে কোটি ৪২ লাখে। এইচবিও ম্যাক্সের স্বত্বাধিকারী প্রতিষ্ঠান এটিঅ্যান্ডটির সিইও জন স্ট্যানকি প্রসঙ্গে বলেছেন, এইচবিও ম্যাক্স সাবস্ক্রাইবার রাজস্ব সংগ্রহে সাফল্য দেখাচ্ছে এবং জুনে আমাদের আরো ভালো কিছু কন্টেন্ট মুক্তি পাবে।

ওয়াল স্ট্রিটের অনুমান ছিল, এইচবিও ম্যাক্সের রেভিনিউ দাঁড়াবে ৪২ দশমিক বিলিয়ন মার্কিন ডলারে। কিন্তু বাস্তবে তা হয়েছে  ৪৩ দশমিক বিলিয়ন মার্কিন ডলার।

ডিজনি প্লাসের তুলনায় এইচবিও ম্যাক্সের সাবস্ক্রাইবার সংখ্যার এখনো বেশ কম। ডিজনির সাবস্ক্রাইবার সংখ্যা এখন ১০ কোটির বেশি। তবে এটিঅ্যান্ডটি তাদের বিশ্লেষণ থেকে দেখাচ্ছে, ২০২১-এর প্রথম প্রান্তিকে সাবস্ক্রাইবারপ্রতি এইচবিও ম্যাক্সের আয় ছিল ১১ দশমিক ৭২ মার্কিন ডলার। অন্যদিকে ডিজনি প্লাসের ক্ষেত্রে তা দশমিক শূন্য ডলার।

এইচবিও ম্যাক্সের সাফল্য ওয়ার্নার মিডিয়াকেও তাদের উদ্যোগ প্রসারিত করতে প্রেরণা দিয়েছে। এটিঅ্যান্ডটি ২০২৫ সাল নাগাদ ১২ থেকে ১৫ কোটি সাবস্ক্রাইবার তৈরির আশা করছে। আগে তাদের লক্ষ্যমাত্রা ছিল সাড়ে সাত থেকে নয় কোটি। একই সঙ্গে সামনের পাঁচ বছরে তাদের আয়ও বাড়বে কয়েক গুণ।

বছর যুক্তরাষ্ট্রের বাইরে নতুন ৬০টি স্থানের বাজারে প্রবেশ করতে চায় তারা। এর মধ্যে জুনের শেষে লাতিন আমেরিকা ক্যারিবীয় অঞ্চলে ৩৯টি স্থানে বছরের দ্বিতীয়ার্ধে ইউরোপের ২১টি স্থানে।

কভিড মহামারীর যে পরিস্থিতি তাতে বিশ্বে সিনেমা হলের বাজার যে শিগগিরই পুনরুদ্ধার হচ্ছে না তা নিশ্চিত। এমন পরিস্থিতিতে ওয়ার্নার ব্রসের বড় ছবিগুলো হয়তো হলের চেয়ে এইচবিও ম্যাক্সের স্ট্রিমিং সাইটেই বেশি দর্শক দেখবে।

 

সূত্র: ভ্যারাইটি

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন