রবিবার | মার্চ ০৭, ২০২১ | ২৩ ফাল্গুন ১৪২৭

টেলিকম ও প্রযুক্তি

এশিয়া প্যাসিফিকে ভাইবারের নজরকাড়া প্রবৃদ্ধি

বণিক বার্তা ডেস্ক

গত বছর এশিয়া প্যাসিফিক (এপিএসি) অঞ্চলে নজরকাড়া প্রবৃদ্ধির মুখ দেখেছে ক্রস-প্লাটফর্ম ভয়েস ওভার আইপি ইনস্ট্যান্ট মেসেজিং অ্যাপ রাকুতেন ভাইবার। গত বছরজুড়ে কভিড-১৯ মহামারীর কারণে ঘরবন্দি মানুষের যোগাযোগের ধরনে লক্ষণীয় পরিবর্তন এসেছে, যা বিশ্বের অনেক অঞ্চলের মতো এশিয়া প্যাসিফিকে ভাইবার নির্ভরতা বাড়িয়েছে।

রাকুতেন ভাইবারের দাবি, গত বছর ডিসেম্বরে এশিয়া প্যাসিফিক অঞ্চলে ভাইবারের ব্যবহারকারী বেড়েছে ৪২১ শতাংশ। একই সময় ভাইবার থেকে পাঠানো বার্তা ৫০৯ শতাংশ বেড়েছে এবং গ্রুপ মেসেজিংয়ের ক্ষেত্রেও উল্লেখযোগ্য প্রবৃদ্ধি এসেছে। পাশাপাশি কমিউনিটি মেসেজিংয়ের ক্ষেত্রে ভাইবারের কমিউনিটি ফিচার ব্যবহারকারীদের মধ্যে দারুণ সাড়া ফেলেছে।

গত বছরের জানুয়ারি ডিসেম্বরের তথ্যের তুলনা করলে বাংলাদেশের মতো এশিয়া প্যাসিফিক অঞ্চলের নির্দিষ্ট বাজারে ভাইবার ব্যবহারে উল্লেখযোগ্য প্রবৃদ্ধি রেকর্ড করা হয়েছে, যা এক দশকের মধ্যে ভাইবারের অন্যতম সাফল্যের বছর ছিল।

রাকুতেন ভাইবারের তথ্যমতে, ২০১৯ সালের তুলনায় গত বছর বাংলাদেশে সক্রিয়ভাবে ভাইবার ব্যবহার ৭২ শতাংশ বেড়েছে। ভাইবারে লগইন করা সংখ্যার ওপর ভিত্তি করে দেখা গেছে, বাংলাদেশীরা ভাইবার কমিউনিটিতে বেশি সময় ব্যয় করেছে। ব্যবহারকারীদের কমিউনিটিতে অংশগ্রহণ ১৪৯ শতাংশ বেড়েছে এবং কমিউনিটিতে বার্তা প্রেরণ ১১৬ শতাংশ বেড়েছে। গত বছর ভাইবার ব্যবহারকারীরা আরো বেশি টেক্সটিং, অডিও কল, ভিডিও কল এবং চ্যাট এক্সটেনশন ব্যবহার করেছে। ভাইবারে ভিডিও কল ৪০ শতাংশ এবং চ্যাট এক্সটেনশন ব্যবহার ৪৭ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে।

এশিয়া প্যাসিফিকে উন্নতমানের সেবাদানের ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে এবং অ্যাপ ব্যবহারের অভিজ্ঞতা উন্নত করতে ভাইবার কর্তৃপক্ষ গত বছর মাই নোটসের মতো নতুন ফিচার চালু করে। এটি ব্যবহারকারীদের করণীয় কাজের তালিকা এবং তাদের সব ডিভাইসের মিডিয়াকে সুসংহত করতে সহায়তা করে। ভাইবার গত বছর গ্রুপ কল অডিও কলে একযোগে অংশগ্রহণকারীর সংখ্যা দ্বিগুণ বাড়িয়ে সর্বোচ্চ ২০ জন করে।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন