মঙ্গলবার | জানুয়ারি ১৯, ২০২১ | ৬ মাঘ ১৪২৭

খেলা

মেসির বিশ্রাম না অন্য কিছু?

ক্রীড়া ডেস্ক

ক্লান্তি এবং সূচি জটিলতায় খেলোয়াড়দের বিশ্রাম দেয়ার রীতিটা নতুন কিছু না। তারওপর পয়েন্ট টেবিলে অবস্থান ভালো হলেও বিশ্রাম পেতে পারেন দলের সেরা তারকা। সেসব বিবেচনায় নিলে ডায়নামো কিয়েভের বিপক্ষে লিওনেল মেসির মতো তারকার বিশ্রাম পাওয়াটাকে বাঁকা চোখে দেখার কিছু থাকে না। কিন্তু বার্সেলোনা ও মেসির সাম্প্রতিক সম্পর্কের সমীকরণের কারণে কিয়েভে মেসির না যাওয়াকে সন্দেহের চোখে দেখতে পারেন অনেকে। ক্লাব থেকে বিদায় নিতে গিয়েও শেষ পর্যন্ত থেকে গেলেন। কিন্তু সম্পর্ক যে এখনো স্বাভাবিক নয় তা বুঝা গেছে কয়েক দিন আগে মেসির করা এক মন্তব্যে। তিনি বলেছিলেন, ক্লাবের ঝামেলার কেন্দ্রের নিজেকে দেখে বিরক্ত তিনি। যদিও বার্সা কোচ রোনাল্ড কোম্যান জোর দিয়ে বলেছেন, কেবল ক্লান্তিজনিত কারণে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের গ্রুপ পর্বের ম্যাচটিতে থাকছেন না মেসি। কেবল মেসিই নন, এ ম্যাচের জন্য ডি ইয়ংকেও বাইরে রাখছেন তিনি। এ সময় সূচি নিয়েও নিজের ক্ষোভ প্রকাশ করতে ভুল করেননি এই ডাচ কোচ। 

কোম্যান বলেন, বর্তমান সূচি অনুযায়ী খেলোয়াড়দের ফিট রাখা অসম্ভব। কখনো কখনো আপনাকে খেলোয়াড়দের রক্ষা করতে হয়, কারণ ম্যাচের সূচিটা অবিশ্বাস্য। 

এ সময় মেসিকে বিশ্রাম দেয়ার বিষয়টি উল্লেখ করে বার্সা কোচ বলেন, আমরা মনে করি, লিও (মেসি) এবং ফ্রেংকিকে (ডি ইয়ং) বিশ্রাম দেয়ার এটাই প্রকৃত সময়। আমাদের বেশিরভাগ খেলোয়াড় দলের হয়ে প্রতিটা মিনিট খেলেছে এবং তারপর জাতীয় দলের হয়ে খেলেছে। 

সার্জিও রবার্তোর উদাহরণ দিয়ে কোম্যান বলেন, উদাহরণ হিসেবে সার্জিও রবার্তোকে নিতে পারেন। মূলত অনেক ম্যাচ খেলার কারণে সে চোটে পড়েছে। সবাই সেটা জানে, কিন্তু তারপরও আমাদের প্রচুর ম্যাচ খেলতে হচ্ছে। এটা অবিশ্বাস্য। এটা সময় হচ্ছে ফিফা এবং উয়েফার চিন্তা করা যে তারা খেলোয়াড়দের সঙ্গে কি করছে। যে পরিমাণ ম্যাচ তাদের খেলতে হয় তা উদ্ভট। 

দ্য গার্ডিয়ান

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন