শুক্রবার | নভেম্বর ২৭, ২০২০ | ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৭

খবর

ওয়েবিনারে বক্তারা

কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের মডেল এখন পায়রা

নিজস্ব প্রতিবেদক

কয়লাভিত্তিক দেশের সবচেয়ে বড় বিদ্যুৎ প্রকল্প পায়রা তাপবিদ্যুৎকেন্দ্র ইতোমধ্যেই উৎপাদনে এসেছে। দেশের কয়লাভিত্তিক যতগুলো বিদ্যুৎ প্রকল্পের কাজ চলছে তার মধ্যে পায়রাই প্রথম উৎপাদনে এসেছে। আধুনিক, পরিবেশ উপযোগী কয়লাভিত্তিক বড় বিদ্যুৎকেন্দ্র হিসেবে পায়রা অন্যতম মডেল হিসেবে দাঁড়িয়েছে বলে মনে করেন বিশেষজ্ঞরা।

গতকাল অনলাইনে আয়োজিত পায়রা বিদ্যুৎকেন্দ্র: সময়মতো প্রকল্প বাস্তবায়নের উদাহরণ শীর্ষক ওয়েবিনার আয়োজন করা হয়। সেমিনারে অংশ নেয়া অতিথিরা এসব কথা বলেন। এনার্জি অ্যান্ড পাওয়ার পত্রিকা আয়োজিত সেমিনারে প্রধান অতিথি ছিলেন বিদ্যুৎ, জ্বালানি খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ।

সেমিনারের আলোচনায় প্রতিমন্ত্রী বলেন, পায়রায় তাপবিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণ নিয়ে বড় একটি গোষ্ঠী বিরোধিতা করেছিল। তারা সাধারণ জনগণের জীবন ঝুঁকি, পরিবেশের ঝুঁকিসহ নানা বিষয় নেতিবাচকভাবে উপস্থাপন করেছিল। আমরা সে বিষয়গুলোকে চ্যালেঞ্জ হিসেবে নিয়ে কাজ করেছি। লক্ষ্যস্থির রেখে একাগ্রচিত্তে নেতৃত্ব দিতে পারলে যে সাফল্য দ্রুত আসে তার অনন্য উদাহরণ পায়রা তাপবিদ্যুৎ প্রকল্প। মাত্র ২১ মাসের ব্যবধানে এত বড় একটি প্রকল্প আমরা সম্পন্ন করতে পেরেছিএটা অত্যন্ত আনন্দের গর্বের। বিদ্যুতের বড় বড় প্রকল্পের মধ্যে পায়রা দ্রুত উৎপাদনে এসেছে।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, আত্মবিশ্বাস থাকলে সাফল্য আসবেই। বিদ্যুৎ খাত তার প্রকৃষ্ট উদাহরণ। নতুন প্রজন্মদের আত্মবিশ্বাস বাড়াতে পায়রা প্রকল্পে নিয়ে যাওয়া যেতে পারে। এসব দেখে তারা বাংলাদেশ নিয়ে আরো বড় আকারে চিন্তা করবে।

বিদ্যুৎ খাতে বিদেশী বিনিয়োগের কথা উল্লেখ করে প্রতিমন্ত্রী বলেন, চীন, জাপান বাংলাদেশের বড় বড় প্রকল্পে বিনিয়োগ করেছে। মাতারবাড়ী, রামপালসহ বিভিন্ন প্রকল্পে বিনিয়োগ করেছে তারা। এসব প্রকল্পে বিদেশী মোট আট হাজার কর্মী কাজ করেছেন।

তাপবিদ্যুৎকেন্দ্রগুলোতে দেশীয় কয়লা ব্যবহারের কথা তুলে ধরে জ্বালানি বিশেষজ্ঞ ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক তামিম বলেন, দেশে কয়লাভিত্তিক বড় বড় বিদ্যুৎকেন্দ্র হচ্ছে। এসব কেন্দ্রের জন্য দেশের বাইরে থেকে কয়লা আমদানি করা হচ্ছে। এতে বিদ্যুৎ উৎপাদনে খরচ বাড়ছে। দেশে উৎপাদিত কয়লা এসব বিদ্যুৎকেন্দ্রের জ্বালানি হিসেবে সরবরাহ করা গেলে তাতে ট্রান্সপোর্টেশন কস্ট কমে আসবে, বিদ্যুৎ উৎপাদনও সাশ্রয়ী হবে।

সেমিনারে পায়রা বিদ্যুৎকেন্দ্রের অংশীদার নর্থ ওয়েস্ট পাওয়ার জেনারেশন কোম্পানি লিমিটেডের (এনডব্লিউপিজিসিবি) প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা প্রকৌশলী এএম খোরশেদুল আলম বলেন, পায়রা তাপবিদ্যুৎকেন্দ্র দ্রুত সময়ে উৎপাদনে এসেছে শুধু প্রকল্পে সমন্বয়টা সঠিক থাকার কারণে।

এনার্জি অ্যান্ড পাওয়ার পত্রিকার সম্পাদক মোল্লাহ মো. আমজাদ হোসেনের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মাঝে পাওয়ার সেলের মহাপরিচালক মোহাম্মদ হোসেন, অস্ট্রেলিয়ার আরএমআইটি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ফিরোজ আলম, বুয়েটের সহযোগী অধ্যাপক কাজী বায়োজিত কবির নর্থ ওয়েস্ট পাওয়ার জেনারেশন কোম্পানির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ইঞ্জিনিয়ার এএম খোরশেদুল আলম বক্তব্য রাখেন।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন