বুধবার | নভেম্বর ২৫, ২০২০ | ১০ অগ্রহায়ণ ১৪২৭

প্রথম পাতা

আরো ৭ হাজার কোটি টাকা বাড়ল বড় শিল্পের প্রণোদনা

নিজস্ব প্রতিবেদক

করোনাভাইরাসে ক্ষতিগ্রস্ত বৃহৎ শিল্প সেবা খাতের জন্য প্রথমে ৩০ হাজার কোটি টাকার প্রণোদনা প্যাকেজ ঘোষণা দেয়া হয়েছিল। পরে প্যাকেজের সঙ্গে যুক্ত করা হয় আরো হাজার কোটি টাকা। বড়দের জন্য ঘোষিত প্যাকেজে এবার নতুন করে আরো হাজার কোটি টাকা যুক্ত করল বাংলাদেশ ব্যাংক। গতকাল কেন্দ্রীয় ব্যাংক থেকে -সংক্রান্ত একটি প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়। ফলে সব মিলিয়ে দেশের বৃহৎ শিল্প সেবা খাতের জন্য ঘোষিত প্রণোদনা প্যাকেজের পরিমাণ দাঁড়াল ৪০ হাজার কোটি টাকা।

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের ব্যাংকিং প্রবিধি নীতি বিভাগ থেকে গতকাল জারি করা প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, নভেল করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে বাংলাদেশে সম্ভাব্য অর্থনৈতিক প্রভাব মোকাবেলায় দেশের অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড পুনরুজ্জীবিতকরণ, শ্রমিক-কর্মচারীদের কাজে বহাল উদ্যোক্তাদের প্রতিযোগিতার সক্ষমতা অক্ষুণ্ন রাখার জন্য স্বল্প সুদে ঋণ সুবিধা প্রদানের লক্ষ্যে প্রধানমন্ত্রী গত এপ্রিল ক্ষতিগ্রস্ত শিল্প সেবা খাতের প্রতিষ্ঠানগুলোর জন্য আর্থিক সহায়তা প্যাকেজ ঘোষণা করেন। প্রতিষ্ঠানগুলোর জন্য চলতি মূলধন হিসেবে ঋণ সুবিধা প্রদানে এর আওতায় ৩০ হাজার কোটি টাকার প্যাকেজ ঘোষণা করা হয়। পরবর্তী সময়ে সচল রফতানিমুখী শিল্পপ্রতিষ্ঠানে কর্মরত শ্রমিক-কর্মচারীদের জুলাইয়ের বেতন-ভাতা প্রদানের জন্য ৩০ হাজার কোটি টাকার আর্থিক সহায়তা প্যাকেজ হাজার কোটি টাকা বাড়িয়ে ৩৩ হাজার কোটি টাকায় উন্নীত করা হয়। প্যাকেজটি আরো হাজার কোটি টাকা বাড়িয়ে ৪০ হাজার কোটি টাকা করা হয়েছে।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, প্যাকেজের আওতায় বর্ধিত হাজার কোটি টাকা বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চল কর্তৃপক্ষ (বেজা), বাংলাদেশ রফতানি প্রক্রিয়াকরণ অঞ্চল কর্তৃপক্ষ (বেপজা) বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষে অবস্থিত , বি সি টাইপ শিল্পপ্রতিষ্ঠানগুলোর চলতি মূলধন হিসেবে ঋণ সুবিধা প্রদানের জন্য প্রযোজ্য হবে। ঋণের সুদহার হবে শতাংশ, যার মধ্যে সরকার দশমিক ৫০ শতাংশ ভর্তুকি বাবদ প্রদান করবে। এক্ষেত্রে বিআরপিডি সার্কুলার নং-০৮/২০২০, বিআরপিডি সার্কুলার লেটার নং-৫০/২০২০ -সংশ্লিষ্ট সার্কুলার লেটারের শর্তগুলো অনুসরণীয় হবে।

বর্ধিত সুবিধা থেকে চলতি মূলধন হিসেবে ঋণ সুবিধা প্রদানসংক্রান্ত কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে সম্পাদনের জন্য আগামী নভেম্বর বিকাল ৪টার মধ্যে বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলোকে যাবতীয় তথ্য ব্যাংকিং প্রবিধি নীতি বিভাগে পাঠাতে বলেছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

বড়দের জন্য ঘোষিত ৩৩ হাজার কোটি টাকার প্রণোদনা প্যাকেজের বেশির ভাগ ঋণ এরই মধ্যে বিতরণ করা হয়েছে। ঋণ হিসেবে দেশের তফসিলি ব্যাংকগুলোর বিতরণ করা প্রণোদনার অর্থের সুদহার নির্ধারণ করা হয়েছে শতাংশ। সুদের সাড়ে শতাংশ পরিশোধ করবে সরকার। বাকি সাড়ে শতাংশ ঋণগ্রহীতাকে পরিশোধ করতে হবে। প্রণোদনা তহবিল থেকে প্রাপ্ত ঋণের অর্থ প্রতিষ্ঠানের চলতি মূলধন হিসেবে ব্যবহার করা যাবে।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন