সোমবার | এপ্রিল ১৯, ২০২১ | ৫ বৈশাখ ১৪২৮

খবর

ব্যবসায়ীদের সঙ্গে প্রাক-বাজেট আলোচনা

অভ্যন্তরীণ অর্থনীতি সমৃদ্ধ করাই মূল চ্যালেঞ্জ: অর্থমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক

অভ্যন্তরীণ অর্থনীতি বিকশিত হলে আমাদের রেভিনিউ জেনারেশন সহজলভ্য হবে অন্যদিকে কর্মসংস্থান নিশ্চিত হবে। ফলে অভ্যন্তরীণ অর্থনীতি সমৃদ্ধ করাই আগামী বাজেটের মূল চ্যালেঞ্জ হবে। দেশের সব মানুষ মূল্যবান সম্পদ। প্রত্যেক মানুষের জীবন-জীবিকা যাতে ব্যাহত না হয়, সেজন্যই আমরা প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে কাজ করছি।

গতকাল ব্যবসায়ীদের সঙ্গে ভার্চুয়ালি প্রাক-বাজেট আলোচনা শেষে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন অর্থমন্ত্রী মুস্তফা কামাল।

অর্থমন্ত্রী বলেন, চলমান করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে দেশের অভ্যন্তরীণ অর্থনীতিকে সমৃদ্ধ করাই আগামী বাজেটের প্রধান লক্ষ্য। আমরা কাজগুলো করতে পারলে সবার হা-হুতাশ কমে যাবে, সবার কাছে টাকা-পয়সা থাকবে। আমাদের লক্ষ্য হচ্ছে, রেভিনিউ জেনারেট করা। রেভিনিউ জেনারেট করতে গিয়ে যেন অন্য কোনো বিষয় মুখোমুখি চলে না আসে, সেদিকে লক্ষ রাখতে হচ্ছে। অভ্যন্তরীণ অর্থনীতি বিকশিত হলে আমাদের রেভিনিউ জেনারেশন সহজলভ্য হবে। তাদের হাত ধরেই একদিকে রেভিনিউ কালেক্ট করব, অন্যদিকে কর্মসংস্থান নিশ্চিত হবে।

দ্বিতীয় ধাপের কভিড বিস্তারে ব্যবসায়ীদের সুবিধা বাড়ানো হবে কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে অর্থমন্ত্রী বলেন, মৌলিক কিছু ক্ষেত্রে বাড়ানো যায় কিনা সেটি নিয়ে কাজ করা হবে। ব্যবসায়ীদের সরকারের ২৩টি প্রণোদনা প্যাকেজের বিষয়ে সন্তুষ্টি প্রকাশ করেছে। প্রণোদনা প্যাকেজ তাদের সহায়তা করেছে বলে জানিয়েছে। সামনের দিনে ব্যবসায়ীদের সুবিধা বাড়ানো বা কমানোর বিষয়টি প্রধানমন্ত্রীর সিদ্ধান্ত। প্রধানমন্ত্রী নিজে থেকে কাজগুলো আমাদের দিয়ে করিয়ে নিয়েছেন। এবারো নিশ্চয়ই তিনি আরো পরিকল্পনা করছেন, যেখান থেকে যেভাবে সহযোগিতা বাড়ানো যায়, সেগুলো তিনি করবেন।

ব্যবসায়ীদের কাছে আগামী বাজেটের কোনো কাঠামোগত ধারণা দিয়েছেন কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে অর্থমন্ত্রী বলেন, আমাদের এখনো অনেকের সঙ্গে আলোচনা করতে হবে। এরপর একটি ধারণা আমরা দিতে পারব। যদিও সেটি চূড়ান্ত হবে না। এছাড়া কালো টাকা সাদা করার বিষয়ে কোনো ধরনের আলাপ গতকালের বৈঠকে হয়নি বলে জানান অর্থমন্ত্রী।

গতকালের ভার্চুয়াল ১২টি ব্যবসায়ী সংগঠনের নেতারা উপস্থিত ছিলেন। এর মধ্যে দ্য ফেডারেশন অব বাংলাদেশ চেম্বারস অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিজের (এফবিসিসিআই) সভাপতি শেখ ফজলে ফাহিম, বাংলাদেশ তৈরি পোশাক প্রস্তুতকারক রফতানিকারক সমিতির (বিজিএমইএ) সভাপতি . রুবানা হক, বাংলাদেশ নিটওয়্যার ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যান্ড এক্সপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনের (বিকেএমইএ) একেএম সেলিম ওসমান, বাংলাদেশ টেক্সটাইল মিলস? অ্যাসোসিয়েশনের (বিটিএমএ) সভাপতি মোহাম্মদ আলী খোকন, বাংলাদেশ লেদার গুডস অ্যান্ড ফুটওয়্যার ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যান্ড এক্সপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মো. সাইফুল ইসলাম। এছাড়া মেট্রোপলিটান চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি ব্যারিস্টার নিহাদ কবীর, ঢাকা চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির (ডিসিসিআই) সভাপতি রিজওয়ান রহমান, চট্টগ্রাম চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি (সিসিসিআই) সভাপতি মাহবুবুল আলম, বাংলাদেশ ওইমেন চেম্বার অব? কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি সেলিমা আহ্মাদ এমপি, ফরেন ইনভেস্টরস? চেম্বার অব? কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির (এফআইসিসিআই) সভাপতি রূপালী হক চৌধুরী, ওইমেন এন্ট্রাপ্রেনিউর অ্যাসোসিয়েশন অব? বাংলাদেশ (ডব্লিউইএবি) সভাপতি, শাহরুক রহমান, -কমার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (-ক্যাব) সভাপতি শমী কায়সার।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন