বৃহস্পতিবার | নভেম্বর ২৬, ২০২০ | ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৭

শিল্প বাণিজ্য

দুই বিদ্যুৎকেন্দ্র অধিগ্রহণ

ইউনাইটেড পাওয়ারের রাজস্ব আয় বেড়েছে তিন গুণেরও বেশি

নিজস্ব প্রতিবেদক

চলতি বছরের সেপ্টেম্বরে চট্টগ্রাম জামালপুরের ৪১৫ মেগাওয়াটের দুটি বিদ্যুৎকেন্দ্রের ৯৯ শতাংশ শেয়ার অধিগ্রহণের ঘোষণা দিয়েছিল পুঁজিবাজারের আরেক তালিকাভুক্ত বিদ্যুৎ খাতের কোম্পানি ইউনাইটেড পাওয়ার জেনারেশন অ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেড (ইউপিজিডিসিএল) নতুন দুটি বিদ্যুৎকেন্দ্র অধিগ্রহণের ফলে চলতি ২০২০-২১ হিসাব বছরের প্রথম প্রান্তিকে (জুলাই-সেপ্টেম্বর) ইউপিজিডিসিএলের রাজস্ব আয় আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় তিন গুণের বেশি বেড়েছে। আর সময়ে কোম্পানির কর-পরবর্তী মুনাফাও বেড়েছে প্রায় দ্বিগুণ।

অধিগ্রহণ করা বিদ্যুৎকেন্দ্র দুটির মধ্যে চট্টগ্রামের আনোয়ারার কেন্দ্রটির সক্ষমতা ৩০০ মেগাওয়াট আর জামালপুরের কেন্দ্রটির সক্ষমতা ১১৫ মেগাওয়াট। কেন্দ্র দুটি অধিগ্রহণের সময় এর মোট সম্পদমূল্য ছিল হাজার ৫৩৫ কোটি টাকা। কেন্দ্র দুটির নিট সম্পদমূল্য (এনএভি) ৫৩৫ কোটি টাকা এবং রিটেইন আর্নিংস রয়েছে ৫১৫ কোটি টাকার। ফলে কেন্দ্র দুটি অধিগ্রহণে ইউপিজিডিসিএলের প্রকৃতপক্ষে ২০ কোটি টাকা ব্যয় হয়েছে।

গতকাল অনুষ্ঠিত সভায় ৩০ জুন সমাপ্ত ২০২০ হিসাব বছরের নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন এবং ২০২০-২১ হিসাব বছরের প্রথম প্রান্তিকের অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুমোদন করেছে ইউপিজিডিসিএলের পর্ষদ। সর্বশেষ সমাপ্ত ২০১৯-২০ হিসাব বছরে কোম্পানিটির রাজস্ব আয় হয়েছে হাজার কোটি টাকা। যেখানে এর আগের হিসাব বছরে রাজস্ব আয় হয়েছিল হাজার ১২৫ কোটি টাকা। আর আলোচ্য হিসাব বছরে কোম্পানিটির কর-পরবর্তী নিট মুনাফা দাঁড়িয়েছে ৬০৮ কোটি টাকায়। যেখানে এর আগের হিসাব বছরে মুনাফা হয়েছিল ৭৮৬ কোটি টাকা। ২০১৯-২০ হিসাব বছরে কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি আয় হয়েছে (ইপিএস) ১১ টাকা ২৬ পয়সা, যা এর আগের হিসাব বছরে ছিল ১৪ টাকা ৬২ পয়সা। সর্বশেষ সমাপ্ত হিসাব বছরে কোম্পানিটি শেয়ারহোল্ডারদের ১৪৫ শতাংশ নগদ ১০ শতাংশ স্টক লভ্যাংশ প্রদানের ঘোষণা দিয়েছে।

এদিকে চলতি ২০২০-২১ হিসাব বছরের প্রথম প্রান্তিকে ইউপিজিডিসিএলের রাজস্ব আয় হয়েছে ৯২২ কোটি টাকা। যেখানে এর আগের বছরের একই সময়ে রাজস্ব আয় হয়েছিল ২৭৭ কোটি টাকা। আর আলোচ্য সময়ে কোম্পানিটির কর-পরবর্তী নিট মুনাফা হয়েছে ২৯৮ কোটি টাকা। যেখানে এর আগের বছরের একই সময়ে মুনাফা হয়েছিল ১৬৫ কোটি টাকা। চলতি হিসাব বছরের প্রথম প্রান্তিকে কোম্পানিটির ইপিএস দাঁড়িয়েছে টাকা ৫৫ পয়সায়। যেখানে এর আগের বছরের একই সময়ে ইপিএস ছিল টাকা শূন্য পয়সা। ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০ শেষে কোম্পানিটির এনএভিপিএস দাঁড়িয়েছে ৬২ টাকা ৪০ পয়সা।

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) গতকাল ইউনাইটেড পাওয়ার শেয়ারের সর্বশেষ দর ছিল ২৯০ টাকা। গত এক বছরে শেয়ারটির সর্বনিম্ন সর্বোচ্চ দর ছিল যথাক্রমে ১৯৪ টাকা ৮০ পয়সা ৩৩৫ টাকা ৯০ পয়সা।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন