রবিবার | নভেম্বর ২৯, ২০২০ | ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৭

খেলা

উয়েফা নেশন্স লিগ

রামোসের দুই পেনাল্টি মিস, শেষ চারে ফ্রান্স

ক্রীড়া ডেস্ক

ইউরোপে পুরুষ ফুটবলে সবচেয়ে বেশি আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলার রেকর্ড গড়ার দিন দু-দুটি পেনাল্টি মিস করলেন স্পেন অধিনায়ক সার্জিও রামোস। রিয়াল মাদ্রিদের এই পেনাল্টি স্পেশালিস্ট দু-দুবার স্পট কিক থেকে গোল করতে ব্যর্থ হওয়ায় নেশন্স লিগে তার দল ১-১ গোলে ড্র করে সুইজারল্যান্ডের সঙ্গে। শনিবার রাতে আরেক ম্যাচে বর্তমান শিরোপাধারী পর্তুগালকে ১-০ গোলে হারিয়ে ফাইনালসে (শেষ চার) উঠেছে ফ্রান্স।

শনিবার ক্যারিয়ারের ১৭৭ নম্বর আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলেছেন রামোস। এদিন তিনি টপকে যান ইতালির কিংবদন্তি গোলকিপার জিয়ানলুইগি বুফনকে। যদিও রেকর্ডের এ রাতটি তিনি ভুলেই যেতে চাইবেন পেনাল্টি মিসের কারণে।

রামোসের প্রথম পেনাল্টি সেভ করেন সুইজারল্যান্ড গোলকিপার ইয়ান সমার। দ্বিতীয় পেনাল্টিতে চিপ করে সমারের মাথার ওপর দিয়ে তুলে দিতে চেয়েও ব্যর্থ হন তিনি। 

এর আগে রিয়াল মাদ্রিদ ও স্পেনের হয়ে টানা ২৫টি পেনাল্টি শটে সফল হয়েছেন রামোস।

দুই পেনাল্টি মিস করলেও রামোসের ওপর আস্থা রাখছেন কোচ লুই এনরিক। ম্যাচ শেষে বার্সেলোনার সাবেক এই কোচ বলেন, পেনাল্টি শটে সার্জিওর সফলতা অতুলনীয়। যদি তৃতীয় পেনাল্টি পেতাম, তবু আমি তাকেই নিতে বলতাম।

রামোস দুবারই পেনাল্টি মিস করেন স্পেন ০-১ গোলে পিছিয়ে থাকার সময়। রেমো ফ্রিউলার ২৬ মিনিটে গোল করে এগিয়ে দিয়েছিলেন সুইজারল্যান্ডকে। হারতে বসা স্পেনের মান বাঁচিয়েছেন জেরার্ড মোরেনো। ৮৯ মিনিটে সার্জিও রেগুলিয়নের ক্রস থেকে গোলটি করেন তিনি। ৭৯ মিনিটে দ্বিতীয় হলুদ কার্ড দেখে মাঠ ছাড়েন সুইজারল্যান্ডের নিকো এলভেদি, এতে শেষ ১১ মিনিট দশজনকে নিয়ে খেলতে হয় স্বাগতিকদের। 

আগামী বছরের নেশন্স কাপের শেষ চারে উঠতে মঙ্গলবার ঘরের মাঠে জার্মানির বিপক্ষে অবশ্যই জিততে হবে স্পেনকে। শনিবার জার্মানি ৩-১ গোলে ইউক্রেনকে হারায়। জোড়া গোল করেন চেলসি ফরোয়ার্ড টিমো ভেরনার। অন্য গোলটি করেন লেরয় সানে। এ জয়ে শেষ চারে ওঠার সম্ভাবনা ধরে রাখল জার্মানরা। এজন্য মঙ্গলবার স্পেনের বিপক্ষ একটি পয়েন্ট পেতে হবে জোয়াকিম লুভের দলকে। 

‘এ৪’ গ্রুপে ৫ ম্যাচ শেষে জার্মানির ৯ পয়েন্ট, স্পেনের ৮।

এদিকে চেলসি মিডফিল্ডার এনগোলা কান্তের একমাত্র গোলে ভর দিয়ে পর্তুগালকে হারিয়ে শেষ চারে খেলা নিশ্চিত করেছে বর্তমান বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ফ্রান্স। ৫৩ মিনিটে কাছ থেকে নেয়া শটে গোলটি করেন তিনি। এর আগে অ্যান্থনি মার্শিয়ালের হেডে বল ক্রসবারে লেগে ফিরে আসে। পোস্টে লাগান পর্তুগিজ ডিফেন্ডার হোসে ফন্তে। 

ইরানি গ্রেট আলি দায়েইর রেকর্ড থেকে সাত গোল দূরে থাকা ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো ম্যাচজুড়েই প্রতিপক্ষের জন্য হুমকি হয়ে ছিলেন, যদিও তিনি গোল পাননি। তার সেরা প্রচেষ্টাটি বার ঘেঁষে চলে যায়।

এ জয়ে ‘এ৩’ গ্রুপে ১৩ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের শীর্ষে উঠে গেল ফ্রান্স। ১০ পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে পর্তুগাল। শনিবার আরেক ম্যাচে ক্রোয়েশিয়াকে ২-১ গোলে হারিয়ে অবনমন এড়ানোর লড়াইয়ে টিকে থাকল সুইডেন। 

এ১, এ২, এ৩ ও এ৪ থেকে শীর্ষ চারটি দলকে নিয়ে চূড়ান্ত পর্বে সেমিফাইনাল অনুষ্ঠিত হবে। 

সূত্র: বিবিসি  

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন