বৃহস্পতিবার | এপ্রিল ২২, ২০২১ | ৯ বৈশাখ ১৪২৮

আন্তর্জাতিক ব্যবসা

বিশ্বব্যাংককে জীবাশ্ম জ্বালানিতে বিনিয়োগ বন্ধের আহ্বান

বণিক বার্তা ডেস্ক

জলবায়ু পরিবর্তন কৌশল প্রসারিত করতে বিশ্বজুড়ে তেল কয়লা সম্পর্কিত প্রকল্পগুলোতে বিনিয়োগ বন্ধ করতে বিশ্বব্যাংকের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন ইউরোপের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা। পাশাপাশি তারা প্রাকৃতিক গ্যাস প্রকল্পগুলোতে বিনিয়োগ ধীরে ধীরে কমিয়ে আনার অনুরোধ জানিয়েছেন। বিষয়টিতে অবগত তিনটি সূত্র রয়টার্সকে তথ্য নিশ্চিত করেছে। খবর রয়টার্স।

গত সপ্তাহে পাঠানো ছয় পৃষ্ঠার চিঠিতে বিশ্বব্যাংকের প্রধান ইউরোপীয় শেয়ারহোল্ডার দেশ কানাডার প্রতিনিধিত্বকারী নির্বাহী পরিচালকরা ব্যাংকের ঋণ দেয়ার ক্ষেত্রে কার্বন নির্গমন হ্রাসের বিষয়টি নিশ্চিত করার পদক্ষেপকে স্বাগত জানিয়েছে। তবে উন্নয়নশীল বিশ্বের বৃহত্তম তহবিল সরবরাহকারী ব্যাংককে আরো এমন পদক্ষেপ নেয়ার অনুরোধ জানিয়েছেন তারা।

ইউরোপীয় কর্মকর্তারা লিখেছেন, আমরা মনে করি বিশ্বব্যাংকে এখন আরো এগিয়ে যাওয়া উচিত এবং কয়লা-তেল সংক্রান্ত সব বিনিয়োগ বাদ দেয়া উচিত। ব্যতিক্রমী পরিস্থিতিতে কেবল গ্যাসচালিত বিদ্যুৎ উৎপাদন পর্যায়ক্রমে ধীরে ধীরে কমিয়ে আনতে একটি রূপরেখা তৈরি করা উচিত।

একটি সূত্র জানিয়েছে, কর্মকর্তারা মোজাম্বিকে মাল্টি-বিলিয়ন ডলারের তরল প্রাকৃতিক গ্যাস প্রকল্পে ৬২ কোটি ডলার বিনিয়োগের বিষয়টি নোট করেছেন। তবে এটি বাতিল করার আহ্বান জানাননি।

বিশ্বব্যাংক চিঠি পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করলেও এর সম্পূর্ণ বিষয়বস্তু প্রকাশ করেনি। ব্যাংকটি উল্লেখ করেছে, বিশ্বব্যাংক তার সংগঠনগুলো গত পাঁচ বছরে জলবায়ু সংকট মোকাবেলায় হাজার ৩০০ কোটি ডলার সরবরাহ করেছে।

বিশ্বব্যাংক একটি -মেইল বিবৃতিতে রয়টার্সকে বলেছে, আমাদের শেয়ারহোল্ডারদের চিঠিতে আহ্বান করা অনেকগুলো উদ্যোগ এরই মধ্যে পরিকল্পনা করা হয়েছে কিংবা আমাদের ২০২১-২৫ সালের জলবায়ু পরিবর্তন কর্মসূচির খসড়া তৈরির জন্য আলোচনায় রয়েছে। এটি আগামী মাসে চূড়ান্ত করার জন্য কাজ চলছে।

২০১৬ অর্থবছরে ব্যাংকটির প্রথম জলবায়ু পদক্ষেপ শুরু হয়েছিল। বিশ্বব্যাংকের বৃহত্তম শেয়ারহোল্ডার যুক্তরাষ্ট্র গত মাসে ২০১৫ প্যারিস জলবায়ু চুক্তিতে পুনরায় যোগদান করেছে এবং বহুপক্ষীয় প্রতিষ্ঠান মার্কিন পাবলিক ঋণদানকারী প্রতিষ্ঠানগুলো জলবায়ু সমন্বিত বিনিয়োগের দিকে এবং উচ্চ-কার্বন বিনিয়োগ থেকে দূরে সরে আসার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন