মঙ্গলবার | নভেম্বর ২৪, ২০২০ | ৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৭

খবর

অচিরেই ভারতে চালু হবে পর্যটক ভিসা: হাইকমিশনার

নিজস্ব প্রতিবেদক

বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে সম্পাদিত এয়ার বাবল চুক্তির আওতায় পর্যটক ছাড়া অন্য সব শ্রেণিতে যাত্রী পরিবহন শুরু হয়েছে। আর খুব শিগগিরই পর্যটকদের জন্য ভারতীয় ভিসা দেওয়া হবে। গতকাল (বুধবার) এয়ার বাবলের আওতায় চেন্নাই ও কলকাতা রুটে ফ্লাইট শুরুর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এ তথ্য জানান ঢাকায় নিযুক্ত ভারতীয় হাইকমিশনার বিক্রম দোরাইস্বামী।

জানা গেছে, ইউএস-বাংলা এয়ারলাইনস গতকাল বুধবার থেকে ঢাকা-চেন্নাই-ঢাকা, চট্টগ্রাম-চেন্নাই-চট্টগ্রাম ও ঢাকা-কলকাতা-ঢাকা রুটে বাংলাদেশ ও ভারতের সাথে এয়ার বাবল চুক্তির অধীনে সিডিউল ফ্লাইট পরিচালনা শুরু করেছে। হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের টার্মিনাল ভবনে আনুষ্ঠানিকভাবে ফ্লাইট দু’টির কার্যক্রম উদ্বোধন করা হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিক্রম দোরাইস্বামী। এছাড়া বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- বাংলাদেশ বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান এয়ার ভাইস মার্শাল এম মফিদুর রহমান। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের চিফ এক্সিকিউটিভ অফিসার ক্যাপ্টেন শিকদার মেজবাহউদ্দিন আহমেদ।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিক্রম দোরাইস্বামী বলেন, এয়ার বাবল বাস্তবায়নের জন্য দুই দেশের বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষকে ধন্যবাদ জানাই। এখন পর্যন্ত মাত্র ১৪টি দেশের সঙ্গে ভারত এয়ার বাবল চুক্তি সই করেছে। বাংলাদেশ ও ভারতের জনগণের মধ্যে যে বন্ধুত্ব সেটি দুই দেশের সম্পর্কের ভিত্তি। দুই দেশের জনগণের জন্য এক দেশ থেকে অন্য দেশে চলাচলের সুযোগ করে দেওয়া, এই বন্ধুত্বকে এগিয়ে নেওয়ার বড় উপাদান।

তিনি বলেন, করোনাভাইরাসের মতো মহামারীর সময়ে স্বাস্থ্যবিধি মেনে আকাশপথে যাত্রী পরিবহন শুরু হয়েছে। ভারতীয় ভিসা সেবা সর্বোচ্চ পর্যায়ে ফিরিয়ে আনতে হাইকমিশনের পক্ষ থেকে যথাসাধ্য চেষ্টা করা হবে। বাংলাদেশ থেকে যারা ভারত যেতে আগ্রহী তারা যাতে যেতে পারেন সেই চেষ্টা করছি। আমরা শিগগির পর্যটক ভিসা চালু করতে যাচ্ছি। এই মুহূর্তে পর্যটক ছাড়া অন্যান্য সব শ্রেণিতে ভারতীয় ভিসা চালু রয়েছে।

পর্যটক ভিসা কবে থেকে চালু হবে জানতে চাইলে বিক্রম দোরাইস্বামী বলেন, এ মুহূর্তে ভিসার যথেষ্ট চাহিদা রয়েছে। আশা করছি পর্যটক ভিসা দ্রুত চালু হবে।

উল্লেখ্য, গতকাল থেকে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইনস এয়ার বাবল চুক্তির অধিনে কভিড-১৯ কালীন সময়ে সকল ধরনের স্বাস্থ্যবিধি মেনে দুদেশের রাষ্ট্রীয় সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ইউএস-বাংলা এয়ারলাইনস ঢাকা থেকে চেন্নাই ও কলকাতা ও চট্টগ্রাম থেকে চেন্নাই রুটে ফ্লাইট পরিচালনা শুরু করেছে।

সোমবার ব্যতিত সপ্তাহের ছয়দিন ইউএস-বাংলা এয়ারলাইনস ঢাকা থেকে সকাল ৯টা ৪৫ মিনিটে কলকাতার উদ্দেশ্যে ছেড়ে যাবে এবং স্থানীয় সময় সকাল ১০টা ১৫ মিনিটে কলকাতায় অবতরণ করবে। এছাড়া কলকাতা থেকে স্থানীয় সময় সকাল ১১টায় ছেড়ে আসবে এবং ঢাকার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে দুপুর ১২টা ৩০ মিনিটে অবতরণ করবে।

ইউএস-বাংলা এয়ারলাইনস প্রতি সোম, বুধ, শুক্র ও শনিবার সকাল ১০টা ৩০ মিনিটে ঢাকা থেকে চেন্নাইয়ের উদ্দেশ্যে ছেড়ে যাবে এবং স্থানীয় সময় দুপুর ১২টা ৪০ মিনিটে চেন্নাইয়ে অবতরণ করবে। একই দিন দুপুর ১টা ৩০ মিনিটে চেন্নাই থেকে ঢাকার উদ্দেশ্যে ছেড়ে আসবে এবং বিকাল ৪টা ৪০ মিনিটে ঢাকায় অবতরণ করবে। এছাড়া প্রতি মঙ্গল, বৃহস্পতি ও রবিবার ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম হয়ে চেন্নাই ও চেন্নাই থেকে চট্টগ্রাম হয়ে ঢাকায় ফ্লাইট পরিচালনা করবে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইনস।

বর্তমানে ইউএস-বাংলার বিমান বহরে ৪টি বোয়িং ৭৩৭-৮০০, ছয়টি ব্র্যান্ডনিউ এটিআর৭২-৬০০সহ মোট তেরটি এয়ারক্রাফট রয়েছে। চেন্নাই ও কলকাতা ছাড়া ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স বর্তমানে মাস্কাট, দোহা, সিঙ্গাপুর, কুয়ালালামপুর, গুয়াংজু রুটে ফ্লাইট পরিচালনা করছে। এছাড়া অভ্যন্তরীণ রুট ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, সিলেট, যশোর, সৈয়দপুর, রাজশাহী, বরিশালে  প্রতিদিন ফ্লাইট পরিচালনা করছে।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন