বুধবার | মার্চ ০৩, ২০২১ | ১৯ ফাল্গুন ১৪২৭

খবর

দুটি দুর্ঘটনার পর বোয়িংয়ের পুরনো উড়োজাহাজ নিয়ে উদ্বেগ

নিজস্ব প্রতিবেদক

যুক্তরাষ্ট্রে ইউনাইটেড এয়ারলাইনসের যাত্রীবাহী ৭৭৭ এবং লংটেইল এভিয়েশনের কার্গো ৭৪৭ দুর্ঘটনার পর বোয়িংয়ের পুরনো উড়োজাহাজগুলো নিয়ে উদ্বেগ বাড়ছে। বিভিন্ন দেশের নিয়ন্ত্রক সংস্থা এসব উড়োজাহাজের ব্যাপারে অধিকতর তথ্য-উপাত্ত তলব করেছে। এরই মধ্যে এমন বেশ কয়েকটি পুরনো মডেলের উড়োজাহাজের উড্ডয়ন স্থগিত করা হয়েছে।

গত শনিবার যুক্তরাষ্ট্রের ডেনভারে বিমানবন্দর ত্যাগের কয়েক মিনিটের মধ্যে ইউনাইটেড এয়ারলাইনসের বোয়িং ৭৭৭ উড়োজাহাজটির জেট ইঞ্জিনে আগুন ধরে যায় এবং ইঞ্জিনের বিভিন্ন অংশ লোকালয়ে আছড়ে পড়ে। একই দিন নেদারল্যান্ডসে লংটেইল এভিয়েশনের ৭৪৭ কার্গো বিমানের জেট ইঞ্জিনও ভেঙে পড়ে। দুটি উড়োজাহাজের জেট ইঞ্জিনের নির্মাতা প্রতিষ্ঠান যুক্তরাষ্ট্রের প্র্যাট অ্যান্ড হুইটনি। অবশ্য দুর্ঘটনার সঙ্গে তাদের কারিগরি ত্রুটির কোনো সম্পর্ক এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

যুক্তরাষ্ট্রে প্রতিরক্ষা ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান রেথিওনের মালিকানাধীন প্র্যাট অ্যান্ড হুইটনি বলছে, তারা ইঞ্জিনের ইন্সপেকশন প্রটোকল রিভিউয়ে সরকারি নিয়ন্ত্রক সংস্থাগুলোকে সহযোগিতা করছে।

কলোরাডোর ডেনভারে ইঞ্জিনে আগুন ধরে যাওয়া এবং লোকালয়ে বিভিন্ন অংশ আছড়ে পড়ার ঘটনার পরপরই বোয়িং তাদের পিডব্লিউ ৪০০০ টারবাইন বিশিষ্ট ৭৭৭ মডেলের উড়োজাহাজগুলোর উড্ডয়ন স্থগিত রাখার পরামর্শ দিয়েছে। তবে বাধ্যতামূলক উড্ডয়ন স্থগিতের নির্দেশ দিয়েছে জাপান সরকার। বোয়িংয়ের পরামর্শের আগেই ইউনাইটেড তাদের ২৪টি ৭৭৭ উড়োজাহাজের উড্ডয়ন স্থগিত করেছে।

ইউরোপীয় ইউনিয়নের এভিয়েশন সেফটি এজেন্সি শনিবারের দুই দুর্ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে প্র্যাটের ইঞ্জিনের ব্যাপারে অধিকতর তথ্য তলব করেছে।

অবশ্য নেদারল্যান্ডসের ঘটনায় একজন নারী সামান্য আহত হওয়া ছাড়া অন্য কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি।

যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল এভিয়েশন অ্যাডমিনিস্ট্রেশন জানিয়েছে, তারা শিগগিরই জরুরি উড্ডয়ন নির্দেশিকা জারি করবে। এছাড়া উড়োজাহাজের নিয়মিত পরীক্ষা-নিরীক্ষার বিরতিকাল কমানো দরকার বলেও তারা মনে করছে।

শিল্পবিষয়ক প্রকাশনা সংস্থা ফ্লাইট গ্লোবালের ব্যবস্থাপনা সম্পাদক গ্রেগ ওয়ালড্রন বলেন, নিঃসন্দেহে এটি বোয়িং এবং প্র্যাট উভয়ের জন্য অস্বস্তিকর। তবে সময় যত গড়াবে রকম উড়োজাহাজ ইঞ্জিনের নানা ইস্যু সামনে আসবে। পিডব্লিউ ৪০০০ ইঞ্জিনবিশিষ্ট বোয়িংয়ে ৭৭৭-২০০ মডেলটি ক্রমেই প্রত্যাহার করা হচ্ছে। করোনাকালে এয়ারলাইনসগুলো এটির উড্ডয়ন স্থগিত করতে বাধ্য হয়েছে। শূন্যস্থান পূরণ করতে হবে জেনারেল ইলেকট্রিকের তৈরি ইঞ্জিনবিশিষ্ট ৭৮৭ ৭৭৭-এর অন্য উড়োজাহাজ দিয়ে।

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনসের ওয়েবসাইটে দেয়া তথ্য অনুযায়ী, রাষ্ট্রায়ত্ত উড়োজাহাজ সংস্থার রয়েছে বোয়িংয়ের ৭৭৭ সিরিজের চারটি উড়োজাহাজ। সবকটিই ৭৭৭-৩০০ইআর মডেলের। উড়োজাহাজগুলো হলো পালকি, অরূণ আলো, আকাশপ্রদীপ, রাঙাপ্রভাত।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন