বৃহস্পতিবার | এপ্রিল ২২, ২০২১ | ৯ বৈশাখ ১৪২৮

দেশের খবর

চার জেলায় সড়ক দুর্ঘটনায় ৯ জন নিহত

বণিক বার্তা ডেস্ক

চার জেলায় সড়ক দুর্ঘটনায় নয়জন নিহত হয়েছেন। গতকাল এসব দুর্ঘটনা ঘটে। এর মধ্যে সিরাজগঞ্জে একজন, ময়মনসিংহে চারজন, ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় তিনজন দিনাজপুরে একজন নিহত হন। প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর

সিরাজগঞ্জ: সিরাজগঞ্জের রায়গঞ্জে ভটভটি উল্টে টুটুল হোসেন ভোলা (২০) নামে এক ভটভটিচালক নিহত হয়েছেন। গতকাল সকালে রায়গঞ্জ উপজেলার নিঝুড়ি নামক স্থানে দুর্ঘটনা ঘটে। টুটুল হোসেন ভোলা রায়গঞ্জ উপজেলার রয়হাটি গ্রামের রহিম বক্সের ছেলে। রায়গঞ্জ থানার ওসি শহীদুল ইসলাম জানান, নিঝুড়ি এলাকার একটি ইটভাটা থেকে ভটভটি নিয়ে বাড়ি ফিরছিলেন টুটুল। পথে তার ভটভটি উল্টে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই টুটুলের মৃত্যু হয়। খবর পেয়ে পুলিশ তার মরদেহ উদ্ধার করে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করেছে। ঘটনায় থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা হয়েছে।

ময়মনসিংহ: ময়মনসিংহে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় চারজন নিহত হয়েছেন। গতকাল ভোরে বিকালে এসব দুর্ঘটনা ঘটে। ভালুকায় নিহতরা হলেন নেত্রকোনা উপজেলার সদর আলী শেখের ছেলে কাওছার শেখ (২৫) একই উপজেলার মৃত চান মিয়ার ছেলে ইমরান হোসেন (২৬) তারাকান্দায় নিহতরা হলেন উপজেলার বাগিচাপাড়া গ্রামের বিশ্বেশ্বর রায়ের ছেলে বিজন কৃষ্ণ রায় (৫৮) দুর্গাপুরের বংশীপাড়া গ্রামের নোয়াব আলীর ছেলে আবুল কাশেম (৩২)

ভালুকা হাইওয়ে পুলিশের পরিদর্শক মশিউর রহমান জানান, নেত্রকোনা থেকে ছেড়ে আসা একটি পিকআপ ভ্যান ভালুকা পৌর এলাকার পল্লী বিদ্যুৎ অফিসের সামনে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে অন্য একটি গাড়িকে ধাক্কা দেয়। এতে পিকআপটির কাওছার শেখ মালিক ইমরান হোসেন ঘটনাস্থলেই মারা যান।

অন্যদিকে ময়মনসিংহ ফায়ার সার্ভিসের সিনিয়র স্টেশন অফিসার আতিকুর রহমান বলেন, বিকালে ময়মনসিংহ ব্রিজ মোড় থেকে যাত্রী নিয়ে নেত্রকোনার দুর্গাপুরের উদ্দেশে রওনা হয় একটি সিএনজিচালিত অটোরিকশা। গাছতলা বাজার যেতেই বিপরীত দিক থেকে আসা একটি ট্রাক সিএনজিটিকে চাপা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই বিজন কৃষ্ণ রায় মারা যান। গুরুতর আহত আবুল কাশেমকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া: ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় দুই শিশুসহ তিনজন নিহত হয়েছে। গতকাল দুপুরে জেলার নবীনগর সরাইলে দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলো নবীনগরের পরশামনি () ইয়ামিন () এবং সরাইল উপজেলার ট্রলিচালক ইমরান মিয়া (২৪)

পুলিশ জানায়, এদিন দুপুরে নবীনগর উপজেলার নাটঘর ইউনিয়নের রসুলপুর বেলা ১১টায় একই উপজেলার বড়িকান্দি ইউনিয়নের ধরাভাঙা নামক স্থানে পৃথক দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত পরশামনি নাটঘর ইউনিয়ন রসুলপুর গ্রামের আলামিন মিয়ার মেয়ে নিহত ইয়ামিন উপজেলার বড়িকান্দি ইউনিয়নের ধরাভাঙা গ্রামের ওলিউল্লাহ মিয়ার ছেলে। নবীনগর থানার (ওসি-তদন্ত) নূরে আলম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

অন্যদিকে বেলা ১টায় সরাইল উপজেলার কালীগচ্ছের বড্ডাপাড়ায় বালুবাহী ট্রাক্টর নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ট্রলিচালক ইমরানকে চাপা দিলে গুরুতর আহত হন। তাকে উদ্ধার করে জেলা সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। তিনি উপজেলার নিজ সরাইল গ্রামের শাহজাহান মিয়ার ছেলে। সরাইল থানার ওসি নাজমুল হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

দিনাজপুর: দিনাজপুরের হাকিমপুরে স্পিডব্রেকারে ধাক্কা লেগে মোটরসাইকেল থেকে ছিটকে পড়ে রেহানা বেগম (৩৮) নামে এক নারী নিহত হয়েছেন। গতকাল ভোরে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থান তিনি মারা যান। রেহেনা বেগম হাকিমপুর উপজেলার মুহাড়াপাড়া গ্রামের আবু তালেবের স্ত্রী বিশাপাড়া হাইস্কুলের সহকারী শিক্ষিকা।

স্থানীয়রা জানায়, গত বৃহস্পতিবার বিকালে রেহেনা বেগম তার ভাইয়ের মোটরসাইকেলে করে বাড়ি ফিরছিলেন। হাকিমপুর পৌর এলাকার চণ্ডীপুর ডলি মেমোরিয়াল স্কুলের সামনে স্পিডব্রেকার অতিক্রম করার সময় ছিটকে রাস্তায় পড়ে গিয়ে গুরুতর আহত হন তিনি।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন