বুধবার | নভেম্বর ২৫, ২০২০ | ১১ অগ্রহায়ণ ১৪২৭

পণ্যবাজার

রফতানিতে শীর্ষে ফেরার লড়াই

নতুন চালে স্বপ্ন বুনছে থাইল্যান্ড

বণিক বার্তা ডেস্ক

শুয়ানচম দেরুসামি শস্যের সঙ্গে তার সম্পর্ক তার খাদ্যাভ্যাসের চেয়েও অনেক গভীর। থাইল্যান্ডের চাই নাট রাইস রিসার্চ সেন্টারের গবেষক ধান বিশেষজ্ঞ হিসেবে ১৬ বছরের ক্যারিয়ারে তিনি ধানের চূড়ান্ত একটি জাত তৈরির চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। তবে তিনি কখনই ভাবেননি যে চূড়ান্ত জাতটি কোনো সরু চাল হবে।

১৯৮০-এর দশকের শুরু থেকে থাইল্যান্ড বিশ্বের বৃহত্তম চাল রফতানিকারক দেশ ছিল। বিভিন্ন জাতের জেসমিন সাদা চাল দিয়ে বৈশ্বিক বাজার দখল করে রেখেছে থাইল্যান্ড। বিশ্বজুড়ে মোট রফতানি হওয়া চালের এক-পঞ্চমাংশ রফতানি করা দেশটি ২০১৫ সালে সমস্যায় পড়ে। দেশটিকে হটিয়ে চাল রফতানিতে শীর্ষস্থান দখল করে নেয় ভারত। আর বছরের প্রথমার্ধে ভিয়েতনামের কাছে দ্বিতীয় অবস্থানটাও হারিয়ে তৃতীয় অবস্থানে চলে গেছে থাইল্যান্ড। ভিয়েতনামের সরু প্লাম্পার জাতগুলো চীন থেকে ফিলিপাইন পর্যন্ত এশিয়ার বৃহত্তম চালের গ্রাহকদের কাছে পছন্দনীয় হয়ে উঠেছে।


শুয়ানচম দেরুসামির উদ্ভাবনটি তার দেশের চাল শিল্পের সম্ভাব্য ভবিষ্যতের প্রতিনিধিত্ব করছে। প্রতিদিনের খাদ্যতালিকায় প্রয়োজনীয় হিসাবে বিশ্বের অর্ধেকেরও বেশি মানুষ চালের ওপর নির্ভরশীল। থাইল্যান্ডের ক্ষেত্রে চাল কেবল খাবারের জন্য নয়, এটা দেশটির সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ফসলও। এক-চতুর্থাংশ থাই পরিবার ফসলের আয়ের ওপর নির্ভর করে। দেশটির প্রায় অর্ধেক কৃষিজমি ধান উৎপাদনে নিবেদিত। এজন্য দেশটি এশিয়ার রাইস বোল বা এশিয়ার চালের ঝুড়ি উপাধি অর্জন করেছে।

সরু জাতের অভাব দেশটির চাল রফতানিতে নেতিবাচক প্রভাব ফেলেছে। খরার পর ২০ বছরের মধ্যে বছর দেশটি থেকে চালান সর্বনিম্ন হবে বলে পূর্বাভাস দেয়া হয়েছে। আশঙ্কা করা হচ্ছে ২০২০ সালে থাই চালের রফতানি আগের বছরের তুলনায় প্রায় ১৪ শতাংশ কমে যাবে।

দেরুসামির উদ্ভাবিত চালটি সরু লম্বা। চালকে আরডি৭৯ বা কোর খোর ৭৯ বলা হচ্ছে। আরডি মানে দেশটির রাইস ডিপার্টমেন্টকে বোঝানো হয়। আর সরকারি সংস্থাতেই কাজ করেন দেরুসামি। এক দশক আগে থেকে দেরুসামি জাতের স্ট্রেন নিয়ে কাজ শুরু করেছিলেন। নতুন ধানের স্টেন তৈরি, সরকারের অনুমোদন কৃষক পর্যায়ে চাষ শুরু করতে আনুমানিক ১০ বছর সময় লাগে। এখন ধানটি কৃষকদের চাষাবাদ বাড়ানোর জন্য চাপ দিচ্ছে।


তবে পূর্বাভাস দেয়ার চ্যালেঞ্জগুলোর বিষয়ে দেরুসামি বলেন, ভবিষ্যতের ভবিষ্যদ্বাণী করা কঠিন। তাই আমরা যতটা সম্ভব বিভিন্ন পরিস্থিতিতে বিভিন্ন জাত নিয়ে আসার চেষ্টা করি। এটা কখনই আমার মাথায় আসেনি যে অন্যান্য দেশ আরো বেশি বিক্রি শুরু না করা পর্যন্ত সরু চালের বাজার রয়েছে।

আরডি৭৯ হলো তাদের কাজ করা ১২টি জাতের মধ্যে একটি। সানিত জিতনুপং নামের একজন কৃষক আরডি৭৯ জাতের ধান চাষ শুরু করেছেন। এক দশকেরও বেশি সময় তিনি তার চার একর জমিতে মোটা জাতের ধান চাষ করে আসছেন। গত জুনে তিনি দেরুসামির স্ট্রেনের ধান চাষ শুরু করেন। তিনি বলেন, আমি শুনেছি বিশ্বজুড়ে প্রতিযোগিতা করতে আমাদের ধানের চাষ আরো বেশি বাড়ানোর প্রয়োজন। নতুন কিছু শুরু করা ঝুঁকিপূর্ণ। তবে আমার হারানোর কিছু নেই। যদিও ফসল কাটার আগে ভালোই মনে হচ্ছে। আগে গড়ে পাঁচ টনের তুলনায় এবার প্রায় ১০ টন ধান পাব বলে আশা করছি।


প্রায় চার মাস চাষের পর কৃষকরা ফসল কাটা শুরু করেন। এরপর তারা তাদের ধানগুলো মিলারদের কাছে বিক্রি করেন। মিলাররা শষ্যগুলো বাণিজ্যিকভাবে উপযুক্ত করতে চালে পরিণত করে খুচরা ব্যবসায়ী রফতানিকারকদের কাছে বিক্রি করেন।

থাই রাইস মিলস অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি ক্রিয়াংসক তপানানন বলেন, এখনো প্রচুর কৃষক সরু ধানের চাষ শুরু করেননি। তবে তাদের ধান চাষে রাজি করাতে খুব বেশি সময় লাগবে না। দেশীয় বাজার এরই মধ্যে চালকে গ্রহণ করেছে এবং শিগগিরই কৃষকরা ধান চাষে মনোযোগী হবেন। কারণ ধানটির রফতানি বাজার আছে।

উচ্চ ফলনশীল সরু জাত ছাড়াও আরডি৭৯ রোগ প্রতিরোধ খরা সহ্য করার জন্য ডিজাইন করা হয়েছে। অনেক ধানের জাতগুলো বেড়ে ওঠার সঙ্গে সঙ্গে পানিতে ডুবিয়ে রাখার প্রয়োজন হয়। এটা এমন একটি প্রক্রিয়া, যা বৈশ্বিক উষ্ণায়নে ভূমিকা রাখা মিথেন উৎপাদন করে। পরিবর্তে ধানটি সর্বদা পানিতে নিমজ্জিত রাখার প্রয়োজন হয় না। লম্বা দানার আরডি৭৯ জেসমিন চালের সমান। যদিও এটাতে জেসমিন চালের মতো সুগন্ধ নেই। রান্না করা হলে চাল তার স্বতন্ত্র আকার বজায় রাখে।

থাইল্যান্ডের ওরেগন পোর্টল্যান্ডের বিখ্যাত একটি রেস্তোরাঁর মালিক অ্যান্ডি রিকার। তিনি বলেন, আমি যেকোনো ধরনের চালের সঙ্গে থাই খাবার খাওয়ার কথা ভাবতে পারিনি। আমার জন্য চালের সঙ্গে ঘ্রাণ অনেক গুরুত্বপূর্ণ। এটা থাই খাবারের জন্য বিশেষত গুরুত্বপূর্ণ।

এজন্য দেরুসামি তার উদ্ভাবিত চালের জাতটি ঠিক করার পরিকল্পনা করছেন। তিনি চালের সঙ্গে সুগন্ধ যুক্ত করার কাজ করছেন। তিনি বলেন, আমি যখন সরু ধানের জাত নিয়ে কাজ শুরু করি, তখন স্বপ্নেও ভাবতে পারিনি যে এটা করতে পারব। চাল যদি দেশের রফতানি বৃদ্ধিতে অবদান রাখে, তাহলে আমি আরো গর্বিত হব। তবে এটা সরু জাতের থাই চালের শুরুমাত্র।

ব্যাংকক পোস্ট অবলম্বনে শিহাবুল ইসলাম

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন