শনিবার | মে ০৮, ২০২১ | ২৫ বৈশাখ ১৪২৮

শেষ পাতা

রেকর্ড ভেঙে একদিনে ৭৭ জনের মৃত্যু

নিজস্ব প্রতিবেদক

দেশে নভেল করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু সংখ্যার রেকর্ড এখন প্রায় প্রতিদিনই ভাঙছে। গতকালও প্রাণঘাতী ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হয়ে ৭৭ জনের মৃত্যু হয়েছে, যা পর্যন্ত দৈনিক হিসেবে সর্বোচ্চ। এর আগে এপ্রিল কভিড-১৯ রোগে মারা যায় ৭৪ জন। মাত্র দুদিনের ব্যবধানে আবার ভাঙল মৃতের সংখ্যার রেকর্ড। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়েছে।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরে দেয়া তথ্য অনুযায়ী, সপ্তাহের ব্যবধানে মৃত্যু বেড়েছে ৩০ শতাংশ শনাক্ত বেড়েছে ২৬ শতাংশ। এপ্রিল থেকে গতকাল পর্যন্ত সাতদিনে দেশে ৪৮ হাজার ৬৬০ জনের শরীরে কভিড-১৯ রোগ শনাক্ত করা হয়। সময়ের মধ্যে ৪৪৮ জনের মৃত্যু হয়েছে, যা আগের সপ্তাহের চেয়ে ৩০ শতাংশ বেশি। অবশ্য সপ্তাহের ব্যবধানে নমুনা পরীক্ষার সংখ্যা বেড়েছে মাত্র ১৯ শতাংশ।

গতকাল সকাল ৮টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় সারা দেশের ২৪৩ পরীক্ষাগারে ২৬ হাজার ৭৭টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এতে হাজার ৩৪৩ জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে। পর্যন্ত সরকারি বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় ৪৯ লাখ ৭৩ হাজার ৪৮৯টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। গতকাল করোনায় আক্রান্তদের নিয়ে মোট কভিড-১৯ পজিটিভ রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে লাখ ৭৮ হাজার ৯৩৭। মোট মৃত্যু হয়েছে হাজার ৬৬১ জন করোনা রোগীর।

গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা পরীক্ষার সংখ্যা বিবেচনায় শনাক্তের হার ছিল ২০ দশমিক ৪৯ শতাংশ। আর মোট নমুনা পরীক্ষা বিবেচনায় শনাক্তের হার দাঁড়িয়েছে ১৩ দশমিক ৬৫ শতাংশ। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৮৪ দশমিক ৩০ শতাংশ মৃত্যুহার দশমিক ৪২ শতাংশ।

গতকাল মারা যাওয়া ৭৭ জনের মধ্যে ৫৩ জন পুরুষ ২৪ জন নারী। তাদের প্রত্যেকেই হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছে। বয়স বিবেচনায় তাদের মধ্যে ৪৪ জন ষাটোর্ধ্ব ছিলেন। বাকিদের মধ্যে ২২ জনের বয়স ৫১ থেকে ৬০ বছর, পাঁচজনের বয়স ৪১ থেকে ৫০, দুজনের বয়স ৩১ থেকে ৪০, তিনজনের বয়স ২১ থেকে ৩০ একজনের বয়স ১১ থেকে ২০ বছরের মধ্যে ছিল।

২০১৯ সালের ৩১ ডিসেম্বর চীনের উহানে করোনাভাইরাসের প্রথম সংক্রমণ শনাক্তের কথা জানায় বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) চীন কার্যালয়। এরপর দ্রুত ভাইরাসটি বিশ্বের বিভিন্ন দেশে ছড়িয়ে পড়ে। মাত্র দুই মাসের ব্যবধানে শতাধিক দেশে সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়লে গত বছরের ১১ মার্চ করোনাকে বৈশ্বিক মহামারী ঘোষণা করে ডব্লিউএইচও। বাংলাদেশে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ শনাক্ত হয় গত বছরের মার্চ। এর ১০ দিন পর প্রথম মৃত্যুর খবর দেয় সরকার। যুক্তরাষ্ট্রের জনস হপকিন্স ইউনিভার্সিটির তালিকায় বিশ্বে শনাক্তের দিক থেকে ৩৩তম স্থানে আছে বাংলাদেশ এবং মৃতের সংখ্যায় রয়েছে ৩৯তম অবস্থানে।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন