মঙ্গলবার | অক্টোবর ২০, ২০২০ | ৫ কার্তিক ১৪২৭

আন্তর্জাতিক ব্যবসা

ব্লুমবার্গ বিলিয়নেয়ার ইনডেক্স

সম্পদ বেড়েছে ইউরোপের শীর্ষ ধনী আরনল্টের

বণিক বার্তা ডেস্ক

বিলাসবহুল পণ্যের বিক্রি বেড়ে যাওয়ায় ফরাসি ব্যবসায়ী মুঘল ইউরোপের শীর্ষ ধনী বার্নার্ড আরনল্টের সম্পদ বেড়েছে। ব্লুমবার্গ বিলিয়নেয়ার ইনডেক্সে তিনি রয়েছেন পাঁচ নম্বরে। খবর ব্লুমবার্গ।

গত সপ্তাহে আরনল্টের সম্পদমূল্য বেড়েছে ৮৩০ কোটি ডলার। বিশেষ করে তার কোম্পানি এলভিএমএইচ বছরের তৃতীয় প্রান্তিকে অপ্রত্যাশিত মুনাফা অর্জন করেছে। ব্লুমবার্গ বিলিয়নেয়ার ইনডেক্সের তথ্যমতে, তৃতীয় প্রান্তিকের ব্যবসায়িক সাফল্যে পঞ্চম সেন্টিবিলিয়নেয়ার (ন্যূনতম ১০০ বিলিয়ন ডলারের সম্পদ রয়েছে) হওয়ার কাছাকাছি পর্যায়ে পৌঁছে গেছেন আরনল্ট।

বর্তমানে বিশ্বে চারজন সেন্টিবিলিয়নেয়ার রয়েছেন। তারা হলেন জেফ বেজোস, বিল গেটস, ইলন মাস্ক মার্ক জাকারবার্গ।

যদিও এর আগেও সেন্টিবিলিয়নেয়ার ছিলেন আরনল্ট। জানুয়ারিতে ১০ হাজার কোটি ডলার ছাড়িয়ে তার সম্পদমূল্য দাঁড়ায় ১০ হাজার ৯৪০ কোটি ডলার। তবে কভিড-১৯ মহামারীর প্রাদুর্ভাব তার ফলে সৃষ্ট অর্থনৈতিক সংকটের নেতিবাচক প্রভাব পড়ে আরনল্টের ব্যবসায়। জানুয়ারির পরের দুই মাসে তার সম্পদমূল্য ৫০ শতাংশ কমে যায়। তখন লকডাউনের কারণে অভিজাত পণ্যের শোরুমগুলো বন্ধ থাকে। এতে আরনল্টের কোম্পানির আয়ও অনেকখানি কমে যায়।

সেই অবস্থা থেকে বিপুল বিক্রমে ঘুরে দাঁড়ালেন তিনি। বিশেষ করে, কভিড-১৯-এর সংক্রমণ খানিকটা কমতে শুরু করলে লুই ভুটন, মোয়েত অ্যান্ড শ্যানডন শ্যাম্পেইন গিভেঞ্চির মতো বিলাসবহুল পণ্যের বিক্রি আবার বাড়তে থাকে। তাতে বাড়তে থাকে আরনল্টের সম্পদমূল্যও।

অবশ্য সাম্প্রতিক সাফল্যের পরও এক বছর আগের তুলনায় আরনল্টের নিট সম্পদ কমেছে ৮৭০ কোটি ডলার, ব্লুমবার্গের হিসাব অনুযায়ী যা পঞ্চম বৃহৎ লোকসান। ব্লুমবার্গ বিলিয়নেয়ার ইনডেক্স অনুযায়ী, বিশ্বের শীর্ষ ৫০০ ধনীর সম্পদ গত বছরের চেয়ে বেড়েছে ৯৮ হাজার ৬০০ কোটি ডলার বা ১৬ দশমিক ৮৯ শতাংশ।

ব্লুমবার্গের এই ইনডেক্স প্রতিদিনই হালনাগাদ করা হয়। গতকাল পর্যন্ত ১৯ হাজার ৩০০ কোটি ডলারের সম্পদ নিয়ে বিশ্বের শীর্ষ ধনীর আসন ধরে রেখেছেন অ্যামাজনের জেফ বেজোস। এরপর ১২ হাজার ৬০০ কোটি ডলার নিয়ে বিল গেটস দুইয়ে, ১০ হাজার ৬০০ কোটি ডলার নিয়ে ইলন মাস্ক তিনে ১০ হাজার ১০০ কোটি ডলার নিয়ে মার্ক জাকারবার্গ চারে অবস্থান করছেন।

ভারতের শীর্ষ ব্যবসায়ী মুকেশ আম্বানি হাজার ৩৫০ কোটি ডলারের সম্পদ নিয়ে ছয় নম্বরে অবস্থান করছেন। এরপর সাতে ওয়ারেন বাফেট ( হাজার ৩০ কোটি), আটে স্টিভ বলমার ( হাজার ৯৩০ কোটি), নয়ে ল্যারি পেজ ( হাজার ৪৮০ কোটি) দশে সের্গেই ব্রিন ( হাজার ২৫০ কোটি ডলার) রয়েছেন। ইনডেক্সের শীর্ষ দশে থাকা আটজন আমেরিকান এবং এই আটজনই প্রযুক্তি ব্যবসায় বাজিমাত করেছেন।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন