শনিবার | জানুয়ারি ২৩, ২০২১ | ১০ মাঘ ১৪২৭

টেলিকম ও প্রযুক্তি

বঙ্গবন্ধু ইনোভেশন গ্র্যান্ট-২০২০

মুজিব বর্ষে অনুদান পাবে দেশী-বিদেশী স্টার্টআপ

নিজস্ব প্রতিবেদক

মুজিব বর্ষ উপলক্ষে দেশী-বিদেশী স্টার্টআপদের নতুন উদ্ভাবনী ধারণাকে উৎসাহিত করতে সরকারের পক্ষ থেকে বঙ্গবন্ধু ইনোভেশন গ্র্যান্ট-২০২০ প্রদানের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। তথ্য যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) বিভাগের আওতায় উদ্যোগের অংশ হিসেবে ৩৬টি স্টার্টআপকে ১০ লাখ টাকা করে অনুদান দেয়া হবে। মুজিব বর্ষ উপলক্ষে এবার প্রথম আয়োজন হলেও ধারাবাহিকভাবে প্রতি বছর আয়োজন করে উদ্যোগকে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে একটি ফ্ল্যাগশিপ উদ্যোগ হিসেবে প্রতিষ্ঠা করতে চায় সরকার। গতকাল রাজধানীর আগারগাঁওয়ে আয়োজনের উদ্বোধন করেন তথ্য যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

আইসিটি বিভাগের আওতায় বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিলের অধীনে উদ্ভাবন উদ্যোক্তা উন্নয়ন একাডেমি প্রতিষ্ঠাকরণ প্রকল্প থেকে উদ্যোগ বাস্তবায়ন করা হবে। গ্র্যান্টের আওতায় বিশ্ববিদ্যালয় স্টেকহোল্ডার পর্যায়ে অ্যাক্টিভেশন কার্যক্রম পরিচালনা, টিভি রিয়েলিটি শো আয়োজন এবং আন্তর্জাতিক রোড শো তিন ধরনের উদ্যোগ বাস্তবায়ন করা হবে। রোড শোতে যুক্তরাষ্ট্র, কম্বোডিয়া, ভারত, তুরস্ক, নেপাল, ভুটান, মালদ্বীপ, চীন, দক্ষিণ কোরিয়া, জাপান, মালয়েশিয়াসহ আরো কয়েকটি দেশকে অন্তর্ভুক্ত করার পরিকল্পনা রয়েছে।

এসব উদ্যোগের মধ্য দিয়ে প্রাথমিকভাবে নির্বাচিত দেশী-বিদেশী সেরা ৩৬টি স্টার্টআপকে ১০ লাখ টাকা করে অনুদান দেয়া হবে। চূড়ান্ত পর্যায়ে সেরা একটি স্টার্টআপকে অনুদান হিসেবে ১০ লাখ ডলারের অর্থমূল্য বিশেষ সম্মাননা প্রদানের সিদ্ধান্ত হয়েছে। আগামী মার্চে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাত থেকে বিজয়ীদের হাতে অনুদানের অর্থ সম্মাননা তুলে দেয়ার পরিকল্পনা রয়েছে।

বঙ্গবন্ধু ইনোভেশন গ্র্যান্ট ২০২০-এর আওতায় প্রতিযোগিতামূলক আয়োজনে অংশ নিতে দেশীয় স্টার্টআপগুলোকে ২৫ ডিসেম্বরের মধ্যে বিদেশী স্টার্টআপগুলোকে ২৫ জানুয়ারির মধ্যে নিবন্ধন নিশ্চিত করতে হবে। নিবন্ধন করা যাবে www.big.gov.bd এই ওয়েবসাইটে।

উদ্বোধনী আয়োজনে জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, বঙ্গবন্ধুর জীবনাদর্শ রাজনৈতিক দর্শন বর্তমান ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য অনুকরণীয় অনুপ্রেরণাদায়ক দৃষ্টান্ত। তরুণদের অনুপ্রাণিত উৎসাহিত করতে হলে তাদের কাছে বঙ্গবন্ধুর জীবনদর্শন রাজনৈতিক চেতনা সঠিকভাবে তুলে ধরতে হবে। তাহলে তারা আর কখনো জীবন সংগ্রামে পরাজিত হবে না। তরুণদের কাছে বঙ্গবন্ধুর দর্শন পৌঁছে দিতে প্রতি বছর তহবিল থেকে অনুদান প্রদানের চিন্তাভাবনা রয়েছে।

আয়োজনে আরো উপস্থিত ছিলেন আইসিটি বিভাগের সিনিয়র সচিব এনএম জিয়াউল আলম, বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিলের (বিসিসি) নির্বাহী পরিচালক পার্থপ্রতিম দেব, আইডিইএ প্রকল্পের পরিচালক অতিরিক্ত সচিব সৈয়দ মজিবুল হক প্রমুখ।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন