মঙ্গলবার | জানুয়ারি ১৯, ২০২১ | ৬ মাঘ ১৪২৭

টেলিকম ও প্রযুক্তি

বাংলালিংকের ২৫৯টি টেলিকম টাওয়ার নির্মাণ করবে সামিট

বণিক বার্তা ডেস্ক

মোবাইল অপারেটর কোম্পানি বাংলালিংকের ২৫৯টি টেলিকম টাওয়ার নির্মাণ করবে সামিট গ্রুপের অঙ্গপ্রতিষ্ঠান সামিট টাওয়ার্স লিমিটেড (এসটিএল)। বিল্ড-টু-স্যুট ভিত্তিতে এসব টাওয়ার নির্মাণ করা হবে। 

গতকাল বৃহস্পতিবার দুই প্রতিষ্ঠানের মধ্যে এ সংক্রান্ত চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে। 

বাংলালিংককে সঙ্গে নিয়ে এসটিএল ২০২১ সালের জানুয়ারি মাস নাগাদ ২৫৯টি টাওয়ার স্থাপন করার লক্ষ্য নির্ধারণ করেছে। এসটিএল আগামী বছরগুলোতো বাংলালিংকের পাশাপাশি অন্যান্য মোবাইল নেটওয়ার্ক অপারেটরদের সঙ্গে দেশজুড়ে আরো টাওয়ার স্থাপনের পরিকল্পনা নিয়েছে। 

চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বলেন, আজকের এই যাত্রা কোয়ালিটি অব সার্ভিসের ক্ষেত্রেও একটি নতুন দিগন্তের উন্মোচন করবে। 

তিনি বলেন, আজকের এই অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে ২০১৮ সালে ৪টি কোম্পানির স্বাক্ষরিত টাওয়ার শেয়ারিংয়ের  চুক্তির মাধ্যমে গৃহীত উদ্যোগের যাত্রা শুরু হলো। এর ফলে  বিশাল বিনিয়োগনির্ভর টেলিকম খাতে মোবাইল অপারেটরদের জন্য নেটওয়ার্ক সম্প্রসারণের কাজটি যেমন সহজ হয়েছে তেমনি গুণগত মানের মোবাইল সেবা প্রদানের বিষয়টিও অপারেটরদের জন্য সহজতর হয়েছে। 

গুণগত সেবা নিশ্চিত করতে স্পেকট্রাম সহসাই নিলাম করা হবে বলেও জানান মন্ত্রী।

বাংলালিংকের চেয়ারম্যান ও ভিয়ন-এর গ্রুপ কো-সিইও সার্গে হেররো বলেন, আমরা বাংলাদেশকে প্রবৃদ্ধির অপার সম্ভাবনার দেশ হিসেবে দেখি। ডিজিটাল সেবার সম্ভাবনা বিবেচনায় আমরা বাংলালিংকে নেটওয়ার্ক এবং ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম উন্নয়নে ব্যাপক বিনিয়োগ করেছি যার ফলে সাম্প্রতিক সময়ের নেটওয়ার্কের সক্ষমতার উন্নতি হয়েছে। সামিটের সঙ্গে এই চুক্তির ফলে, বাংলালিংকের নেটওয়ার্ক সম্প্রসারণে নতুন গতির সঞ্চার হবে। 

সামিট টাওয়ার্স লিমিটেডের ম্যানেজিং ডিরেক্টর এন্ড সিইও আরিফ আল ইসলাম বলেন, সামিট গ্রুপ গত চার দশক ধরে দেশের অবকাঠামো উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছে। এক দশক আগে সামিটের ফাইবার অপটিক নেটওয়ার্ক এবং গেটওয়ে স্থাপনের মাধ্যমে টেলিকম অবকাঠামো উন্নয়নখাতে প্রবেশ করে এবং এখন তাতে টাওয়ার অবকাঠামো নির্মাণ নতুন করে পোর্টফোলিওতে যুক্ত হলো। জাতীয় পর্যায়ে আসন্ন ৫জি নেটওয়ার্ক স্থাপনের ক্ষেত্রে আমাদের জন্য এটি একটি অনন্য সুযোগ। আমাদের প্রতি আস্থা রাখবার জন্য বাংলালিংককে আমরা কৃতজ্ঞতা।

বাংলালিংকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) এরিক অস বলেন, দেশজুড়ে বাংলালিংকের শক্তিশালী নেটওয়ার্ক সম্প্রসারণ প্রচেষ্টায় অংশীদার হওয়ার জন্য আমি সামিটকে ধন্যবাদ জানাতে চাই। তাদের অবকাঠামো-সহায়তা আমাদের নিশ্চিতভাবে আগামীতে এগিয়ে যেতে সাহায্য করবে। আমরা সরকারের সকল উদ্যোগকে স্বাগত জানাই।

ভার্চুয়াল এই সভায় যুক্ত ছিলেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের সচিব মো. আফজাল হোসেন, বাংলাদেশ টেলিকমিউনিকেশন রেগুলেটরি কমিশনের (বিটিআরসি) মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. এহসানুল কবীর, সামিট গ্রুপের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান মুহাম্মদ আজিজ খান, ভাইস-চেয়ারম্যান ফরিদ খান, গ্রুপ সিইও ভিয়ন গ্রুপ সার্গে হেরেরো, বাংলালিংকের চিফ করপোরেট অ্যান্ড রেগুলেটরি অ্যাফেয়ার্স অফিসার তাইমুর রহমান, সামিট গ্রুপের পরিচালক ফাদিয়া খানসহ উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন