শুক্রবার | অক্টোবর ৩০, ২০২০ | ১৫ কার্তিক ১৪২৭

টেলিকম ও প্রযুক্তি

ফেসবুকে বাংলাক্যাটের ইনস্ট্যান্ট গেম ‘বাংলাদেশ আনলকড’

নিজস্ব প্রতিবেদক

বাংলাক্যাট প্রথম করপোরেট প্রতিষ্ঠান হিসেবে ফেসবুকে ইনস্ট্যান্ট গেম বাংলাদেশ আনলকড চালু করেছে। একটি মহৎ সামাজিক উদ্দেশ্যকে সামনে রেখে বাংলাক্যাট গেম তৈরি করেছে। বাংলাট্র্যাক লিমিটেড যুক্তরাষ্ট্রের ক্যাটারপিলার ইনকরপোরেশন অনুমোদিত ডিলার, যা বাংলাদেশে বাংলাক্যাট ব্র্যান্ড নামে পরিচিত।

বাংলাদেশের আচার সংস্কৃতি, ইতিহাস, ভাষা, অর্থনীতি, সমাজ ব্যবস্থা, খেলাধুলাসহ ঐতিহাসিক ঘটনা সম্পর্কে তরুণদের উদ্বুদ্ধ করতে বাংলাক্যাটের বিশেষ উদ্যোগ। উদ্যোগের স্লোগান রাখা হয়েছে দেশকে জানুন, নিজেকে চিনুন

বাংলাক্যাটের ভাষ্যে, সোস্যাল মিডিয়া যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক আমাদের জীবনে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। প্লাটফর্মের সর্বোত্তম ব্যবহার করার সুযোগ নিয়েছে বাংলাক্যাট। বাংলাক্যাট সর্বদা কার্যকর উপায়ে নতুন প্রযুক্তির ব্যবহার নিশ্চিত করে বিভিন্ন কর্ম সম্পাদন প্রবর্তনে বিশ্বাস করে। তাই বাংলাক্যাট বাংলাদেশের জনসাধারণকে দেশীয় সংস্কৃতি, ইতিহাস, ভাষা, স্থান, অর্জন, অর্থনীতি সমাজ ব্যবস্থা, খেলাধুলা সমসাময়িক প্রেক্ষাপটের খবর জানানোর জন্য সর্বাধিক জনপ্রিয় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে একটি গেমিং প্লাটফর্ম উন্মোচন করেছে।

বাংলাদেশ আনলকড গেমটি ফেসবুক প্লাটফর্মে চালু করা হয়েছে। কাজেই যারা অংশগ্রহণ করতে আগ্রহী, তাদের গেমটি খেলতে অবশ্যই জেনুইন ফেসবুক প্রোফাইল বা অ্যাকাউন্ট থাকতে হবে। এটি কোনো অ্যাপ নয়, তাই ডাউনলোড করার কোনো ঝামেলা নেই এবং বিনা মূল্যে খেলা যাবে। গেমিং লিঙ্ক বাংলাক্যাট অফিশিয়াল ফেসবুক পেজে মিলবে। পাশাপাশি ফেসবুকে বাংলাদেশ আনলকড অনুসন্ধান করেও গেমটি পাওয়া যাবে। গেমটি খেলতে গিয়ে কেউ যদি মন্থর গতি প্রযুক্তিগত সমস্যার মুখোমুখি হয় তা সম্পূর্ণ নির্ভর করবে তাদের ইন্টারনেট সংযোগের ওপর।

বিবৃতিতে বাংলাক্যাট জানায়, বাংলাদেশ আনলকড নামের প্রশ্নোত্তরভিত্তিক ফেসবুক গেম প্রত্যেকের জ্ঞানকে পরীক্ষার মধ্যে ফেলবে এবং উপলব্ধি করতে বাধ্য করবেআমরা কি একজন প্রকৃত বাংলাদেশী হতে পেরেছি? কাজেই খেলায় অংশগ্রহণ করে দেশকে জানতে নিজের জ্ঞানকে সমৃদ্ধ করার সুযোগ মিলবে। গেমটি সবার জন্য উন্মুক্ত থাকবে এবং এটি বিশ্বের যে কোনো জায়গা থেকে অংশগ্রহণ খেলা যাবে। বিভিন্ন দেশ জাতির মানুষ বাংলাদেশ সম্পর্কে শিখতে জানতে পারবে এবং গেমটি বিশ্বব্যাপী বাংলাদেশের পরিচয় তুলে ধরবে। বাংলাদেশের সোস্যাল মিডিয়া প্লাটফর্মে এটি একটি মাইলফলক এবং বাংলাক্যাট গেমটির উদ্ভাবক হতে পেরে আনন্দিত।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন