রবিবার | জানুয়ারি ২৪, ২০২১ | ১১ মাঘ ১৪২৭

প্রথম পাতা

শনাক্ত দুই হাজার ছাড়িয়ে, আরো ৩৯ জনের মৃত্যু

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রাণঘাতী নভেল করোনাভাইরাসে আক্রান্ত আরো ৩৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর আগে ১৭ নভেম্বর ৩৯ জনের মৃত্যু হয়, যা ৫৮ দিনের মধ্যে সর্বোচ্চ। গত ২৪ ঘণ্টায় কভিড-১৯ পজিটিভ শনাক্ত হয়েছে হাজার ১৫৬ জন। এতে সর্বশেষ ১০ দিনের মধ্যে নয়দিনই দুই হাজারের বেশি শনাক্ত হয়েছে। দেশে করোনাভাইরাস পরিস্থিতি নিয়ে গতকাল স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পাঠানো নিয়মিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে তথ্য জানানো হয়।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তির তথ্য অনুযায়ী, দেশের ১১৭টি পরীক্ষাগারে গত ২৪ ঘণ্টায় ১৫ হাজার ৭৭৭টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। আগের কিছু নমুনাসহ সময় ১৬ হাজার ১টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এতে হাজার ১৫৬ জনের শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত হওয়ায় মোট করোনা রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে লাখ ৫৪ হাজার ১৪৬-এ। মোট নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ২৬ লাখ ৯৬ হাজার ১৫০টি। গতকালের নমুনা পরীক্ষার সংখ্যা বিবেচনায় শনাক্তের হার ১৩ দশমিক ৪৮ শতাংশ। গতকালের ৩৯ জনসহ মোট মারা যাওয়া করোনা রোগীর সংখ্যা হাজার ৪৮৭।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর জানায়, গতকাল বাসা হাসপাতালে আরো হাজার ৩০২ জন করোনা রোগী সুস্থ হওয়ায় মোট সুস্থতার সংখ্যা দাঁড়িয়েছে লাখ ৬৯ হাজার ১৭৯। এতে ১০০ জনের মধ্যে সুস্থতার হার ৮০ দশমিক ২১ শতাংশ।

গত ২৪ ঘণ্টায় মৃতদের মধ্যে ২৭ জন পুরুষ আর নারী ১২ জন। তাদের সবাই হাসপাতালে মারা গেছেন। তাদের মধ্যে ২২ জনের বয়স ছিল ৬০ বছরের বেশি, ১২ জনের বয়স ৫১-৬০ বছরের মধ্যে এবং পাঁচজনের বয়স ৪১-৫০ বছরের মধ্যে ছিল। মৃতদের মধ্যে ২৬ জন ঢাকা বিভাগের, পাঁচজন চট্টগ্রাম, তিনজন রাজশাহী, দুজন করে মোট চারজন খুলনা রংপুর এবং একজন সিলেট বিভাগের বাসিন্দা ছিলেন।

দেশে পর্যন্ত মারা যাওয়া হাজার ৪৮৭ জনের মধ্যে হাজার ৯৮২ জনই পুরুষ এবং হাজার ৫০৫ জন নারী। তাদের মধ্যে হাজার ৪৩৪ জনের বয়স ছিল ৬০ বছরের বেশি। এছাড়া হাজার ৬৯৫ জনের বয়স ৫১-৬০ বছরের মধ্যে, ৭৯১ জনের বয়স ৪১-৫০, ৩৪০ জনের বয়স ৩১-৪০, ১৪৫ জনের বয়স ২১-৩০, ৫১ জনের বয়স ১১-২০ বছরের মধ্যে এবং ৩১ জনের বয়স ছিল ১০ বছরের কম।

এর মধ্যে হাজার ৪৪৮ জন ঢাকা বিভাগের, হাজার ২৪৭ জন চট্টগ্রাম, ৩৯৭ জন রাজশাহী, ৪৯০ জন খুলনা, ২১৫ জন বরিশাল, ২৬৪ জন সিলেট, ২৯৪ জন রংপুর ১৩২ জন ময়মনসিংহ বিভাগের বাসিন্দা ছিলেন।

উল্লেখ্য, গত বছরের ডিসেম্বরে চীনের হুবেই প্রদেশের উহানে নভেল করোনাভাইরাসের সংক্রমণ প্রথম শনাক্ত হয়। গত ১১ মার্চ নভেল করোনাভাইরাসের সংক্রমণে সৃষ্ট রোগ কভিড-১৯-কে বৈশ্বিক মহামারী ঘোষণা করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) বিশ্বের ২১৫টি দেশ অঞ্চলে বাংলাদেশ সময় গতকাল বিকাল পর্যন্ত পাওয়া পরিসংখ্যান অনুযায়ী কভিড-১৯ আক্রান্ত হয়েছে কোটি লাখের বেশি মানুষ। মোট মৃতের সংখ্যা ১৪ লাখেরও বেশি।

বাংলাদেশে ভাইরাসটির প্রথম সংক্রমণ শনাক্ত হয় মার্চ এবং ১০ দিন পর ১৮ মার্চ প্রথম রোগে আক্রান্ত কোনো রোগীর মৃত্যু ঘটে। যুক্তরাষ্ট্রের জনস হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের তালিকা অনুযায়ী বিশ্বে শনাক্তের দিক থেকে বাংলাদেশের অবস্থান ২৫তম মৃত্যুর দিক দিয়ে ৩৩তম।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন