বুধবার | নভেম্বর ২৫, ২০২০ | ১১ অগ্রহায়ণ ১৪২৭

খবর

বিডিসিএসও প্রসেসের সমাপনী অধিবেশন

স্থানীয় এনজিওগুলো সঙ্গে সমতাভিত্তিক আচরণের আহ্বান

নিজস্ব প্রতিবেদক

বাংলাদেশের স্থানীয় পর্যায়ের ৭০০ নাগরিক সংগঠনের প্লাটফর্ম বিডিসিএসও প্রসেসের দ্বিতীয় বার্ষিক সম্মেলনের তৃতীয় দিন সমাপনী অধিবেশন অনুষ্ঠিত হয় গতকাল। ৭৫ বছরে জাতিসংঘ: উন্নয়ন এবং টেকসই শান্তি প্রতিষ্ঠায় সরকার এবং নাগরিক সমাজের সম্পর্ক প্রতিষ্ঠা শীর্ষক ভার্চুয়াল সমাপনী অধিবেশনে অংশ নিয়ে জাতিসংঘকে বহুপক্ষীয়তা বা বহুজনীনতাকে সমর্থন করার আহ্বান জানান বক্তারা। তারা স্থানীয় এনজিওদের সঙ্গে সমতাভিত্তিক আচরণের আহ্বান জানান।

আন্তর্জাতিক পর্যায়ে মানবাধিকার এবং টেকসই শান্তি প্রতিষ্ঠায় জাতিসংঘকে আরো বেশি গুরুত্ব দিয়ে, জাতীয় পর্যায়ে স্থানীয় এনজিওগুলোর প্রতিস্থাপন না করে সমান অংশীদারিত্ব স্বচ্ছতার মাধ্যমে তাদের সঙ্গে কাজ করার আহ্বান জানানো হয়, যাতে স্থানীয় এনজিও/সিএসও মানবিক সংকটে সাড়া প্রদান এবং উন্নয়ন কর্মসূচিতে নেতৃত্ব দিতে পারে। বিশেষ করে রোহিঙ্গা সংকটসহ ধরনের কার্যক্রমে শুধু মনিটরিং এবং প্রযুক্তিগত সহায়তা প্রদানের মধ্যেই জাতিসংঘের ভূমিকা সীমাবদ্ধ করা উচিত বলে অভিমত প্রকাশ করা হয় অনুষ্ঠানে।

সমাপনী অধিবেশনটির সভাপতিত্ব করেন মানুষের জন্য ফাউন্ডেশনের (এমজেএফ) নির্বাহী পরিচালক শাহীন আনাম। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মহাপরিচালক নজরুল ইসলাম। অধিবেশনটি সঞ্চালনা করেন বিডিসিএসও প্রসেসের জাতীয় সমন্ব্বয়কারী রেজাউল করিম চৌধুরী।

শাহীন আনাম বলেন, আন্তর্জাতিক পর্যায়ে আমরা জাতিসংঘের বহুপক্ষীয়তা ধরে রাখতে লড়াই করব, তবে জাতীয় পর্যায়ে আমাদের প্রতিপক্ষ ভাবা উচিত নয়, স্থানীয় এনজিওগুলোর সঙ্গে সমতাভিত্তিক আচরণ করতে হবে। তিনি রোহিঙ্গাদের মানব মর্যাদার প্রতি পূর্ণ সংহতি শ্রদ্ধা প্রকাশ করে বলেন, রোহিঙ্গা সংকট মোকাবেলার ক্ষেত্রে স্থানীয় এনজিওগুলোর নেতৃত্বকে অবজ্ঞা করা উচিত হবে না।

নজরুল ইসলাম বলেন, জাতিসংঘ, সিএসও এবং বহুপক্ষীয়তার একটি সমন্বয় থাকা উচিত, সরকার তৃণমূলের স্থানীয় এনজিওদের নেতৃত্বের ভূমিকাকে স্বীকৃতি দেয়।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন