বুধবার | নভেম্বর ২৫, ২০২০ | ১০ অগ্রহায়ণ ১৪২৭

পণ্যবাজার

পাম অয়েলের সাপ্তাহিক বাজারে টানা পতন

বণিক বার্তা ডেস্ক

মালয়েশিয়ার বাজারে টানা পতনের মধ্য দিয়ে যাচ্ছে পাম অয়েলের সাপ্তাহিক দাম। ধারাবাহিকতায় সর্বশেষ সপ্তাহে দেশটিতে পণ্যটির সাপ্তাহিক দাম আগের সপ্তাহের তুলনায় প্রায় শতাংশ কমেছে। খাতসংশ্লিষ্টরা বলছেন, নভেম্বরের শুরু থেকে আন্তর্জাতিক বাজারে মালয়েশীয় পাম অয়েলের রফতানি চাহিদা কমতির দিকে রয়েছে। একই সঙ্গে আন্তর্জাতিক বাজারে অন্যান্য ভোজ্যতেলের দামও কমেছে। এসব কারণে মালয়েশীয় পাম অয়েলের সাপ্তাহিক বাজার পরিস্থিতিও রয়েছে নিম্নগামী। খবর বিজনেস রেকর্ডার স্টার অনলাইন।

বুরসা মালয়েশিয়া ডেরিভেটিভস এক্সচেঞ্জে সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসে ভবিষ্যতে সরবরাহ চুক্তিতে প্রতি টন পাম অয়েল হাজার ২৮৮ রিঙ্গিত (মালয়েশিয়ান মুদ্রা) বা ৮০৩ ডলার ৯১ সেন্টে বিক্রি হয়েছে, যা আগের দিনের তুলনায় দশমিক ৬২ শতাংশ কম। এর মধ্য দিয়ে সর্বশেষ সপ্তাহে মালয়েশিয়ার বাজারে পাম অয়েলের সাপ্তাহিক দাম আগের সপ্তাহের তুলনায় দশমিক শতাংশ কমেছে। টানা চার সপ্তাহ ধরে দেশটির বাজারে পাম অয়েলের দামে নিম্নগামী প্রবণতার দেখা মিলেছে।

কুয়ালালামপুরভিত্তিক ফিলিপ ফিউচার্সের ইনস্টিটিউশনাল সেলস ম্যানেজার মারসেলো কালত্রেরা জানান, চলতি মাসের প্রথম ২০ দিনে (-২০ নভেম্বর) মালয়েশিয়া থেকে আন্তর্জাতিক বাজারে পাম অয়েল রফতানি আগের মাসের একই সময়ের তুলনায় ১৬ শতাংশ কমেছে। মূলত শীত পড়তে শুরু করায় আমদানিকারকরা ভোজ্যতেলটির আমদানি কমাতে শুরু করেছেন। কেননা শীত মৌসুমে পাম অয়েল জমে যায়। ফলে ভোজ্যতেলটির চাহিদা থাকে কমতির দিকে। চলতি মাসের শুরু থেকে রফতানি কমায় মালয়েশিয়ায় পাম অয়েলের মজুদ বাড়ছে। এর জের ধরে ভোজ্যতেলটির সাপ্তাহিক বাজারে মন্দা ভাব দেখা দিয়েছে।

এদিকে সপ্তাহের সর্বশেষ সপ্তাহে চীনের ডালিয়ান কমোডিটি এক্সচেঞ্জে ভবিষ্যতে সরবরাহ চুক্তিতে সয়াবিন তেলের দাম আগের সপ্তাহের তুলনায় দশমিক শতাংশ কমে এসেছে। একই সময়ে এখানকার বাজারে পাম অয়েলের দাম আগের সপ্তাহের তুলনায় কমেছে দশমিক শতাংশ। মালয়েশিয়ার বাজারে পাম অয়েলের দরপতনে এটাও প্রভাবক হিসেবে কাজ করেছে।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন