মঙ্গলবার | এপ্রিল ২০, ২০২১ | ৬ বৈশাখ ১৪২৮

খবর

দেশে করোনা শনাক্তের একবছর, রোগী ছাড়ালো সাড়ে ৫ লাখ

গেল বছর ৮ মার্চ দেশে প্রথম করোনা শনাক্তের তথ্য জানায় স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। সেদিন ৩ জনের শরীরে ভাইরাসটি শনাক্তের কথা জানানো হয়। তার ঠিক একবছর পর আজ নতুন করে ৬০৬ জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে দেশটিতে শনাক্তকৃত করোনা রোগীর সংখ্যা সাড়ে ৫ লাখ ছাড়িয়ে গেল। এখন পর্যন্ত মোট শনাক্তকৃত রোগীর সংখ্যা দাঁড়ালো ৫ লাখ ৫০ হাজার ৩৩০-এ।

প্রথম শনাক্তের ঠিক ১০ দিন পর ১৮ মার্চ দেশে প্রথম মৃত্যুর তথ্য নিশ্চিত করে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। গেল ২৪ ঘণ্টায় ভাইরাসটিতে সংক্রমিত হয়ে মারা গেছেন আরো ১১ জন। এ নিয়ে ভাইরাসটিতে সংক্রমিত হয়ে মৃতের মোট সংখ্যা পৌঁছেছে ৮ হাজার ৪৬২-তে।

আজ রবিবার স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নিয়মিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানা গেছে।

বিজ্ঞপ্তিতে দেশের মোট ২১৯টি ল্যাবের তথ্য জানিয়ে বলা হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় ১৪ হাজার ৯২টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এ পর্যন্ত পরীক্ষা হয়েছে ৪১ লাখ ৪৬ হাজার ২০৫টি নমুনা।

২৪ ঘণ্টায় নমুনা পরীক্ষার বিবেচনায় শনাক্তের হার ৪ দশমিক ৩০ শতাংশ, এ পর্যন্ত মোট শনাক্তের হার ১৩ দশমিক ২৭ শতাংশ। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৯১ দশমিক ৪০ শতাংশ এবং মৃত্যুর হার ১ দশমিক ৫৪ শতাংশ।

এদিকে একদিনে আরও ১ হাজার ৩৭ জন রোগী সুস্থ হয়ে উঠেছেন। তাতে সুস্থ রোগীর মোট সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৫ লাখ ৩ হাজার ৩-এ।

গেল বছর ৮ মার্চ প্রথম করোনা সংক্রমণের তিন মাস পর ১৮ জুন তা ১ লাখ ছাড়ায়। ঠিক এক মাসেই রোগীর সংখ্যা দ্বিগুণ হয়ে ২ লাখে দাঁড়ায়। তিন লাখ ছাড়া পরের মাসের ২৬ তারিখ, তৃতীয় এক লাখ রোগী শনাক্ত হয় এক মাস নয় দিনে। এরপর থেকে শনাক্ত কিছুটা কমে। চতুর্থ এক লাখ রোগী শনাক্ত হয় দুই মাসে। ২৬ অক্টোবর রোগীর সংখ্যা ৪ লাখ ছাড়িয়ে যায়। আর গত ২০ ডিসেম্বর রোগীর সংখ্যা ৫ লাখ ছাড়ায়। এরপরের ৭৭ দিনে শনাক্তকৃত রোগীর সংখ্যা বাড়লো আরো অর্ধলাখ।

এর মধ্যে গেল বছর ২ জুলাই দেশে একদিনে সর্বোচ্চ রোগী শনাক্ত হয়। সেদিন ৪ হাজার ১৯ জন করোনা রোগী শনাক্ত হওয়ার কথা জানায় স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন