বৃহস্পতিবার | ফেব্রুয়ারি ২৫, ২০২১ | ১২ ফাল্গুন ১৪২৭

শিল্প বাণিজ্য

অনলাইন ভ্যাট রিটার্ন দাখিলে টানা পঞ্চমবার শীর্ষে কুমিল্লা

নিজস্ব প্রতিবেদক

অনলাইন ভ্যাট রিটার্ন দাখিলে টানা পঞ্চমবার প্রথম স্থান অর্জন করেছে কুমিল্লা কাস্টমস, এক্সাইজ ভ্যাট কমিশনারেট। বিদায়ী বছরের ডিসেম্বরে ১২টি কমিশনারেটে যেখানে অনলাইনে রিটার্ন দাখিলের হার প্রায় ৪০ শতাংশ, সেখানে অনলাইনে রিটার্ন দাখিলের হার ৯৯ দশমিক ৬২ শতাংশে উন্নীত করে শীর্ষস্থান ধরে রেখেছে কুমিল্লা ভ্যাট কমিশনারেট। ডিসেম্বরে রিটার্ন দাখিলে দ্বিতীয় অবস্থানে যশোর আর তৃতীয় অবস্থানে রংপুর কমিশনারেট। অবস্থান ধরে রাখা শীর্ষ অবস্থানে আসতে সব কমিশনারেট প্রতিযোগিতা অব্যাহত রেখেছে। এনবিআর সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

ডিজিটাল বাংলাদেশের অঙ্গীকার বাস্তবায়নের ব্রত নিয়েই মাঠে সক্রিয় কমিশনারেটের (সিইভিসি) টিম। মাঠপর্যায়ে কর্মকর্তাদের সক্রিয়তার মাধ্যমেই অর্জন সম্ভব হয়েছে। এছাড়া মুজিব বর্ষে রাজস্ব আদায়ে সব সূচকে সর্বোচ্চ কৃতিত্ব অর্জনে কমিশনারেটগুলোকে নির্দেশনা দেয় এনবিআর চেয়ারম্যান। সে নির্দেশনা বাস্তবায়ন, কর্মকর্তা-কর্মচারীদের অক্লান্ত পরিশ্রম আর করদাতাদের মধ্যে সচেতনতা বৃদ্ধি পাওয়ায় কুমিল্লা ভ্যাট কমিশনারেট শীর্ষস্থান ধরে রেখেছে বলে জানিয়েছেন কর্মকর্তারা।

কুমিল্লা ভ্যাট কমিশনারেট সূত্র জানায়, কমিশনারেটের আওতাধীন রিটার্ন দাখিলযোগ্য প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা হাজার ৬১২। এর মধ্যে ডিসেম্বরে ম্যানুয়ালি রিটার্ন দাখিল করেছে ৩৫টি, অনলাইনে হাজার ৭৫টি। ডিসেম্বরে মোট রিটার্ন দাখিল করেছে হাজার ১১০টি প্রতিষ্ঠান। নিবন্ধনের তুলনায় রিটার্ন দাখিলের হার ৯৪ দশমিক ৭৮ শতাংশ। আর মোট রিটার্নের তুলনায় অনলাইনে রিটার্ন দাখিলের হার ৯৯ দশমিক ৬২ শতাংশ।

এনবিআর সূত্র জানায়, ডিসেম্বর পর্যন্ত অনলাইনে ভ্যাট নিবন্ধিত ব্যক্তি-প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা লাখ ৩০ হাজার ৭৮৬। এর মধ্যে ১৭ জানুয়ারি পর্যন্ত অনলাইনে রিটার্ন দাখিল হয়েছে ৮৬ হাজার ২৮৬টি। নিবন্ধনের তুলনায় রিটার্ন দাখিলের হার প্রায় ৪০। ডিসেম্বরে অনলাইনে রিটার্ন দাখিলে টানা পঞ্চমবার প্রথম স্থানে রয়েছে কুমিল্লা ভ্যাট কমিশনারেট। কমিশনারেটে নিবন্ধিত হাজার ৬১২টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে হাজার ৭৫টি প্রতিষ্ঠান অনলাইনে রিটার্ন দাখিল করেছে। রিটার্ন দাখিলের হার ৯৯ দশমিক ৬২ শতাংশ। দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে যশোর ভ্যাট কমিশনারেট। কমিশনারেটের ১৩ হাজার ৮০৪টি নিবন্ধিত ব্যক্তি-প্রতিষ্ঠানের মধ্যে অনলাইনে রিটার্ন দাখিল করেছে ১২ হাজার ৫৮৬টি; রিটার্ন দাখিলের হার ৯১ দশমিক ১৮ শতাংশ।

তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে রংপুর ভ্যাট কমিশনারেট। কমিশনারেটের নিবন্ধিত ১০ হাজার ১১৫টি ব্যক্তি-প্রতিষ্ঠানের মধ্যে রিটার্ন দাখিল করেছে হাজার ১২৭টি। রিটার্ন দাখিলের হার ৮০ দশমিক ৩৫ শতাংশ। চতুর্থ অবস্থানে রয়েছে সিলেট ভ্যাট কমিশনারেট। কমিশনারেটের নিবন্ধিত হাজার ৩৩০টি ব্যক্তি-প্রতিষ্ঠানের মধ্যে রিটার্ন দাখিল করেছে হাজার ৯২১টি। রিটার্ন দাখিলের হার ৭৪ দশমিক ১৮ শতাংশ। পঞ্চম অবস্থানে রয়েছে বৃহৎ করদাতা ইউনিট (এলটিইউ) এখানে নিবন্ধিত ১৪২টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ৮৮টি প্রতিষ্ঠান রিটার্ন দাখিল করেছে; রিটার্ন দাখিলের হার ৬১ দশমিক ৯৭ শতাংশ। ষষ্ঠ অবস্থানে রয়েছে চট্টগ্রাম ভ্যাট কমিশনারেট। কমিশনারেটের নিবন্ধিত ২৭ হাজার ৪২১টি ব্যক্তি-প্রতিষ্ঠানের মধ্যে রিটার্ন দাখিল করেছে ১৫ হাজার ৪০৯টি; রিটার্ন দাখিলের হার ৫৬ দশমিক ১৯ শতাংশ।

সপ্তম অবস্থানে রয়েছে রাজশাহী ভ্যাট কমিশনারেট। কমিশনারেটের নিবন্ধিত ১৪ হাজার ২৪০টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে হাজার ৩১৫টি রিটার্ন দাখিল করেছে, রিটার্ন দাখিলের হার ৪৪ দশমিক ৩৫ শতাংশ। অষ্টম অবস্থানে খুলনা ভ্যাট কমিশনারেটে নিবন্ধিত ১৫ হাজার ৫০৭টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে রিটার্ন দাখিল করেছে হাজার ৩০৫টি; রিটার্ন দাখিলের হার ৪০ দশমিক ৮০ শতাংশ। নবম অবস্থানে ঢাকা পূর্ব ভ্যাট কমিশনারেট। কমিশনারেটে নিবন্ধিত ১৫ হাজার ৫০৭ ব্যক্তি-প্রতিষ্ঠানের মধ্যে রিটার্ন দাখিল করেছে হাজার ৮২৫টি; রিটার্ন দাখিলের হার ৩১ দশমিক ১১ শতাংশ।

ঢাকা পশ্চিম ভ্যাট কমিশনারেট দশম, ঢাকা উত্তর কমিশনারেট একাদশ ঢাকা দক্ষিণ কমিশনারেট দ্বাদশ অবস্থানে রয়েছে।

কুমিল্লা ভ্যাট কমিশনারেট সূত্রমতে, কুমিল্লা ভ্যাট টিম নিরন্তর ক্লান্তিহীন কাজ শুরু করেন। এছাড়া কয়েকটি পদক্ষেপ নেয়ায় কমিশনারেটে অনলাইনে রিটার্ন দাখিলের চিত্র পাল্টে গেছে। একইভাবে টানা পঞ্চমবার শীর্ষস্থান ধরে রেখেছে কমিশনারেট।

বিষয়ে কুমিল্লা কমিশনারেটের অতিরিক্ত কমিশনার মো. আবদুল হাকিম বলেন, করোনার প্রাদুর্ভাবের মধ্যেও সাহস উদ্যম নিয়ে কর্মকর্তা কর্মচারীরা রাজস্ব আদায় রিটার্ন অনলাইন দাখিলের কাজ করে যাচ্ছেন। কুমিল্লা টিম চ্যালেঞ্জকে সফলভাবে মোকাবেলা করতে পেরেছে।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন