রবিবার | মার্চ ০৭, ২০২১ | ২৩ ফাল্গুন ১৪২৭

দেশের খবর

দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুট

ঘন কুয়াশায় সাড়ে ১০ ঘণ্টা বন্ধ ফেরি চলাচল

বণিক বার্তা প্রতিনিধি, রাজবাড়ী

ঘন কুয়াশার কারণে রাজবাড়ীর দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটে টানা ১০ ঘণ্টা ফেরি চলাচল বন্ধ ছিল। রোববার রাত সাড়ে ১১টা থেকে গতকাল সকাল ১০টা পর্যন্ত ফেরি চলাচল বন্ধ থাকে।

এদিকে দীর্ঘ সময় ফেরি চলাচল বন্ধ থাকায় নদীর দুই পারে আটকা পড়ে অসংখ্য যানবাহন। এতে চরম দুর্ভোগে পড়েন যাত্রী চালকরা। তীব্র ঠাণ্ডায় নদী তীরে রাত কাটাতে হয়েছে অসংখ্য যাত্রীকে।

গতকাল বিকালে রাজবাড়ী দৌলতদিয়া ফেরিঘাটে গিয়ে দেখা যায়, সেখানে ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের দৌলতদিয়া জিরো পয়েন্ট থেকে গোয়ালন্দ ফিড মিল পর্যন্ত চার কিলোমিটার এলাকায় দুই সারিতে আটকে আছে অন্তত ৬০০ যানবাহন। অন্যদিকে দৌলতদিয়া ঘাট থেকে ১২ কিলোমিটার পেছনে গোয়ালন্দ মোড় এলাকায় আটকে আছে অন্তত ৩০০ পণ্যবাহী ট্রাক।

গোল্ডেন লাইন পরিবহনের সুপারভাইজার নাসির উদ্দিন বলেন, ৪১ জন যাত্রী নিয়ে রওনা হই। রাত ১টা ৩০ মিনিটর পর্যন্ত ঘাটে থাকি।

গত রোববার রাত ১১টার দিকে ঘাটে এসে আটকা পড়ি। সারা রাত ঘাটেই কাটাতে হয়েছে। তীব্র ঠাণ্ডায় চরম দুর্ভোগে পড়তে হয়েছে। তবে আমারা তো তীরেই ছিলাম কিন্তু যারা মাঝ নদীতে আটকা পড়েছিল, তাদের ভোগান্তি ছিল আরো বেশি। সকালে কুয়াশা কাটার পর নদী পার হতে পারি আমরা।

বরিশালের মাছ ব্যবসায়ী মো. মামুন মোল্লা বলেন, সাড়ে ৯টায় মাছ নিয়ে ঘাটে এসে পৌঁছাই। তখন থেকেই যানজট ছিল। দীর্ঘ সময় ঘাটে থাকায় মাছের সব বরফ গলে র্দুগন্ধ ছড়াচ্ছে। অবস্থায় ঢাকায় যাওয়ার আগেই সব মাছ নষ্ট হয়ে যেতে পারে।

বিআইডব্লিউটিসি দৌলতদিয়া কার্যালয়ের ব্যবস্থাপক আবু আব্দুল্লাহ রনি বণিক বার্তাকে বলেন, রোববার সন্ধ্যার পর থেকে একটু একটু করে কুয়াশা বাড়তে থাকে। রাত সাড়ের ১১টার দিকে কুয়াশার তীব্রতা বেড়ে গিয়ে মার্কিনবাতি অস্পষ্ট হয়ে পড়লে দুর্ঘটনা এড়াতে ফেরি চলাচল বন্ধ রাখা হয়। সকালে ফেরি চলাচল শুরু হলে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে যাত্রীবাহী বাস পনচশীল পণ্যবাহী ট্রাক পারাপার করা হয়। তবে দীর্ঘ সময় ফেরি পারাপার বন্ধ থাকায় কিছুটা যানজট রয়েছে। নৌরুটের ১৬টি ফেরি দিয়ে বর্তমানে পারাপার করা হচ্ছে। ফেরি চলাচল শুরুর কয়েক ঘণ্টার মধ্যে যানজট নিয়ন্ত্রণে চলে আসে।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন