মঙ্গলবার | নভেম্বর ২৪, ২০২০ | ৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৭

প্রথম পাতা

মহামারী বিপর্যস্ত অঙ্গরাজ্যে সমর্থন বৃদ্ধির চেষ্টা ট্রাম্পের

বণিক বার্তা ডেস্ক

মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের সময় বাকি এক সপ্তাহেরও কম। মহামারীর ব্যাপক প্রাদুর্ভাবে বর্তমান প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের নির্বাচনে জয়লাভের পথ ক্রমেই কঠিন হয়ে পড়ছে। বিশেষ করে মহামারী মোকাবেলায় তার গৃহীত পদক্ষেপ গোটা যুক্তরাষ্ট্রেই ব্যাপক সমালোচিত হয়েছে। অবস্থায় মহামারীর ব্যাপক প্রাদুর্ভাবে বিপর্যস্ত অঙ্গরাজ্যগুলোয় নির্বাচনী প্রচারণা চালিয়ে নিজের সমর্থন বাড়ানোর প্রয়াস চালাচ্ছেন তিনি।

যুক্তরাষ্ট্রে বর্তমানে সংক্রমণের অন্যতম বড় কেন্দ্র হয়ে দাঁড়িয়েছে উইসকনসিন অঙ্গরাজ্য। মঙ্গলবার এখানকার ওয়েস্ট সালেমে এক নির্বাচনী সমাবেশে যোগ দেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। ওইদিনই অঙ্গরাজ্যটিতে সংক্রমণ শনাক্ত মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ায় রেকর্ড সর্বোচ্চে। যদিও ট্রাম্পের সমাবেশে আগতদের দেখে মনে হয়নি ওই অঞ্চলে মহামারীর প্রাদুর্ভাব মারাত্মক চলছে। সামাজিক দূরত্বের বালাই না রেখে জনসমাবেশে আগতরা দাঁড়িয়ে ছিলেন গা ঘেঁষাঘেঁষি করে। অধিকাংশের মুখে কোনো মাস্ক ছিল না।

উইসকনসিনের জনবল সংকটে ভোগা হাসপাতালগুলোয় বর্তমানে করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বাড়ছে। এরই মধ্যে সেখানে জনসমর্থন পুনরুদ্ধারের তাগিদ থেকে ধরনের একটি সমাবেশ নিয়ে সমালোচনায় মুখর হয়ে উঠেছে মার্কিন গণমাধ্যমগুলো। তারা বলছে, ডোনাল্ড ট্রাম্প এখন মহামারী বিপর্যস্ত অঙ্গরাজ্যগুলোয় এমন একটি আবহ তৈরির চেষ্টা করছেন, যাতে মনে হবে মহামারীর প্রাদুর্ভাব এখন শেষ।

মঙ্গলবারেই করোনা বিপর্যস্ত আরো দুটি অঙ্গরাজ্যে ট্রাম্পের নির্বাচনী সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। এগুলো হলো মিশিগান নেব্রাস্কা। তিনটি অঙ্গরাজ্যে একই দিনে সমাবেশ করার পেছনে বিশেষ এক কূটকৌশল রয়েছে ট্রাম্পের। তিনি হয়তো এটাই প্রমাণ করতে চাইছেন যে যুক্তরাষ্ট্রে মহামারীর প্রকোপ শেষ হয়ে গেছে। কিন্তু বাস্তবে দেশটিতে সংক্রমণ পরিস্থিতি প্রতিনিয়ত খারাপ হচ্ছে।

উইসকনসিনে বক্তব্য রাখার সময় ট্রাম্প অভিযোগ করেন, গণমাধ্যমগুলো কভিড-১৯ মহামারী পরিস্থিতি নিয়ে অতিরঞ্জিত খবর প্রকাশ করছে। অঙ্গরাজ্যটির ডেমোক্রেটিক পার্টির গভর্নর টনি ইভারস ট্রাম্পের এমন মন্তব্যের তীব্র বিরোধিতা করে বলেন, প্রকৃত সত্য লুকানোর কোনো সুযোগই নেই। আমরা এখন চরম সংকটের মধ্যে রয়েছি। আপনি আপনার পরিবার প্রচণ্ড ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন