বুধবার | নভেম্বর ২৫, ২০২০ | ১১ অগ্রহায়ণ ১৪২৭

শেষ পাতা

পদ্মা সেতুতে বসল ৩৮তম স্প্যান

নিজস্ব প্রতিবেদক

পদ্মা সেতুতে ৩৮তম স্প্যান স্থাপন হয়েছে। গতকাল দুপুরে মুন্সীগঞ্জের মাওয়া প্রান্তের নম্বর খুঁটির ওপর স্প্যানটি স্থাপন করা হয়। এর মাধ্যমে সেতুর হাজার ৭০০ মিটার দৃশ্যমান হলো। সেতুটির ৪১ স্প্যানের মধ্যে বাকি থাকছে আর মাত্র তিনটি। পদ্মা সেতু কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, বিজয় দিবসের আগে অন্য তিনটি স্প্যান স্থাপন করা হবে। এর মধ্যে নভেম্বরে আরো একটি স্প্যান স্থাপন করা হবে।

পদ্মা সেতুর নির্বাহী প্রকৌশলী (মূল সেতু) দেওয়ান মো. আব্দুল কাদের বলেন, কুমারভোগের কনস্ট্রাকশন ইয়ার্ড থেকে স্প্যানটি নিয়ে রওনা হয় ভাসমান জাহাজ তিয়ান - নামের স্প্যানটি খুঁটির কাছে পৌঁছে দেয়ার পর শুরু হয় বসানোর নানা প্রক্রিয়া। অ্যাংকরিংসহ অন্যান্য আনুষঙ্গিক কাজ শেষে বেলা ২টা ৩৫ মিনিটে স্প্যানটি স্থাপন করা হয়। এর আগে ১২ নভেম্বর মাওয়া প্রান্তের ১০ নম্বর খুঁটিতে ৩৭তম স্প্যানটি স্থাপন করা হয়।

তিনি বলেন, সেতুর ৪২টি খুঁটির ওপর ৪১টি স্প্যান বসানো হবে। এর মধ্যে ৩৮টি স্প্যান বসে সেতুর দৃশ্যমান এখন ৫৭০০ মিটার। দশমিক ১৫ কিলোমিটার দৈর্ঘ্যের দ্বিতল সেতুর বাকি থাকবে আর মাত্র আধা কিলোমিটারের কম।

এছাড়া সেতুর অন্যান্য কার্যক্রমও চলছে দ্রুতগতিতে জানিয়ে তিনি বলেন, এরই মধ্যে হাজার ২১১টি রোডওয়ে স্লাব হাজার ৮০০ রেলওয়ে স্লাব বসানো হয়ে গেছে। সংযোগ সেতু নদী শাসনের কাজও দ্রুত এগোচ্ছে। মূল সেতুর অগ্রগতি ৯০ শতাংশ আর সার্বিক অগ্রগতি ৮২ শতাংশ।

সেতু কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, ২০১৪ সালের ডিসেম্বরে শুরু হওয়া পদ্মা সেতু ২০২১ সালেই খুলে দেয়া হবে।

প্রসঙ্গত, ২০০৭ থেকে ২০১৫ মেয়াদে বাস্তবায়নের লক্ষ্যে অনুমোদন হয়েছিল পদ্মা সেশং প্রকল্প। প্রাক্কলিত নির্মাণব্যয় ছিল ১০ হাজার ১৬১ কোটি টাকা। ২০১১ সালে প্রথমবার প্রকল্পটি সংশোধন করা হয়। নকশা পরিবর্তন করে দৈর্ঘ্য বৃদ্ধি, রেললাইন সংযোজনসহ আনুষঙ্গিক কাজ বাড়িয়ে নির্মাণব্যয় প্রাক্কলন করা হয় ২০ হাজার ৫০৭ কোটি টাকা। মেয়াদ অপরিবর্তিত রাখা হয়।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন