শনিবার | জানুয়ারি ২৩, ২০২১ | ১০ মাঘ ১৪২৭

খেলা

‘ম্যারাদোনার মতো ভালোবাসা অর্জন মেসি-রোনালদোরা ভাবতেও পারেন না’

ক্রীড়া ডেস্ক

দিয়েগো ম্যারাদোনার মতো এতটা ভালোবাসা অর্জন করাটা স্বপ্নেও ভাবতে পারেন না বর্তমান প্রজন্মের সুপারস্টার লিওনেল মেসি ও ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোরা—কথাটি বলেছেন আর্জেন্টিনা জাতীয় দলে ম্যারাদোনার সাবেক সতীর্থ ওসিয়ে আর্দিলেস। 

বুধবার হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে মারা যান ৬০ বছর বয়সী ফুটবল গ্রেট ম্যারাডোনা। তার মৃত্যুতে আর্জেন্টিনায় তিনদিনের জাতীয় শোক ঘোষণা করা হয়েছে। নির্বাহী প্রাসাদ ও রাষ্ট্রপতির কার্যালয় কাসা রোসাদায় বৃহস্পতি, শুক্র ও শনিবার কিংবদন্তির মরদেহে শ্রদ্ধা জানাবেন লাখ লাখ ফুটবল অনুরাগী। 

সাবেক সতীর্থকে নিয়ে আর্দিলেস বলেছেন, দিয়েগো ম্যারাদোনা হয়ে ওঠা ছিল অনিন্দ্য সুন্দর এক যাত্রা। কিন্তু অন্যদিকে, এটা সহজও ছিল না মোটেও। অল্প বয়স থেকেই সে ছিল সংবাদমাধ্যমের আগ্রহের কেন্দ্রে। আবার স্বাভাবিক শৈশবও সে পায়নি, এমনকি স্বাভাবিক কৈশোরও।

১৯৮২ বিশ্বকাপে ম্যারাদোনার সঙ্গে খেলা আর্দিলেস জানান, আর্জেন্টিনা, নেপলস আর গোটা বিশ্বে তিনি ছিলেন একজন ‘ঈশ্বর’। আর্দিলেসের কথায়, ফুটবলের একটি প্রতিভা হিসেবে তাকে স্মরণ করবে মানুষ। তিনি অবিশ্বাস্যরকমের কৌতুহল আর ভালোলাগা তৈরি করতে পেরেছেন। মানুষ রোনালদো কিংবা মেসিকে পছন্দ করে, কিন্তু ম্যারাদোনার মতো ভালোবাসা পাওয়ার কথা তারা স্বপ্নেও ভাবতে পারে না। ম্যারাদোনা সব সময়ের জন্যই বিস্ময় হয়ে থাকবেন।

মেসি ও রোনালদোসহ বর্তমান প্রজন্মের বহু ফুটবলার ম্যারাদোনার মৃত্যুতে শোক জানিয়েছেন। যে পেলের সঙ্গে সব সময় শ্রেষ্ঠত্বের ‘লড়াই’ ছিল ম্যারাদোনার, সেই পেলে শোকবার্তায় বলেছেন, আশা করি আমরা দুজন একদিন স্বর্গে ফুটবল খেলব।

বিশ্ব ফুটবলকে উন্নত করেছেন বলে মনে করেন ম্যানচেস্টার সিটি কোচ পেপ গার্দিওলা। তিনি বলেন, গত বছর আর্জেন্টনায় টাঙানো একটি ব্যানার দেখেছি আমি, তাতে লেখা ছিল: দিয়েগো, তুমি তোমার জীবনে কী করেছো সেটা গুরুত্বপূর্ণ না, কিন্তু তুমি আমাদের জন্য যা করেছো, তা অবশ্যই গুরুত্বপূর্ণ। 

গার্দিওলা যোগ করেন, এই মানুষটি আমাদের কী দিয়েছেন তা বেশ ভালোভাবেই প্রকাশ করছে এই কথাগুলো। ব্যক্তিটি নিখাঁদ আনন্দ ও উপভোগের আর বিশ্ব ফুটবলের প্রতি ছিলেন চরম অঙ্গীকারাবদ্ধ। 

ম্যারাদোনার স্বদেশী ও টটেনহাম হটস্পার্সের সাবেক কোচ মাউরিসিও পচেত্তিনো বলেছেন, কষ্টে বুক ফেটে যায়। দিয়েগো, তুমি ছিলে আমার নায়ক ও বন্ধু। ফুটবল ও জীবনের অনেক বিষয় তোমার সঙ্গে ভাগাভাগি করতে পারায় আমি সৌভাগ্যবান।

ইংলিশ ফুটবল সুপারস্টার ডেভিড বেকহাম টুইটে শ্রদ্ধাভরে লিখেছেন, আর্জেন্টিনা ও ফুটবলের জন্য এটা দুঃখের একটা দিন। আমরা সব সময়ই তার অর্জন ও কীর্তি নিয়ে গর্ব করি। তিনি এমনই এক ফুটবলার ছিলেন যার খেলায় আবেগ, চেতনা থাকত, তিনি ছিলেন নিখাঁদ এক মেধাবী খেলোয়াড়। তার সঙ্গে সাক্ষাতের সময় আমি খুবই রোমাঞ্চিত হয়েছি। আমরা সবাই তার অভাব অনুভব করব। শান্তিতে ঘুমাও দিয়েগো।

ম্যারাদোনার প্রয়াণে কাঁদছে আর্জেন্টিনা থেকে হাজার হাজার মাইল দূরে ইতালির ন্যাপোলি শহরও। ন্যাপোলির সান পাওলো স্টেডিয়ামের বাইরে জড়ো হয়েছেন ক্লাবটির সমর্থকরা। তারা মোমবাতি জ্বালিয়ে কিংবদন্তিকে শ্রদ্ধা জানিয়েছেন, ১৯৮৯-৯০ মৌসুমে যে মানুষটি এই ক্লাবকে নিয়ে যান পাদপ্রদীপের আলোয়। ন্যাপোলির জার্সিতে ১৮৮ ম্যাচে ৮১ গোল করেছেন তিনি। 

৮২’র বিশ্বকাপে ম্যারাদোনার সঙ্গে খেলেছেন আর্দিলেস

সান পাওলো স্টেডিয়ামের নাম পাল্টে ম্যারাদোনার নামে করার আহ্বান জানিয়েছেন ন্যাপোলির সিটি মেয়র লুইগি ডি মাগিস্ত্রিস।

দ্য ভ্যাটিকান বলছে, আর্জেন্টাইন ফুটবল সমর্থক, আর্জেন্টিনার মানুষ পোপ ফ্রান্সিস তার প্রার্থনায় ম্যারাদোনাকে স্মরণ করবেন। 

বুধবার ম্যারাদোনার মৃত্যুর খবর শোনার পর আর্জেন্টিনার প্রেসিডেন্ট আলবার্তো ফার্নান্দেজ বলেছেন, আজ খুবই খারাপ একটি দিন। সব আর্জেন্টাইনের জন্য এটা খারাপ একটা দিন। 

সূত্র: বিবিসি

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন