শুক্রবার | মে ০৭, ২০২১ | ২৩ বৈশাখ ১৪২৮

প্রথম পাতা

একদিনে মৃত্যুর রেকর্ড নতুন উচ্চতায়

নিজস্ব প্রতিবেদক

কয়েকদিন ধরে নভেল করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হয়ে দৈনিক মৃত্যুর সংখ্যাটি আগের দিনের সংখ্যাকে ছাড়িয়ে যাচ্ছে। দৈনিক মৃত্যুতে প্রায় প্রতিদিনই হচ্ছে নতুন রেকর্ড। আর এসব রেকর্ডে ভর করে দীর্ঘ হচ্ছে মৃত্যুর মিছিল। গতকালও করোনায় সর্বোচ্চ মৃত্যুর দিন পার করল বাংলাদেশ। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তথ্য বলছে, শেষ ২৪ ঘণ্টায় কভিডে আক্রান্ত হয়ে ১১২ জন মারা গেছেন। একই সময়ে নতুন করে শনাক্ত হয়েছে হাজার ২৭১ জন।

গতকাল ১১২ জনসহ দেশে কভিড-১৯- ১০ হাজার ৪৯৭ জনের মৃত্যু হলো। আর শেষ ২৪ ঘণ্টায় হাজার ৩৬৪ জনসহ এখন পর্যন্ত সুস্থ হয়েছে লাখ ২১ হাজার ৩০০ রোগী। শনাক্ত বিবেচনায় মৃত্যুহার দশমিক ৪৫ শতাংশ আর সুস্থতার হার ৮৫ দশমিক ৯১ শতাংশ।

গতকাল মারা যাওয়া ১১২ জন করোনা রোগীর মধ্যে ৭৫ জন পুরুষ ৩৭ জন নারী। তাদের মধ্যে ১০৮ জন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায়, তিনজন বাড়িতে এবং একজন হাসপাতালে নেয়ার পথে মারা যান। বয়স বিবেচনায় তাদের মধ্যে ৬৪ জন ষাটোর্ধ্ব ছিলেন। বাকিদের মধ্যে ২৬ জনের বয়স ৫১-৬০ বছর, ১২ জনের ৪১-৫০ এবং ১০ জনের ৩১-৪০ বছরের মধ্যে ছিল। বিভাগভিত্তিক হিসাবে মৃতদের ৭১ জন ঢাকা বিভাগের বাসিন্দা ছিলেন। বাকিদের মধ্যে ১৯ জন চট্টগ্রাম বিভাগের, ১০ জন খুলনা, পাঁচজন রাজশাহী, তিনজন সিলেট, দুজন রংপুর একজন ময়মনসিংহ বিভাগের বাসিন্দা ছিলেন।  

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর জানিয়েছে, ২৪ হাজার ১৫২টি নমুনা পরীক্ষা করা হয় সর্বশেষ ২৪ ঘণ্টায়। শনাক্তের হার ১৭ দশমিক ৬৮ শতাংশ। দেশে এখন পর্যন্ত করোনাভাইরাসের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ৫১ লাখ ৯৪ হাজার ২১৯টি। পরীক্ষায় আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত হয়েছে লাখ ২৩ হাজার ২২১ জন। মোট শনাক্তের হার ১৩ দশমিক ৯২ শতাংশ।

যুক্তরাষ্ট্রের জনস হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের তথ্য বলছে, করোনাভাইরাসে গতকাল পর্যন্ত বিশ্বে ১৪ কোটি ১৪ লাখের বেশি মানুষ আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত হয়েছে। আক্রান্ত মৃত্যুতে শীর্ষে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। এরপর ভারত ব্রাজিলের অবস্থান। গতকাল পর্যন্ত বাংলাদেশ তালিকায় ৩৩ নম্বরে অবস্থান করছিল।

বাংলাদেশে গত বছরের জুনে সর্বোচ্চ মৃত্যুর সংখ্যা রেকর্ড করা হয়েছিল। এবার এপ্রিল নাগাদই সে সংখ্যা প্রায় ৫০ শতাংশ বেড়েছে।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তথ্য বলছে, করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে বাংলাদেশে মৃতের সংখ্যা নয় হাজার ছাড়ায় ৩১ মার্চ। আট হাজার থেকে মৃত্যু নয় হাজার ছাড়াতে সময় লেগেছিল ৬৭ দিন। আর সর্বশেষ এক হাজার মানুষের মৃত্যু হয়েছে মাত্র ১৫ দিনের ব্যবধানে। দেশে চলমান মহামারীতে এটিই দ্রুত সময়ে এক হাজার মৃত্যুর রেকর্ড। এর আগে এক হাজার মৃত্যুতে সবচেয়ে কম সময় ছিল ২৩ দিন। সর্বশেষ ২৪ ঘণ্টায় দেশে হাজার ৪১৭ জনের শরীরে প্রাণঘাতী ভাইরাসটির সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন