রবিবার | নভেম্বর ২৯, ২০২০ | ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৭

টকিজ

সমালোচনার ভয়ে আত্মজীবনী প্রকাশ না করার কথা ভাবছেন সাইফ

ফিচার ডেস্ক

বছর আত্মজীবনী লেখার ঘোষণা দিয়েছিলেন বলিউড তারকা সাইফ আলী খান। তবে নতুন খবর হলো তিনি তার সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনা করছেন। আত্মজীবনীর ঘোষণা দেয়ার পরই তিনি ট্রোলের শিকার হয়েছিলেন। সে সময় ভারতের সাবেক ক্রিকেটার মনসুর আলী খান পতৌদি অভিনেত্রী শর্মিলা ঠাকুরের পুত্র সাইফ বলেছিলেন তিনি স্বজনতোষণের ভুক্তভোগী বিখ্যাত বাবা-মায়ের সন্তানের মন্তব্য নেটিজেনদের মধ্যে ট্রোলের বন্যা বইয়ে দিয়েছিল।

সাইফ আলী খান আত্মজীবনী লেখার ঘোষণা দেয়ার পর নেটিজেনরা উপহাসের সুরে বলেছেন, তিনি তার বইয়ে তার সংগ্রামের (!) বিবরণী দেবেন কিনা। সম্প্রতি সাইফ নিজেই জানিয়েছেন, বইটি প্রকাশ থেকে তিনি সরে আসতে পারেন। কারণ সত্য কাহিনী তুলে ধরার পর তিনি যে সমালোচনা-বিষোদ্গারের মুখোমুখি হবেন, তার মুখোমুখি হতে তিনি এখনই প্রস্তুত নন।

সাইফ বর্তমানে ধর্মশালায় ভূত পুলিশের শুটিং করছেন। সম্প্রতি এক পডকাস্টে হাজির হয়ে তিনি তার আত্মজীবনী নিয়ে বলেছেন। অনেকে আমাকে বইয়ের অগ্রগতির কথা জিজ্ঞেস করেছেন। কিন্তু আমার মনে হয় আমি শেষমেশ বইটি প্রকাশ করব না। কারণ বইটি লিখতে যথেষ্ট পরিশ্রম করতে হবে। তারপর আপনাকে সত্ভাবে লিখতে হবে। এতে অনেকে নাখোশ হতে পারেন। সাইফ বলেন, সত্যি বলতে আমি জানি না যে বইটি প্রকাশের পর আমাকে যেসব নিন্দামন্দ শুনতে হবে সেগুলো গ্রহণ করতে আমি শতভাগ প্রস্তুত আছি কিনা।

আমার বলতে খুব খারাপ লাগছে কিন্তু আমাকে বলতেই হবে, আমি মনে করি না যে সাধারণ পাঠকশুধু সাধারণ নয় বরং পড়ুয়াদের মধ্যে একটা বিরাট অংশ আছে যারা খুবই নেতিবাচক এবং তাদের সঙ্গে আমি আমার জীবন বিভিন্ন বিষয় শেয়ার করতে চাই না’—সাইফ বলেন। অবশ্য সাইফ জানিয়েছেন, এখনো তিনি বইয়ের ব্যাপারে নেতিবাচক কিছু প্রকাশকদের জানাননি।

আরেক বিবৃতিতে সাইফ আলী খান পরিষ্কার করেছেন, অবশ্যই আত্মজীবনী লেখার কাজ আমি এগিয়ে নিচ্ছি। তবে মনে হচ্ছে সততা আর আকর্ষণীয় করে তোলার মধ্যে ভারসাম্য রাখাটা কঠিন হবে।

১৯৯৩ সালে যশ চোপড়ার পরম্পরা ছবির মাধ্যমে সাইফ আলী খানের বলিউড অভিষেক ঘটে। সাইফ আত্মজীবনীতে তার জীবন, পরিবার, অভিনয়জীবন, উত্থান-পতন প্রভৃতি নিয়ে লিখতে চান। বইটি সামনের বছর প্রকাশিত হওয়ার কথা।

 

সূত্র: বলিউড হাঙ্গামা

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন