শুক্রবার | অক্টোবর ৩০, ২০২০ | ১৫ কার্তিক ১৪২৭

পণ্যবাজার

মহামারীতে ধসের মুখে রাশিয়ার কয়লা উত্তোলন

বণিক বার্তা ডেস্ক

চলতি বছরের প্রথম আট মাসে (জানুয়ারি-আগস্ট) রাশিয়ার কয়লা খাতে করোনা মহামারীর চরম ধাক্কা লেগেছে। দেশটিতে সময় জ্বালানি পণ্যটির উত্তোলন আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় প্রায় ১০ শতাংশ কমে ২৬ কোটি টনের নিচে নেমে এসেছে। এর প্রভাব পড়তে যাচ্ছে ২০২০ সালে রাশিয়ার সামগ্রিক কয়লা উত্তোলনেও। করোনা মহামারীর জের ধরে চলতি বছর দেশটির খনিগুলো থেকে জ্বালানি পণ্যটির সম্মিলিত বার্ষিক উত্তোলন সাড়ে ১০ শতাংশ কমে আসার সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে। যদিও উত্তোলন খাতে বিদ্যমান মন্দা ভাব রাশিয়া থেকে জ্বালানি পণ্যটির রফতানি কমাতে পারেনি। গত আগস্টে দেশটি থেকে জ্বালানি পণ্যটির রফতানি আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় শতাংশের বেশি বেড়েছে। খবর এসঅ্যান্ডপি গ্লোবাল মেটাল বুলেটিন।

কয়লা উত্তোলনকারী দেশগুলোর বৈশ্বিক শীর্ষ তালিকায় রাশিয়ার অবস্থান ষষ্ঠ। তবে জ্বালানি পণ্যটির রফতানিকারকদের বৈশ্বিক তালিকায় দেশটি তৃতীয় শীর্ষ অবস্থানে রয়েছে। কয়লার মোট বৈশ্বিক রফতানি বাণিজ্যের ১৩ দশমিক শতাংশ দেশটি এককভাবে জোগান দেয়। রাশিয়ার সেন্ট্রাল ডিসপ্যাচিং ডিপার্টমেন্ট অব ফুয়েল এনার্জি কমপ্লেক্সের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, চলতি বছরের প্রথম আট মাসে রাশিয়ার খনিগুলো থেকে সব মিলিয়ে ২৫ কোটি ৯১ লাখ টন কয়লা উত্তোলন হয়েছে। এক বছরের ব্যবধানে দেশটিতে জ্বালানি পণ্যটির উত্তোলন কমেছে দশমিক শতাংশ।

তবে বছরের প্রথম আট মাসে কমলেও গত আগস্টে রাশিয়ার কয়লা উত্তোলন খাতে প্রবৃদ্ধি বজায় ছিল। সময় দেশটির খনিগুলো থেকে সব মিলিয়ে কোটি ৬৩ লাখ টন কয়লা উত্তোলন হয়েছে বলে প্রতিবেদনে জানিয়েছে রাশিয়ার অর্থনৈতিক উন্নয়নবিষয়ক মন্ত্রণালয়। আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় গত আগস্টে রাশিয়ায় জ্বালানি পণ্যটির উত্তোলন বেড়েছে দশমিক শতাংশ। শুধু আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় নয়, বরং চলতি বছরের জুলাইয়ের তুলনায় আগস্টে রাশিয়ায় কয়লা উত্তোলন বেড়েছে দশমিক শতাংশ।

খাতসংশ্লিষ্টরা বলছেন, বছরের শুরু থেকে নভেল করোনাভাইরাসের মহামারীর ধাক্কা রাশিয়ার কয়লা শিল্পে চরম চ্যালেঞ্জের জন্ম দেয়। লকডাউনে জ্বালানি পণ্যটির উত্তোলন কমতে শুরু করে। তবে বছরের মাঝামাঝিতে এসে দেশটিতে করোনা পরিস্থিতি কিছুটা স্বাভাবিক হয়ে এসেছে। করোনার ভ্যাকসিন আবিষ্কারে সবচেয়ে এগিয়ে রয়েছে রাশিয়া। এসব অর্জন আগস্টে দেশটির কয়লা উত্তোলনে প্রবৃদ্ধি ফিরিয়ে এনেছে।

তবে করোনা মহামারীর কারণে ২০২০ সাল শেষে রাশিয়ার কয়লা উত্তোলন খাতে মন্দা দেখা যেতে পারে। দেশটির অর্থনৈতিক উন্নয়নবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সাম্প্রতিক পূর্বাভাস অনুযায়ী, চলতি বছর রাশিয়ার খনিগুলো থেকে সব মিলিয়ে ৩৯ কোটি ৫০ লাখ টন কয়লা উত্তোলন হতে পারে, যা আগের বছরের তুলনায় ১০ দশমিক শতাংশ কম।

তবে উত্তোলন খাতের মন্দা ভাব রাশিয়া থেকে আন্তর্জাতিক বাজারে কয়লা রফতানি কমাতে পারেনি। বরং চলতি বছরের আগস্টে দেশটি থেকে জ্বালানি পণ্যটির রফতানি আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় দশমিক শতাংশ বেড়েছে বলে সর্বশেষ মাসভিত্তিক প্রতিবেদনে জানিয়েছে রাশিয়ার জ্বালানি মন্ত্রণালয়। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গত আগস্টে রাশিয়া থেকে আন্তর্জাতিক বাজারে সব মিলিয়ে কোটি ৭২ লাখ টন কয়লা রফতানি হয়েছে, যা আগের মাসের তুলনায় দশমিক শতাংশ বেশি।

রাশিয়ার জ্বালানি মন্ত্রণালয়ের সর্বশেষ মাসভিত্তিক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, চলতি বছরের প্রথম আট মাসে দেশটি থেকে আন্তর্জাতিক বাজারে সব মিলিয়ে ১১ কোটি ২৯ লাখ টন কয়লা রফতানি হয়েছে। এক বছরের ব্যবধানে দেশটি থেকে জ্বালানি পণ্যটির রফতানি বেড়েছে দশমিক শতাংশ।

উত্তোলন কমার বিপরীতে রফতানি খাতে প্রবৃদ্ধি বজায় থাকার পেছনে রাশিয়ার বাজারে কয়লার তুলনামূলক কম দামকে চিহ্নিত করেন খাতসংশ্লিষ্টরা। তাদের মতে, তুলনামূলক কম দাম আমদানিকারকদের রাশিয়ার কয়লার প্রতি আগ্রহ বাড়িয়েছে। কারণে ভারত, চীন, দক্ষিণ কোরিয়া, জাপান, জার্মানি, পোল্যান্ডসহ বিভিন্ন দেশে রুশ কয়লার রফতানি বেড়েছে।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন