শনিবার | জানুয়ারি ১৬, ২০২১ | ৩ মাঘ ১৪২৭

টেলিকম ও প্রযুক্তি

যুক্তরাজ্যের প্রকাশকদের থেকে সংবাদ কিনবে ফেসবুক

বণিক বার্তা ডেস্ক

আগামী জানুয়ারি থেকে সোস্যাল মিডিয়া জায়ান্ট ফেসবুক স্বতন্ত্রভাবে সংবাদ প্রকাশ শুরু করবে। সে লক্ষ্যে তারা যুক্তরাজ্যের সংবাদ প্রকাশকদের কাছ থেকে অর্থমূল্য প্রদান করে কিছু সংবাদ প্রবন্ধ-নিবন্ধ কিনে নেবে। খবর বিবিসি।

ফিচারটি ফেসবুক অ্যাপে নিউজ ট্যাব হিসেবে যুক্ত থাকবে, এরই মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রে তারা কার্যক্রম শুরু করেছে।

ফেসবুক বলেছে, তারা এজন্য প্রকাশকদের তাদের প্লাটফর্মে নেই এমন প্রবন্ধ-নিবন্ধের জন্য অর্থ প্রদান করবে এবং এক্ষেত্রে তারা মূলত মৌলিক প্রতিবেদনকে অগ্রাধিকার দেবে।

এটি সামনে এল ফেসবুক এবং সংবাদ প্রকাশকদের কয়েক বছরব্যাপী উত্তেজনার পর। যেখানে ফেসবুকের বিরুদ্ধে প্রায়ই বিষয়বস্তু চুরির অভিযোগ সামনে আসছিল। এখন অবশ্য যুক্তরাজ্যের একশর বেশি সংবাদ প্রকাশক নতুন ফিচার নিয়ে ফেসবুকের সঙ্গে চুক্তি করেছে বলে জানা গেছে। যেখানে হার্স্ট, দ্য গার্ডিয়ান মিডিয়া গ্রুপ, প্রভাবশালী আঞ্চলিক সংবাদপত্র জেপিআই মিডিয়া এবং মিডল্যান্ড নিউ অ্যাসোসিয়েশনও যুক্ত রয়েছে। ফেসবুক আশা করছে পুরোপুরিভাবে চালু হওয়ার পর আরো অনেক প্রকাশক হয়তো তাদের সঙ্গে চুক্তিতে আসবে।

নিউজ ট্যাবটি অবশ্য কেবল মোবাইল অ্যাপে ব্যবহার করা যাবে, কোনো ওয়েব ব্রাউজারে এটি ব্যবহার করার সুযোগ নেই। ফেসবুক বলছে, যুক্তরাষ্ট্রে শুরু করার পর তারা ট্যাবে প্রায় ৯৫ শতাংশ ট্রাফিক দেখা গেছে। এমনকি এখানে সেসব পাঠকও রয়েছে, যারা এর আগে নিউজ আউটলেটগুলোর সঙ্গে যুক্ত ছিল না।

পাশাপাশি সংবাদ প্রকাশকদেরও নতুন করে আশা দেখাচ্ছে, যেখানে ফেসবুকের মধ্য দিয়ে তারা নিজেদের পাঠক সংখ্যাও নতুন করে বাড়াতে পারবে। ফেসবুক এবং প্রকাশকদের মাঝে কী চুক্তি হয়েছে, তা জনসম্মুখে প্রকাশ করা হয়নি। ফলে ধুঁকতে থাকা নিউজ আউটলেটগুলোর জন্য এটি কতটা আকর্ষণীয় হতে পারে তা এখনো অজানা।

এক দশকেরও বেশি সময় ধরে স্থানীয় প্রকাশকরা যুক্তি দিচ্ছেন, বড় প্রযুক্তি সংস্থাগুলো কোনো অর্থ না দিয়েই তাদের কনটেন্ট ব্যবহার করে। তবে ফেসবুকের নতুন পদক্ষেপ প্রকাশকদের যুক্তি দুর্বল করে দেবে। নিজেদের অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখতে তারা এখন ক্যালিফোর্নিয়ার টেক জায়ান্টের নতুন পদক্ষেপের ওপর নির্ভর করবে। সবশেষ ২০১৮ সালেও মার্ক জাকারবার্গ কনটেন্টের জন্য প্রকাশকদের অর্থ না দেয়ার বিষয়টি জানিয়েছিলেন। কিন্তু এখন ব্রিটিশ নিয়ন্ত্রকরা জানিয়েছে, ফেসবুক সাংবাদিকতার মতো জনসাধারণের পণ্যগুলোতে বিনিয়োগ করবে।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন